ঢাকা | জুলাই ২৩, ২০২৪ - ১১:০৪ অপরাহ্ন

গুরুদাসপুরে মাটির শয়ন ঘর থেকে ৫০টি বিষধর সাপের বাচ্চা উদ্ধার

  • আপডেট: Thursday, July 4, 2024 - 3:41 pm

অনলাইন ডেস্ক: নাটারের গুরুদাসপুরে একটি বাড়ির মাটির শয়ন ঘর থেকে ৫০টি বিষধর সাপের বাচ্চা উদ্ধার করা হয়েছে। সাপগুলো উদ্ধারের পর পিটিয়ে মেরে ফেলেন স্থানীয়রা। এ ঘটনায় ওই এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

বুধবার (৩ জুলাই) সকালে উপজেলার মশিন্দা ইউনিয়নের শিকারপাড়া নুহুর মোড় এলাকার আব্দুল মতিনের ঘরের মেঝে খুঁড়ে ওই সাপের বাচ্চাা উদ্ধার করেছে এলাকাবাসী।

স্থানীয়রা জানায়, আব্দুল মতিনের ঘরে সাপও বাচ্চা রয়েছে এমন খবর শুনে এলাকাবাসী সেখানে ভিড় করেন। এলাকায় প্রায়ই বিভিন্ন ধরনের সাপ দেখতে পাওয়া যায়। তবে এক সাথে এতগুলো সাপের বাচ্চা তারা আগে কখনো দেখেনি। হঠাৎ শয়নঘরে একসাথে এতাগুলো সাপের বাচ্চার সন্ধান পাওয়ায় বিষয়টি নিয়ে এলাকা জুড়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

আব্দুল মতিন বলেন, সকালে ঘরের মেঝেতে প্রথমে একটি সাপের বাচ্চা দেখতে পান। সেই সাপকে মারতে গিয়ে দেখতে পান আরও দুইটি সাপ। আতঙ্কে তিনি প্রতিবেশিদের খবর দেন। প্রতিবেশিদের সহায়তায় সেই সাপগুলোকে উদ্ধার করে মেরে ফেলা হয়।

মেঝেতে গর্ত থাকায় সন্দেহ হয় মেঝেতে আরও সাপ রয়েছে। এরপর মেঝে খুঁড়ে ডিমের খোসাসহ পঞ্চাশের অধিক জাতি বিষধর সাপের বাচ্চা পাওয়া যায়। সাপের বাচ্চাগুলো মেরে ফেলা হলেও পুরো মেঝে খুঁড়ে সেই মা সাপের সন্ধান পাওয়া যায়নি। বর্তমানে পরিবারের সকল সদস্য আতঙ্কে রয়েছি।

তিনি আরও জানান, এলাকাতে কোন ওঝা না থাকায় উদ্ধারকৃত বাচ্চাগুলো কোন জাতের সাপ তার সঠিক তথ্য পাওয়া সম্ভব হয়নি। তবে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে এগুলো গোখরো জাতের সাপ।

এমনিতেই দেশজুড়ে চলছে রাসেল ভাইপার নিয়ে আতঙ্ক। অপরদিকে বাড়িতে গোখরো জতের অনেক সাপ উদ্ধারের ঘটনায় মানুষের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। সাপ আতঙ্কে রাতে বাড়িতে ঘুমাতে ভয় পাচ্ছে এলাকাবাসী।

 

সোনালী/ সা