ঢাকা | জুলাই ১৮, ২০২৪ - ১২:০১ পূর্বাহ্ন

রুয়েটের লাইব্রেরীতে চালু হলো অটোমেশন সফটওয়্যার

  • আপডেট: Monday, April 18, 2022 - 10:13 pm

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (রুয়েট) কেন্দ্রীয় লাইব্রেরীতে অটোমেশন সফটওয়্যারের ব্যবহার শুরু হলো। এই সফটওয়্যারের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা নিজেরাই বই ইস্যু করতে পারবেন। কোন বই কোন গ্যালারীতে আছে, বইটি লাইব্রেরীতে আছে কি না, থাকলে কয়টি আছে, না থাকলে কার কাছে আছে, কবে নাগাদ বইটি পাওয়া যেতে পারে- এ সমস্ত তথ্য পাওয়া যাবে এখানে।

সোমবার বেলা ১১টায় কেন্দ্রীয় লাইব্রেরী ভবনে প্রধান অতিথি হিসেবে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন রুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. রফিকুল ইসলাম সেখ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন গবেষণা ও সম্প্রসারণের পরিচালক ও লাইব্রেরী পরিচালনা কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. ফারুক হোসেন। উপস্থিত ছিলেন যন্ত্রকৌশল অনুষদের অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. মো. সেলিম হোসেন, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন পরিচালক অধ্যাপক ড. মিয়া মো. জগলুল সাদত, কেন্দ্রীয় কম্পিউটার সেন্টারের প্রশাসক ড. মো. আলী হোসেন, ছাত্রকল্যাণ উপ-পরিচালক ছাত্রকল্যাণ মামুনুর রশীদ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, এই সফটওয়্যার ব্যবহারের ফলে অতি অল্প সময়ে সহজেই বই খুজে পাওয়া যাবে। প্রত্যেক ছাত্র এবং শিক্ষকদের নিজস্ব একটি ইউজার আইডি থাকবে। এর মাধ্যমে অনলাইনে জানা যাবে তার কাছে লাইব্রেরীর কয়টি বই আছে। বই ফেরত দিতে দেরী হলে কত টাকা জরিমানা হয়েছে তা নিজেরাই অনলাইনের মাধ্যমে পরিশোধ করতে পারবেন শিক্ষার্থীরা। বই ফেরত দিতে দেরী হলে তাদের নম্বরে মেসেজ এবং স্বয়ংক্রিয়ভাবে ইমেইল চলে যাবে।

এ ছাড়া এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে লাইব্রেরী স্টাফ-কর্মকর্তাদের অনেক সময় বেঁচে যাবে এবং সেবা দেওয়া সহজতর হবে। এই অটোমেশনটি ওপেন সোর্স সফটওয়্যার ‘কোহা’ এর মাধ্যমে সম্পন্ন করা হয়েছে। অটোমেশন প্রক্রিয়ার আওতায় ইতিমধ্যে ৩০ হাজার বই যুক্ত হয়েছে। রুয়েট কেন্দ্রীয় লাইব্রেরী এই সফটওয়্যার এর মাধ্যমে বিশ্বের বড় বড় লাইব্রেরীর সাথে যুক্ত হয়ে বিশেষ সুবিধা পেতে থাকবে।