ঢাকা | ফেব্রুয়ারী ২৬, ২০২৪ - ৩:০৭ পূর্বাহ্ন

জাতির পিতার নাম মুছে ফেলার চেষ্টায় তারা ব্যর্থ হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

  • আপডেট: Sunday, March 27, 2022 - 6:03 pm

 

অনলাইন ডেস্ক: ইতিহাস সব সময় প্রতিশোধ নেয় বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টের পরে বাংলাদেশের ইতিহাস থেকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাম মুছে ফেলার চেষ্টা হয়েছিল। কিন্তু তারা ব্যর্থ হয়েছে। আসলেই ইতিহাস সব সময় প্রতিশোধ নেয়।

রবিবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্স (এসএসএফ) কার্যালয়ে স্থাপিত ‘মুজিব কর্নার’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পচাত্তরের ১৫ আগস্ট জাতির পিতাকে হত্যার পরের নানা প্রেক্ষাপট তুলে ধরে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা বলেন, ‘পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টের পরে প্রবাসে ছিলাম রিফিউজি হিসাবে, কিন্তু নাম-পরিচয়টা দিতে পারেনি। কারণ নিরাপত্তার স্বার্থে যে দেশে আশ্রয় নিয়েছিলাম, তাদের এটাই ছিলো নির্দেশ।’

‘এই শোক-কষ্ট সহ্য করা কত কঠিন। তারপরেও আমার জীবনের একটা প্রতিজ্ঞা ছিলো। জীবনে একদিন না একদিন সময় আসবে। কারণ এত আত্মত্যাগ কোনদিন বৃথা যেতে পারে না।’

সরকারপ্রধান বলেন, পঁচাত্তরের পরে বাংলাদেশের ইতিহাস খেকে জাতির নাম মুছে ফেলা হয়েছিলো। বঙ্গবন্ধুর সাতেই মার্চের ভাষণ ও জয় বাংলা নিষিদ্ধ ছিলো। মুক্তিযুদ্ধের কয়েকটি বাছা বাছা গান বাজানো হতো। যে গানগুলো আমাদের মুক্তিযোদ্ধাদের অনুপ্রেরণা দিতো, সেগুলো নিষিদ্ধ ছিলো। কোথাও বঙ্গবন্ধুর ছবি থাকলে, সেটা হয় কাগজ দিয়ে বন্ধ করা হতো, না হয় আঙ্গুল দিয়ে ঢেকে রাখা হতো।’

আর এভাবে একটি বিকৃত ইতিহাস সৃষ্টি করার চেষ্টা হয়েছিল জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘মূল ইতিহাসটাকে মুছে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছিলো। আসলেই ইতিহাস সবসময় প্রতিশোধ নেয়। যারা সত্যকে মুছে ফেলার চেষ্টা করে…মুছে ফেলা যায় না। আজকেই সেটাই প্রমাণ হয়েছে।’