ঢাকা | জুলাই ২৪, ২০২৪ - ৬:২০ অপরাহ্ন

অভাবে শিশুসন্তান বিক্রির চেষ্টা বৃদ্ধ দম্পতির

  • আপডেট: Thursday, July 11, 2024 - 12:28 pm

অনলাইন ডেস্ক: জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার ধরঞ্জী ইউনিয়নের রতনপুর (নদীরপার) গ্রামের ভূমিহীন দম্পতি সংসারের অভাব অনটনে দুধের শিশু বিক্রয়ের চেষ্টা করেন। শিশুটির হতভাগা মা বিউটি বেগম (৩২) সন্তানের দুধ ও চিকিৎসার ওষুধপত্র জোগাতে না পেরে সন্তানটি অন্যের কাছে লালন-পালনে দিতে চান। পক্ষান্তরে সাড়ে পাঁচ বছর বয়সের কোলের শিশু সুমাইয়া আক্তারের বৃদ্ধ বাবা খোকা প্রামাণিক (৭২) টাকার বিনিময়ে শিশুটি বিক্রয় করতে চান।

অনেকেই লালন-পালন করার জন্য শিশুটিকে নিতে এলেও প্রতিবেশীদের বাধার কারণে পারেননি।

উপজেলার রতনপুর গ্রামে সরেজমিন দেখা যায় খোকা-বিউটি দম্পতির নিজস্ব জমি না থাকায় ছোট যমুনা নদীরপারে ছোট্ট একটি ঘরে শিশু সুমাইয়াকে নিয়ে বসবাস করেন। পুরাতন টিনের ছাউনি ও সরোঞ্জার বেড়ার জরাজীর্ণ কুঁড়েঘরে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে তারা দীর্ঘদিন যাবত বসবাস করে আসছেন। নদীতে যে বছর অতিরিক্ত বন্যার পানি প্রবাহিত হয় তখন তাদের বাড়ি পানিতে ডুবে যায়। এ সময় তারা প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে অন্যের বাড়ির বারান্দায় আশ্রয় নেন।

প্রতিবেশী জায়বর আলী সরদার বলেন, খোকা আশ্রয়ণ প্রকল্পের সরকারি একটি বাড়ি পেয়েছিল; অভাবের কারণে অন্যের কাছে বেঁচে দিয়েছেন। তারপর থেকে তিনি নদীরপাড়ে ছোট ঘর তৈরি করে বসবাস করেন। খোকা আগেও একটি বিয়ে করেছিলেন। সেই স্ত্রী মারা যাওয়ার পর বিউটিকে বিয়ে করেন এবং শেষ বয়সে শিশুটির বাবা হন। আগে নদীতে মাছ ধরে ও অন্যের বাড়িতে কাজ করে সংসার চালাতেন। এখন শেষ বয়সে নিজেই চলতে পারেন না সংসারের চাল-ডালও ঠিকমতো জোগাতে পারেন না। তার ওপর রয়েছে শিশুটির দুধ ও ওষুধপত্র।

মছিরন বেগম নামের একজন প্রতিবেশী বলেন, আমরা কয়দিন তাদের চাল-ডাল দিয়ে সহায়তা করব। খোকা বয়স্ক ভাতা পায় তবে বিউটি কানে কম শোনে, বোকা এবং বুদ্ধি নাই বললেই চলে। সরকার যদি তাকে একটি প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড করে দিত তাহলে সংসারটা তাদের একটু হলেও চলত।

পাঁচবিবি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আরিফা সুলতানা জানান, ওই বৃদ্ধ বয়স্ক ভাতা পান। তার স্ত্রী যদি প্রতিবন্ধী কোটায় পড়েন তা হলে তাকে প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড করে দেওয়ার বিষয়টি বিধি মোতাবেক বিবেচনা করা হবে।

 

সোনালী/সা