ঢাকা | জুন ১৪, ২০২৪ - ৭:৪৮ অপরাহ্ন

চারঘাটে ভ্যানচালককে হত্যার দায়ে তিনজনের যাবজ্জীবন

  • আপডেট: Sunday, June 9, 2024 - 10:00 pm

স্টাফ রিপোর্টার: ভ্যানচালককে গলাকেটে হত্যার দায়ে তিনজনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডসহ প্রত্যেক আসামিকে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা অর্থ অনাদায়ে আরও ছয় মাস করে সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

রোববার রাজশাহীর জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ সাইফুর রহমান সিদ্দিক ৬২ পৃষ্ঠার এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার সময় মামলার দণ্ডপ্রাপ্ত তিন আসামি আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন। পরে আদালতের নির্দেশে তাদের রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

দণ্ডপ্রাপ্ত তিন আসামি হলেন রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার সদর পৌরসভার আস্করপুর মহল্লার মৃত রাস্তম আলীর পুত্র মিনারুল ইসলাম(৩০), মোকছেদ আলীর পুত্র মাসুদ রানা (৩২) ও সাদিপুর মহল্লার মৃত আমজাদ হোসেনের পুত্র জুলহাস ইমরুল কায়েস ওরফে জুয়েল (৩০)। রায় ঘোষণার পর আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি বিশেষ পিপি অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান মিঠু এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ঘটনাটি ২০২০ সালের ৯ অক্টোবরের। ওই দিন সন্ধ্যার পর চারঘাট উপজেলার পশ্চিম বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের রাস্তার পাশে স্থানীয়রা ব্যাটারিচালিত ভ্যানচালক জালাল উদ্দিনকে গলাকাটা অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। এ সময় স্থানীয়রা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত জালালের গ্রামের বাড়ি রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার মেরামতপুর গ্রামে। চাঞ্চল্যকর এ হত্যার ঘটনায় নিহত জালালের ছেলে আঃ মানিক পরদিন ১০ অক্টোবর অজ্ঞাতনামা ২/৩ জনকে আসামি করে চারঘাট মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

পরে মামলার তদন্ত শেষে ২০২১ সালের ২৫ এপ্রিল পুলিশ আদালতে উল্লেখিত তিনজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। এতে ব্যাটারিচালিত ভ্যানটি ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যেই জালালকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়।

এরপর এ মামলায় আদালতে মোট ১৭ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়। সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আসামিদের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় এ দণ্ড প্রদান করেন আদালত। আসামি পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট হামিদুল হক।

সোনালী/জেআর