ঢাকা | জুলাই ১৩, ২০২৪ - ৫:৪৮ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম

জমি নিয়ে বিরোধের জেরে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা

  • আপডেট: Thursday, July 4, 2024 - 3:05 pm

অনলাইন ডেস্ক: নোয়াখালীর সদর উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে চাইনিজ কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে মো. মহিন উদ্দিন (৩৮) নামের এক কৃষককে হত্যা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ৯টায় সদর উপজেলার আন্ডারচর গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

এর আগে, গত ১৯ জুন রাত আড়াইটার দিকে সদর উপজেলার আন্ডারচর গ্রামের বশির উল্যাহ বেপারী বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে। পরে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

নিহত মহিন উদ্দিন একই উপজেলার আন্ডারচর ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের আন্ডারচর গ্রামের মো. বশির উল্যার ছেলে। সে পেশায় একজন কৃষক এবং চার সন্তানের জনক ছিলেন।

নিহতের বড় ভাই মো.মোছলে উদ্দিন বলেন, আমাদের বাড়ির ৪০০ ফুট উত্তরে ২৪ শতাংশ জায়গা নিয়ে প্রবিবেশি আবুল বাশারের পরিবারের সঙ্গে বিরোধ চলছিল। গত  ১৯ জুন গভীর রাতে বাশার তার আরও দুই ভাই আব্বাস ও মামুনুর রশীদের নেতৃত্বে ২৫-৩০জন বিরোধপূর্ণ জায়গায় ঘর নির্মাণ করে ফেলেন বিষয়টি জানতে পেরে সঙ্গে সঙ্গে আমি সুধারাম থানা পুলিশকে মুঠোফোনে বিষয়টি অবহিত করি। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে অভিযান চালায়।

তিনি বলেন, পুলিশকে খবর দেওয়ায় বাশার ক্ষিপ্ত হয়ে ওই দিন রাত আড়াইটার দিকে আমাদের বাড়িতে হামলা চালান। হামলায় আমার বাবাসহ পরিবারের সাতজন গুরুত্বর আহত হয়। এরমধ্যে মহিন উদ্দিনকে চাইনিজ কুড়াল দিয়ে মাথায় কুপিয়ে গুরুত্বর জখম করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় আমরা ১৯ জনকে আসামি করে সুধারাম থানায় একটি মামলা করেছি।

সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহেদুল হক রনি বলেন, জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে এই ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় একটি খুনের মামলা হয়েছে। ইতোমধ্যে কয়েকজন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চালছে।

 

সোনালী/ সা