ঢাকা | জুলাই ২৪, ২০২৪ - ১২:৫১ পূর্বাহ্ন

লালপুরে প্রবাসীর স্ত্রী হত্যায় কথিত মামা আটক

  • আপডেট: Sunday, June 30, 2024 - 9:10 pm

লালপুর (নাটোর) প্রতিনিধি: নাটোরের লালপুরে শিউলি খাতুন (২৩)কে শ্বাস রোধে হত্যার পলাতক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে লালপুর থানা পুলিশ।

স্থানীয় ও লালপুর থানা সূত্রে জানা যায়, লালপুর উপজেলার চংধুপইল ইউনিয়নের কামার হটি তেনাচুরা গ্রামের দুবাই প্রবাসী সোহানের স্ত্রীকে ২৯ জুন রাতে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়।

এ বিষয়ে পরিবারের লোকজন জানান হত্যার আগে মামা পরিচয়ে ৩ দিন ধরে ওই বাড়িতে রাত্রি যাপন করেন অজ্ঞাত এক পুরুষ। এ খবর জানতে পেরে দুবাই প্রবাসী সোহান তার ছোট ভাইয়ের স্ত্রী নিতুকে কে ওই ব্যক্তি খোঁজ নিতে বললে ঘটনার দিন সকালে রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী নুরনগর গ্রামে বাপের বাড়ি থেকে তেনাচুরা গ্রামে প্রবাসীর বাড়িতে আসেন নিতু।

এ সময় শিউলির ঘরে প্রবেশের সময় অজ্ঞাত ওই লোক বাড়ির মধ্যে ঘোরাঘুরি করতে দেখে এবং শিউলি বিছানায় হাত মোড়ানো অবস্থায় পড়ে আছে। এমন সময় নিতু ডাক চিৎকার দিলে কৌশলে বাড়ির পেছনের দরজা দিয়ে পালিয়ে যায় অজ্ঞাত ওই মামা। পরে পুলিশকে খবর দিলে লালপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে শিউলির মরদেহ উদ্ধার করে। ঘটনা বিবরণ শুনে ওই অজ্ঞাত ব্যক্তির খোঁজে নামে লালপুর থানা পুলিশ।

এরই প্রেক্ষিতে গতকাল রাতে বাগাতিপাড়া উপজেলার মাড়িয়া গ্রাম থেকে ঘটনার সাথে জড়িত সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার গচিয়া গ্রামের বিল্লাল মিয়ার ছেলে কথিত মামা জাকির হোসেন (৩৫)কে গ্রেপ্তার করে লালপুর থানা পুলিশ। কথিত মামার শিকার উক্তিতে জানা যায়, প্রবাসী সোহানুর রহমান শুভ ছেলে আব্দুল্লাহ ও স্ত্রী শিউলিকে রেখে দু’বছর পূর্বে জীবন জীবিকার তাগিদে দুবাই চলে যায়।

এ সময় শিউলি খাতুন তার বোন সোনালীর গাজীপুর জেলার কোনাবাড়ি বোনের ভাড়া বাসায় বেড়াতে যায়। সেখানে কথিত মামার সাথে পরিচয় হয়ে পরকিয়ায় জড়িয়ে পড়ে। ওই খানেই তাদের শারীরিক সম্পর্ক হয়ে যায় এবং মামার নিকট থেকে নগদ টাকা হাওলাত নিয়ে স্বামীর বাড়ি উপজেলার কামার হাটি তেনাচুরা গ্রামে চলে আসে। ঘটনার আগে সেই সূত্র ধরে গত ২৬ জুন গাজীপুর থেকে ট্রেন যোগে আবদুল পুর স্টেশনে পৌঁছে কথিত মামা শিউলির বাড়িতে যায় এবং একই সাথে তারা ওই বাড়িতে তিন দিন ধরে রাত্রি যাপন করেন ও শারীরিক সম্পর্ক করেন।

এ সময় তাদের মধ্যে টাকা লেনদেনের বিষয় নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে গলায় উড়না পেচিয়ে ও বালিশ চাপা দিয়ে শিউলির মৃত্যু নিশ্চিত করে। পরে বিষয়টি জানাযানি হলে মামা তার ব্যবহৃত কাপড় রেখে পাশেই পাট খেতে আত্মগোপন করে। থানা পুলিশ তথ্য প্রযুক্তির সহযোগিতায় সন্ধ্যা রাত ৮ টার সময় গাজীপুর যাওয়ার প্রস্তুতিকালে পাট খেত থেকে বেরিয়ে রাস্তায় উঠে বাগাতিপাড়া উপজেলার মাড়িয়া গ্রামের দিকে রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় তাকে আটক করে।

এ ঘটনা দিনাজপুর জেলার নবাবগঞ্জ থানার হরিনাথ গ্রামের শিউলির ভাই বাদি হয়ে লালপুর থানায় একটি হত্য মামলা রজু করে। এব্যাপারে লালপুর থানার অফিসার ইনচার্জ নাছিম আহমেদ জানান অভিযুক্ত জাকিরকে গ্রেপ্তার করে নাটোর আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।