ঢাকা | জুন ২২, ২০২৪ - ৬:১৮ অপরাহ্ন

সিরাজগঞ্জে বালু উত্তোলন বন্ধ করল এলাকাবাসী

  • আপডেট: Monday, June 3, 2024 - 9:45 pm

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার এনায়েতপুরে নির্মাণাধীন বাঁধের মাত্র ২০ মিটার দূরে অবৈধভাবে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করছিল প্রভাবশালী চক্র।

ভাঙন কবলিত স্থানীয় মানুষেরা এ বিষয়ে বার বার অভিযোগ দিলেও কোনো পদক্ষেপ নেয়নি প্রশাসন। অবশেষে বাধ্য হয়ে এলাকাবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে নিজেরাই ওই চক্রের বালু উত্তোলন বন্ধ করে দিয়েছেন।

এনায়েতপুর খাজা ইউনুস আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, এনায়েতপুর যমুনা নদীর স্পার বাঁধের উত্তর-দক্ষিণ পাশে প্রভাবশালীরা দীর্ঘদিন ড্রেজার দিয়ে কৌশলে দিনে-রাতে বালু উত্তোলন করছিলেন। স্পার বাঁধের উত্তর পাশে দুটি ও দক্ষিণে বসানো একটি আনলোড মেশিন দিয়ে ৬ ইঞ্চি পাইপের মাধ্যমে দুপাশে লাখ লাখ ঘনফুট বালু উত্তোলন করে ট্রাকযোগে বিক্রি করছিল। এভাবে বালু উত্তোলনের ফলে যমুনার দুপারেই নদী ভাঙন অব্যাহত রয়েছে।

এদিকে, চলমান তীর সংরক্ষণ বাধ নির্মাণে নিয়োজিত সাব ঠিকাদাররাও এসব বালু উত্তোলন করে কাজে ব্যবহার করছে বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন। এই চক্রটি প্রায় এক সপ্তাহ ধরে খাজা ইউনুস আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পূর্ব পাশে নির্মাণাধীন নদী তীর সংরক্ষণ বাঁধের মাত্র ২০ মিটার দূরে বাংলা ড্রেজার লাগিয়ে বালু উত্তোলন করছিল। বিষয়টি টের পেয়ে রোববার এলাকাবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে গিয়ে ড্রেজারটি বন্ধ করে দেয়।

এ ব্যাপারে এনায়েতপুর গ্রামের হাসমত আলী, আবুল হোসেন, জহুরুল ইসলাম বলেছেন, বাংলা ড্রেজার দিয়ে সাবেক চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রাশেদুল ইসলাম সিরাজের লোকজন জোর করে বালু তুলছিলেন। পরে আমরা এলাকাবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে তা বন্ধ করে দিয়েছি। যেখানে বাঁধ নির্মাণ করা হচ্ছে মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও বিশ্ববিদ্যালয়সহ রক্ষার জন্য, সেখান থেকেই ড্রেজার দিয়ে বাল উত্তোলন করা হচ্ছিল!

এর চেয়ে আর বড় অপরাধ নেই। আমরা চাই এদের বিরুদ্ধে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়া হোক। এ ব্যাপারে জানতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রাশেদুল ইসলাম সিরাজের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি কল রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

এদিকে সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান জানান, যমুনা নদীর কোথাও থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করতে দেওয়া হবে না। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়া হবে। চৌহালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহবুব হাসান জানান, আমি ঘটনাস্থলে লোক পাঠিয়েছি। শিগগিরই এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।