ঢাকা | জুলাই ২৪, ২০২৪ - ৫:৩৪ অপরাহ্ন

সাকিব-মাহমুদউল্লাহর ফর্মহীনতা ভুগিয়েছে বিশ্বকাপে: তাসকিন

  • আপডেট: Friday, June 28, 2024 - 3:36 pm

অনলাইন ডেস্ক: টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেরা সাফল্যটা পেতে পারত বাংলাদেশ। সুপার এইটে প্রথম দুই ম্যাচ হারলেও সেমিতে যাওয়ার সেরা সুযোগটা পেয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ। আফগানদের দেওয়া ১১৫ রান তাড়া করতে হতো মাত্র ১২.১ ওভারে। তবে শেষ পর্যন্ত সেটি পারেনি বাংলাদেশ। সুপার এইটে জিততে পারেনি এক ম্যাচেও। যার কারণ হিসেবে ব্যাটারদের সঙ্গে দলের দুই সিনিয়র ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ফর্মহীনতাকেও কারণ হিসেবে দায়ী করেছেন তাসকিন আহমেদ।

ব্যর্থ বিশ্বকাপ মিশন শেষে শুক্রবার ঢাকায় পা রেখে বিমানবন্দরে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছেন তাসকিন। সেখানে টাইগারদের বিশ্বকাপ ব্যর্থতার কারণ হিসেবে মূলত দায়টা তিনি ব্যাটারদের ওপরই চাপিয়েছেন।

যা নিয়ে তাসকিন বলেন, ‘বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ডে যুক্তরাষ্ট্রে যখন খেলা হয়েছে, তখন উইকেট ব্যাটসম্যানদের পক্ষে কম ছিল। আপনারা যদি পরিসংখ্যান দেখেন, অন্য দেশের বড় বড় ব্যাটসম্যানকেও সেখানে ধুঁকতে হয়েছে। সেখানে বোলারদের একটু বাড়তি সুবিধা ছিল। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজে যাওয়ার পর আমরা কিছুটা ভালো উইকেটে খেলেছি। কিন্তু আমি বাংলাদেশ দলের হয়ে ক্রিকেট খেলার সময়, লাস্ট ১০ বছর ধরে খেলছি, কখনোই এত লম্বা ব্যাডপ্যাচ দেখিনি। আশা করি এটা কাটিয়ে উঠবে।’

দলের দুই অভিজ্ঞ ক্রিকেটাররের ফর্মহীনতা ভুগিয়েছে কিনা এমন প্রশ্নে তাসকিন বলেন, ‘দুজন সিনিয়রের ফর্মে না থাকা অবশ্যই প্রভাব ফেলেছে। কিন্তু মাঠের বাইরে প্রভাব পড়েনি। ৪৭ দিন একসঙ্গে ছিলাম, সবাই একসঙ্গে ছিলাম। অফ দ্য ফিল্ডে সব ভালো ছিল। দলের গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়রা অফ ফর্মে থাকলে ওই দলে সমস্যা হওয়াটাই স্বাভাবিক। আশা করছি দ্রুত সামনে এসব কাটিয়ে উঠব।’

বিশ্বকাপটা ভালো না গেলেও সমর্থকদের ধৈর্য ধরতে বলেছেন তাসকিন। বিশ্বাস রাখতে বলেছেন সমর্থকদের। বলেন, ‘ধীরে ধীরে উন্নতি হচ্ছে। টি-টোয়েন্টিতে আমরা আগে থেকেই অনেক পিছিয়ে ছিলাম। সেখান থেকে উন্নতি তো হচ্ছে। শুধু মাইনাস পয়েন্ট দেখলে তো হবে না। এমনিতেই মাইনাসেই আছি। প্লাসে আসার সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি। করেই যাব। আপনারা হতাশ হচ্ছেন, স্বাভাবিক। আবার আমরা আপনাদের ভালো জয় উপহার দেব। বিশ্বাস রাখেন আমাদের ওপর।’

 

সোনালী/ সা