ঢাকা | এপ্রিল ১৬, ২০২৪ - ১:৪১ পূর্বাহ্ন

তানোরে আদিবাসী যুবতীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ গ্রেপ্তার ৩

  • আপডেট: Tuesday, March 26, 2024 - 10:55 am

তানোর প্রতিনিধি: তানোরে আলু কুড়াতে এসে দলবদ্ধ ধর্ষণের স্বীকার হয়েছেন এক আদিবাসী যুবতী (২০)। এঘটনায় জড়িত ৩ ধর্ষককে গ্রেপ্তার করেছেন তানোর থানা পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, তানোর কলমা ইউনিয়নের চকরতিরা (শালতলা) গ্রামের বাজুন মারর্ডীর পুত্র সামুয়েল মার্ডী (২৫), একই গ্রামের কিলিশ মুর্মুর পুত্র রুবেল মুর্মু (২১), নরেশ হাঁসদার পুত্র শিবেন হাঁসদা (২২)। রোববার দিবাগত রাতে উপজেলার কলমা ইউনিয়নের শালতলা গ্রামে ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটেছে । এঘটনায় ৩ ধর্ষককে আসামী করে তানোর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন ওই যুবতী।

মামলার বিবরণ ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার গোমাস্তাপুর উপজেলার একটি গ্রামের জনৈক ব্যক্তির কন্যা (২০) তার দুই বোনকে নিয়ে কলমা ইউনিয়নের শালতলা গ্রামের তার পিসির বাড়িতে আলু কুড়াতে আসেন। আলু কুড়াতে গিয়ে কলমা ইউপি চকরতিরাম গ্রামের মৃত হামেদ আলীর পুত্র রাহিমের সাথে পরিচয় হয়। এর ধরে রোববার রাতে ওই যুবতী তার পিসির বাড়ি শালতলা গ্রামে রাহিমের সাথে কথা বলছিলেন। এসময় ওই গ্রামের আদিবাসী ৩ যুবক তাদেরকে দেখে রাহিমকে তাড়িয়ে দিয়ে আদিবাসী যুবতীকে মাঠে নিয়ে জোরপূর্বক দলবদ্ধ ধর্ষণ করেন।

এবিষয়ে তানোর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি আব্দুর রহিম বলেন, এঘটনার প্রেক্ষিতে তানোর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে। ৩ ধর্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ভিক্টিমের ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য থানা হেফাজতে রাখা রয়েছে।

 

সোনালী/ সা