ঢাকা | জুলাই ২০, ২০২৪ - ৬:৩১ অপরাহ্ন

রাবিতে আইনের চর্চা ও শাসন শীর্ষক জাতীয় সেমিনার অনুষ্ঠিত

  • আপডেট: Saturday, September 17, 2022 - 11:10 pm

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ‘আইন চর্চা ও আইনের শাসন: মানবাধিকার সুরক্ষা ও জনঅধিকার প্রতিষ্ঠার গুরুত্ব’ শীর্ষক জাতীয় সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার বেলা ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারটির যৌথভাবে আয়োজন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগ এবং এসোসিয়েশন ফর ল্যান্ড রিফর্ম এ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (এএলআরডি)।

অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি রুহুল কুদ্দুস, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক মো. সুলতান-উল ইসলাম ও বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা এএলআরডি-এর নির্বাহী পরিচালক শামসুল হুদা উপস্থিত ছিলেন।

উপাচার্য বলেন, আইনের শিক্ষার্থীরা যা শিখেছে নিজের জীবনে তা বাস্তবায়ন করলে জাতি উপকৃত হবে। একটা সময় আইনের প্রয়োজন হয়নি, কিন্তু মানুষের মধ্যে যখন পুঁজিবাদ ও ভেদাভেদ বাড়ল তখনই আইনের প্রচলন শুরু হলো। তবে সমাজে সাম্য ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা না করা গেলে সুষ্ঠু পরিবেশ রক্ষা করা সম্ভব নয়। আইন যেন সত্যনির্ভর ও যাচাই-বাছাইয়ের মাধ্যমে প্রয়োগ হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখার জন্য এই পেশার সকলের প্রতি আহবান জানান। আইন চর্চার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের নিজেদের আইন মেনে চলার পাশাপাশি অপরকে আইন মানতে অনুপ্রাণিত করারও আহ্বান জানান।

সেমিনারে সমাপনী পর্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ বলেন, আইনের শিক্ষার্থীরা আইনের সঠিক জ্ঞানার্জন করবে। সেই সাথে সুষ্ঠুভাবে আইন চর্চা ও প্রয়োগ করার মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নিবে এমন প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বিচারপতি রুহুল কুদ্দুস তার বক্তব্যে বলেন, উগ্র সাম্প্রদায়িতা পরিহার করে সকলের সমঅধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য দেশে একই ধরণের শিক্ষাব্যবস্থা চালুর কথা তুলে ধরেন যাতে ধর্মকে কেন্দ্র করে জাতি বিভক্ত হয়ে না পড়ে। একটি দেশে সকল ধর্মের মানুষ সমঅধিকার প্রাপ্ত হবেন এটাই কাম্য বলে উল্লেখ করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান-উল ইসলাম বলেন, দেশে ভূমি নিয়ে বিভিন্ন ধরণের মামলা হয়, যা মানুষকে অনেক সময় ভোগায়। তবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগে ভূমিকেন্দ্রিক উদ্ভুত এ সমস্যার অনেকটা সমাধান হয়েছে। ‘৭১ সালে অসাম্প্রদায়িক চেতনার ভিত্তিতে দেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকেই সংখ্যালঘুদের সমঅধিকার প্রতিষ্ঠার চিন্তা করেছিলেন বঙ্গবন্ধু। তাই আইনের শিক্ষার্থী হিসেবে আইনের শিক্ষা গ্রহণের পাশাপাশি সঠিক চর্চা জারি থাকলে দেশ-জাতি উপকৃত হবে।

এছাড়াও সেমিনারে অন্যদের মধ্যে আইন বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক হাসিবুল আলম প্রধান বক্তব্য রাখেন। এসময় সেমিনারে আইন বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ অংশ নেন।