ঢাকা | জুন ১৯, ২০২৪ - ১০:০৩ পূর্বাহ্ন

নাটোরে ছিনতাই ঘটনায় ৪ যুবক গ্রেপ্তার

  • আপডেট: Thursday, May 23, 2024 - 12:14 pm

অনলাইন ডেস্ক: নাটোরে একটি পুরাতন মোবাইল ফোন কিনতে আসা নুর জান্নাত জামিল শেখ (২০) নামে এক যুবককে অপহরনের পর নির্যাতন করে টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনতাইয়ের ঘটনায় চার যুবককে গ্রেপ্তার করেছে ডিবি পুলিশ।

এসময় তাদের কাছে থেকে ছিনতাই হওয়া মোবাইল ফোন ও নগদ টাকা সহ ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত ২টি টিপ চাকু ও মোটর সাইকেল উদ্ধার করা হয়। এসংক্রান্ত একটি মামলা হওয়ার পর ডিবি পুলিশ গতকাল বুধবার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে মামলার ৪ আসামীকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো নাটোর শহরের পটুয়াপাড়া (ঝাউতলা) এলাকার ইসমাইল গাজী গোরানের ছেল হৃদয় আলী (১৯), কামারদিয়াড় (রামাইগাছী) এলাকার রমজান আলী বাবুর ছেলে মোঃ ফয়সাল হোসেন (১৯), উত্তর পটুয়াপাড়া (ঝাউতলা) এলাকার আমিরুল ইসলামের ছেলে মোঃ রাব্বি হোসেন (১৯) এবং দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলার হুগলিপাড়া গ্রামের মোঃ সাইফুল ইসলামের ছেলে মোঃ মেহেদী হাসান শুভ (১৯)।

নাটোর ডিবি পুলিশের প্রেরিত প্রেস রিলিজে জানানো হয়,পাবনার ইশ্বরদী উপজেলার আল্লাদী এলাকার মুহাম্মদ মহব্বত আলীর ছেলে নুর জান্নাত জামিল শেখ গত ১৭ মে মোবাইল ফোনের ফেসবুক আইডিতে লগইন থাকাকালে পুরাতন মোবাইল ফোন বিক্রির একটি বিজ্ঞাপন দেখতে পায়। ওই বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা মোবাইল ফোনে বিক্রেতার সাথে যোগাযোগ করে নুর জান্নাত ২০ মে সকালে নাটোরে আসে।

পাবনা থেকে বাসযোগে বেলা ১১টার দিকে নাটোরের হরিশপুর বাইপাস মোড়ে নামার পর মামলার আসামী কথিত মোবাইল বিক্রেতা হৃদয়ের সাথে ফোনের মাধ্যমে যোগাযোগ করে। আসামী হৃদয় একটি মোটর সাইকেলে হরিশপুর বাইপাস মোড়ে আসে এবং মোবাইল ক্রেতা মামলার বাদি নুর জান্নাত জামিল শেখকে মোবাইল ফোন দেখানোর কথা বলে মোটর সাইকেলে উঠিয়ে নিয়ে একটি ভুট্টা ক্ষেতের মদ্যে নিয়ে যায়।

সেখানে পুর্ব থেকে অপেক্ষমান আরাে ৩/৪ জন আসামী এসে বাদীকে টিপ চাকুর ভয় দেখিয়ে তার কাছে থাকা ২২হাজার ৫৩০ টাকা ও রিয়েলমি স্মার্ট ফোন যার মুল্য ১৫হাজার ৫শ টাকা ছিনিয়ে নেয়।

পরে বাদীকে ছেড়ে দেয়ার কথা বলে বাদির মোবাইল ফোনের বিকাশ থেকে আরো ৩৩৫০ টাকা হৃদয় আলীর মোবাইল ফোনে সেন্ড মানি করে নেয়। এসময় বাদি নুর জান্নাত জামিল শেখ চলে যেতে চাইলে তার কাছে আরো ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করা হয়। চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে হৃদয় সহ অন্যরা তাকে হত্যার হুমকি দিয়ে নির্যাতন শুরু করে। এক পর্যায়ে আসামী হৃদয় তাকে টিপ চাকু দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঁর দিয়ে আঘাত করে এবং অন্যরা কিলি ঘুষি ও লাথি মেরে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ছিলাফুলা জখম করে।

পরে নুর জান্নাত জামিল শেখ বাদি হয়ে নাটোর সদর থানায় এঘটনায় একটি মামলা রুজু করেন। এই মামলা দায়েরের পর গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল বুধবার পুলিশ বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ঘটনার সাথে জড়িত ৪ যুবককে গ্রেফতার করে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ ) মোঃ শরিফুল ইসলাম ছিনতাইয়ের ঘটনায় চার যুবককে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সোনালী/ সা