ঢাকা | জুলাই ১৮, ২০২৪ - ৭:২০ অপরাহ্ন

মঞ্চস্থ হলো ‘গুজব গপ্পো’

  • আপডেট: Thursday, March 3, 2022 - 11:21 pm

 

স্টাফ রিপোর্টার: করোনাকালে বাল্য বিয়ে বেড়ে গেছে। অতিমারির এই সময়ে নানাভাবে গুজবও ডালপালা মেলেছে। যাঁরা গুজব ছড়ায়, তাঁরা যে শুধু করোনা মহামারিতেই এই কাজটি করছে তা নয়। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টে অনেক আগে থেকেই সক্রিয় তারা। এই তিনটি উপজিব্য নিয়েই রাজশাহী থিয়েটারের সভাপতি নিতাই কুমার সরকার রচনা করেছেন একটি নাটক। নিতাই নাটকটির নাম দিয়েছেন ‘গুজব গপ্পো’।

রাজশাহীতে অক্ষয় কুমার মৈত্রেয় নাট্যোৎসবের ষষ্ঠ আসরের পর্দা উঠেছে এই নাটকটি মঞ্চায়নের মধ্যে দিয়ে। বুধবার থেকে রাজশাহী জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে পাঁচদিনের এ উৎসব শুরু হয়েছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর রাতে মঞ্চস্থ হয় ‘গুজব গপ্পো’। পথনাটকের ঢঙে নাটকটি মঞ্চায়ন করা হয়। অনেকে এটিকে ‘পোস্টার ড্রামা’ বলে থাকেন।

গুজব গপ্পো দুটি ভাগে মঞ্চায়ন করা হয়। প্রথমভাগে করোনাকালে কাজলি নামের অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া এক কিশোরীর বিয়ের দৃশ্য দেখানো হয় নাটকে। ১৪ বছরের মেয়েটি বিয়ের একবছরের মধ্যেই সন্তান প্রসব করতে গিয়ে মারা যায়। মৃত্যু হয় নবজাতকেরও। তারপর অনুশোচনার আগুনে পুড়তে দেখা যায় কাজলির বাবাকে।

নাটকের দ্বিতীয়ভাগে নানাভাবে গুজব ছড়িয়ে পড়া এবং তার পরিপ্রেক্ষিতে ক্ষয়ক্ষতি তুলে ধরা হয়। দেশের উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে কিংবা ব্যক্তিগত ছোটখাটো মনোমালিন্যের কারণে একজন আরেকজনকে শায়েস্তার জন্য কীভাবে সামাজিক মাধ্যমে গুজব ছড়িয়ে সহিংসতার সৃষ্টি করা হয় তা দেখানো হয় এ নাটকে। এ ছাড়া ধর্মের নামে গুজব ছড়িয়ে কীভাবে একটি মহল রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের চেষ্টা করে তাও ফুটে ওঠে এ নাটকে। নাটকের কথকেরা প্রযুক্তির ভাল দিকগুলোও তুলে ধরেন।

নাটকটি মঞ্চায়নে নির্দেশনা ও কোরিওগ্রাফিতে ছিলেন কামার উল্লাহ সরকার। আবহ সংগীতে ছিলেন রুদ্রনীল সরকার। আলোক পরিকল্পনা আহসান কবীর লিটনের। অভিনয় করেছেন সাইদুর রহমান সাইদ, শামসুন নাহার লিপি, আল আসমাউল নাসিম, তানজিল আহম্মেদ ইমন, আবু হেনা জুয়েল, সোনিয়া সরকার, প্রগতি দে, অনন্যা সিংহ, অতসি সিংহ, সিরাতুল মোস্তাকিন, অংকিতা মজুমদার প্রমুখ।