ঢাকা | জুলাই ২৪, ২০২৪ - ৫:৫১ অপরাহ্ন

‘এমপি মনোনয়ন চাওয়াই আমার অপরাধ’, আদালতকে মিন্টু

  • আপডেট: Friday, June 14, 2024 - 5:54 pm

অনলাইন ডেস্ক: এমপি আনোয়ারুল আজিম আনার হত্যার ঘটনায় ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল করিম মিন্টুকে ৮ দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত। ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত গতকাল (বৃহস্পতিবার) এ আদেশ দেন।

মিন্টুর রিমান্ড আবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, এমপি আনার হত্যায় সরাসরি জড়িত গ্রেফতার শিমুল আদালতে যে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন, সেখানে আসামি সাইদুল করিম মিন্টুর সংশ্লিষ্টতা আছে। হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে আর্থিক লেনদেন সংক্রান্তে মিন্টুর সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়। বর্তমানে পুলিশ রিমান্ডে থাকা আসামি কামাল আহমেদ বাবু ওরফে গ্যাস বাবু এমপি আনার অপহরণে মিন্টুর সংশ্লিষ্টতার বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছেন। মূল পরিকল্পনাকারী শাহিন আসামি মিন্টুর সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপে কথা বলেন।

শিমুল তার জবানবন্দিতে উল্লেখ করেছেন, চলতি বছরের ৫ ও ৬ মে এমপি আনারকে প্রলুব্ধ করে অপহরণ ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারী আক্তারুজ্জামান শাহিন আসামি সাইদুল করিম মিন্টুর সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপে কথা বলেন এবং এমপি আনার হত্যা পরিকল্পনা বাস্তবায়ন সাপেক্ষে আর্থিক লেনদেনের কথা বলেন। হত্যার প্রমাণস্বরূপ ছবি আদান-প্রদান করা হয়।

এমপি আনার ১২ মে ভারতে যান। পরদিন ১৩ মে কলকাতার নিউটাউন এলাকার সঞ্জীবা গার্ডেনের একটি ফ্ল্যাটে খুন হন তিনি। তার শরীরের হাড় থেকে মাংস আলাদা করে টুকরো টুকরো করে ফেলা হয় সঞ্জীবা গার্ডেনের ফ্ল্যাটের সেপটিক ট্যাংকে। আর হাড় ফেলা হয় খালে। তবে ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসে ২২ মে।

ওইদিন রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানায় আনারের মেয়ে মুমতারিন ফেরদৌস ডরিন (২৪) অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে অপহরণ মামলা করেন। দুই দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তদন্তে এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত হিসাবে এ পর্যন্ত ১২ জনের নাম বেরিয়ে এসেছে। গ্রেফতার হয়েছেন সাত জন। তারা হলেন-বাংলাদেশে গ্রেফতার শিমুল ভূঁইয়া, তানভীর, সেলেস্তি, বাবু ও মিন্টু। এদের মধ্যে বাবু ও মিন্টু ছাড়া অন্যরা আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। এছাড়া ভারতে গ্রেফতার আছে সিয়াম ও কসাই জাহিদ। আর তিনজনের নাম এসেছে, যারা হত্যাকাণ্ডের সরাসরি জড়িত নয়। তবে আর্থিক লেনদেনের তারা ব্যবহৃত হতে পারে বলে ডিবির সন্দেহ। হত্যাকাণ্ডের মাস্টারমাইন্ড আক্তারুজ্জামান শাহীন যুক্তরাষ্ট্রে পালিয়ে গেছেন। এছাড়া পলাতক আছেন মোস্তাফিজ ও ফয়সাল।

কালীগঞ্জে আনার হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন : আনার হত্যাকাণ্ডে সাইদুল করিম মিন্টুকে মূল পরিকল্পনাকারী বলে দাবি করেছেন মেয়র আশরাফুল আলম। তিনি বলেন, এ হত্যায় কালীগঞ্জের অনেকে অর্থের জোগানদাতা রয়েছে। সুষ্ঠু তদন্ত করলে তাদের নামও বেরিয়ে আসবে। বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলার ৭ নম্বর রায়গ্রাম ইউনিয়নে আয়োজিত এমপি আনার হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধনে এসব কথা বলেন তিনি। ঝিনাইদহ-যশোর মহাসড়কের দুলাল মুন্দিয়া নামক স্থানে মানববন্ধনের আয়োজন করে রায়গ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ।

মানববন্ধনে উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর সিদ্দিকী ঠান্ডু, কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শিবলী নোমানী বক্তব্য দেন।

মিন্টুকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে মানববন্ধন : সাইদুল করিম মিন্টুকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার সকালে জেলা দোকান মালিক সমিতির আয়োজনে শহরের পোস্ট অফিস মোড়ে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য দেন জেলা দোকান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মনোয়ারুল ইসলাম মন্টু, সহসাধারণ সম্পাদক মতিয়ার রহমান, মুন্সি মার্কেটের সভাপতি রবিউল ইসলাম রবি, চেম্বার অব কমার্সের নেতা মোয়াজ্জেম হোসেন প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, এমপি আনার হত্যার প্রায় এক মাস পর মিন্টুকে ষড়যন্ত্র করে গ্রেফতার করা হয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে মিন্টুকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য গোয়েন্দা পুলিশের প্রতি দাবি জানান তারা।

 

সোনালী/ সা