ঢাকা | মে ২২, ২০২৪ - ১০:৪৫ অপরাহ্ন

বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে ইনোভেশন হাবের প্রি-সিড মানি পেলো ৫ দল

  • আপডেট: Friday, May 10, 2024 - 12:13 am

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ ও হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের উদ্যোগে বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রিক নতুন নতুন আইডিয়া ইনোভেশন সৃষ্টির লক্ষ্যে বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় ইনোভেশন হাবের অধীনে প্রি-সিড ফান্ড পেয়েছে ৫ টি দল। স্টার্ট আপ প্রোগ্রাম কোহোর্ট-১ দলগুলোকে সর্বমোট আড়াই লাখ টাকা সিড মানি দেওয়া হয়।

সোমবার (৬ মে) বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট হলে তাদের ইনোভেটিভ প্রোডাক্টের প্রোটোটাইপ তৈরির জন্য এ ফান্ড দেয়া হয়।

প্রতিযোগিরা শুরুতে তাদের আইডিয়া জুরি বোর্ডের সামনে উপস্থাপন করেন। অংশগ্রহনকারী ৮ টি গ্রুপের মধ্যে ৫ টি গ্রুপ টেকনো ফ্লো, আমার দোকান, বিজ কোডার, মেট্রো গাইড এবং থ্রেড রিপার-কে বিজয়ী ঘোষনা করেন জুরি বোর্ড । কোহোর্ট-১ এর প্রতিটি বিজয়ী গ্রুপকে প্রি-সিড ফান্ডিং-এর আওতায় পঞ্চাশ হাজার টাকা করে দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেন বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় আইটি-এর উপ-পরিচালক জনাব ফরিদুজ্জামান। তিনি প্রতিটি টিমকে শুভকামনা জানিয়ে বলেন, ‘প্রতিটি টিম খুবই ভাল কাজ করেছে। টিমগুলো তাদের ইনোভেশন যখন সত্যিকার অর্থে প্রোডাক্ট হিসেবে মার্কেটে নিয়ে আসবে তখন এর দ্বারা বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনামসহ সর্বস্তরের মানুষের সামাজিক এবং অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি ঘটবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘যে সকল টিম কোহোর্ট-১ এ বিজয়ী হতে পারেনি, তাদের নতুন ভাবে কোহোর্ট-২ এ অংশগ্রহণ করার সুযোগ থাকবে।’

পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর ড. আনন্দ কুমার সাহা, রেজিস্ট্রার সুরঞ্জিত মন্ডল, ইংরেজি বিভাগের প্রধান প্রফেসর মো. শহীদুর রহমানসহ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

প্রফেসর ড. আনন্দ কুমার সাহা বলেন, ‘বাংলাদেশ তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে এমন আয়োজন সত্যিই প্রশংসনীয়। বিজয়ীদের উদ্যোক্তা হিসেবে যাত্রা শুরু করার সাথে সাথে, এই তহবিলটি একটি অনুঘটক হিসাবে কাজ করতে পারে।’ তিনি সকলকে আগামীর জন্য শুভ কামনা জানান।

উল্লেখ্য, আগামী ২৪ মে থেকে বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে কোহোর্ট-২ ও কোহোর্ট-৩ রেজিস্ট্রেশন শুরু হবে। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল বিভাগের শিক্ষার্থী অংশ নিতে পারবে। ইনোভেশন হাব স্টার্টআপ আইডিয়াকে ইন্ডাস্ট্রি এক্সপার্টের মাধ্যমে বিজনেস মার্কেটে প্রবেশ পর্যন্ত পর্যাপ্ত ট্রেনিং প্রদান করে। এই কম্পিটিশনে অংশগ্রহনকারী প্রতিটি দল চার মাসব্যাপী হ্যান্ডস অন স্টার্টাপ ট্রেনিং সম্পন্ন করার সুযোগ পেয়ে থাকেন।

সোনালী/ সা