ঢাকা | জুন ১৯, ২০২৪ - ১০:৫৬ পূর্বাহ্ন

বাগমারায় সান্টু, দুর্গাপুরে শরিফুজ্জামান ও পুঠিয়ায় সামাদ নির্বাচিত

  • আপডেট: Tuesday, May 21, 2024 - 10:00 pm

ডেস্ক: আজ মঙ্গলবার দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে রাজশাহীর বাগমারা উপজেলায় জাকিরুল ইসলাম সান্টু, দুর্গাপুরে শরিফুজ্জামান শরিফ ও পুঠিয়ায় আব্দুস সামাদ বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

বাগমারা প্রতিনিধি জানান, বাগমারায় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মোট ১২২টি কেন্দ্রের মধ্যে সব  কেন্দ্রের ফলাফর পাওয়া গেছে। এতে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জাকিরুল ইসলাম সান্টু (ঘোড়া) প্রতীকে মোট ৪৭ হাজার ৩২২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বাগমারা উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক সরকার ওরুফে আর্ট বাবু (আনারস) প্রতীকে পেয়েছেন ৪ হাজার ৩২১ ভোট।

এছাড়া বাগমারা উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাটগাঙ্গোপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা কোহিনুর বানু (কলস) প্রতীকে ৪১ হাজার ৭২৩ ভোট পেয়ে বেরসকারিভাবে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ভবানীগঞ্জ পৌর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মমতাজ আক্তার বেবি (প্রজাপতি) প্রতীকে পেয়েছেন ৫ হাজার ৪৪৭ ভোট। অপরদিকে আউচপাড়া ইউনিয়ন আ’লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম শহিদ এবার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

দুর্গাপুর প্রতিনিধি জানান, রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শেষে বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক শরিফুজ্জামান শরিফ। নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী শরিফুজ্জামান শরিফ মোট ভোট পেয়েছেন ৪২ হাজার ১১৩ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আব্দুল মজিদ পেয়েছেন ২৭ হাজার ৩৭২ ভোট।

এছাড়াও ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন টিওউবওয়েল প্রতীকের প্রার্থী আব্দুল কাদের মণ্ডল। তিনি পেয়েছেন ৩৪ হাজার ৮২৪ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী শামীম ফিরোজ তালা প্রতীকে পেয়েছেন ৩০ হাজার ৩৫১ ভোট।

অপরদিকে সংরক্ষিত নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে বানেছা বেগম ফুটবল প্রতীকে পেয়েছেন ৩৩ হাজার ৮৬৭ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী কহিনুর বেগম কলস প্রতীকে পেয়েছেন ৩৩ হাজার ৩০৬ ভোট। ৫৬১ ভোট বেশি পেয়ে বানেছা বেগম টানা চতুর্থবার ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

পুঠিয়া প্রতিনিধি জানান, দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় আব্দুস সামাদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। পুঠিয়া উপজেলার সবগুলো কেন্দ্রের প্রাপ্ত ফলাফল অনুযায়ী চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী প্রার্থী বর্তমান জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সামাদ মোল্লা আনারস প্রতীক পেয়েছেন ২৬ হাজার ৬৬৫ ভোট।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আহসানুল হক মাসুদ ঘোড়া  প্রতীকে পেয়েছেন ২৩ হাজার ৬৭৯ ভোট এবং বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান জি এম হিরা বাচ্চু মোটরসাইকেল প্রতীকে পেয়েছেন ৯ হাজার ৮৭২ ভোট।

এছাড়াও ভাইস চেয়ারম্যান পদে তিন প্রার্থীর লড়াইয়ে বর্তমান উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন হোসেন মুকুল মহুরক চশমা প্রতীকে পেয়েছেন ২৮ হাজার ১৭৬ ভোট, আর জামাল মাস্টার তালা প্রতীকে পেয়েছেন ১০ হাজার ৯৫৫ ভোট এবং মুরাদ হোসেন টিউবাল প্রতীকে পেয়েছেন ১৯ হাজার ১৯৩ ভোট।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান মৌসুমী আক্তার বৈদ্যুতিক পাখা মার্কা প্রতীকে পেয়েছেন ২৬ হাজার ৯৮০ ভোট, ফুটবল প্রতীকে পরিযান বেগম পেয়েছেন ২১ হাজার ৮৯২ ভোট ও শবনাজ আক্তার পেয়েছেন হাস মার্কা প্রতীকে ৮ হাজার ৫৯৬ পেয়েছেন। পুঠিয়া উপজেলায় মোট ভোটার সংখ্যা এক লক্ষ ৮২ হাজার ১ জন। তারা মোট ৭৮ টি ভোট কেন্দ্রে ভোট প্রদান করেন।

সোনালী/জেআর