ঢাকা | এপ্রিল ১৪, ২০২৪ - ৮:৩৮ অপরাহ্ন

নিজের নামে ভুয়া বিবৃতি পিসিবির, ক্ষুব্ধ শাহিন আফ্রিদি

  • আপডেট: Monday, April 1, 2024 - 12:47 pm

অনলাইন ডেস্ক: গত বছরের নভেম্বরে ভারতে অনুষ্ঠিত ওয়ানডে বিশ্বকাপে দলের বাজে পারফরম্যান্সের কারণে নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়ার আগেই অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেন বাবর আজম। এরপর টেস্ট দলের নেতৃত্ব দেওয়া হয় শান মাসুদকে। আর টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক করা হয় তারকা পেস বোলার শাহিন শাহ আফ্রিদিকে।

বিশ্বকাপ শেষে অস্ট্রেলিয়া সফরে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে অংশ নিয়ে ৩৬০ রান, ৭৯ রান আর ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারে শান মাসুদের নেতৃত্বাধীন পাকিস্তান।

এরপর নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়ে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে ৪-১ ব্যবধানে হারে শাহিন শাহ আফ্রিদির নেতৃত্বাধীন পাকিস্তান।

শুধু তাই নয়, সদ্য শেষ হওয়া পাকিস্তান সুপার লিগেও অধিনায়ক হিসেবে চমক দেখাতে পারেননি লাহোর কালান্দার্সকে দুইবার শিরোপা উপহার দেওয়া অধিনায়ক শাহিন আফ্রিদি।

শাহিন শাহ আফ্রিদির সাম্প্রতিক বাজে পারফরম্যান্সের কারণে জুনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিতব্য টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে সামনে রেখে পাকিস্তানের নেতৃত্বে ফেরানো হয় সাবেক অধিনায়ক বাবর আজমকে।

অধিনায়কত্বের ঘোষণা চূড়ান্ত হওয়ার পরেই শাহিন আফ্রিদির নামে একটি বিবৃতি প্রচার হয়।  তবে পরে জানা গেছে, পাক এই পেসার নাকি ওই বিবৃতি দেনইনি।  বরং তার সঙ্গে কোনো আলাপ না করেই এই বিবৃতি প্রকাশ করেছে পিসিবি।

ওই বিবৃতিতে শাহিন আফ্রিদি বলেছিলেন, পাকিস্তান জাতীয় দলের অধিনায়কত্ব করতে পারাটা চূড়ান্ত সম্মানের ব্যাপার। সব সময়ই এ স্মৃতি ও সুযোগ লালন করে যাব। দলের খেলোয়াড় হিসেবে অধিনায়ক বাবর আজমকে সমর্থন জানানো আমাদের কর্তব্য। আমি তার নেতৃত্বে খেলেছি এবং তার প্রতি আমার শুধুই শ্রদ্ধা রয়েছে। মাঠ এবং মাঠের বাইরে আমি তাকে সহযোগিতা করার চেষ্টা করব। আমরা সবাই এক। আমাদের লক্ষ্যও একটাই, পাকিস্তানকে বিশ্বের সেরা দল বানানো।

শাহিন আফ্রিদির তরফে এমন মন্তব্য পেয়ে বেশ খুশিই ছিলেন পাকিস্তান ক্রিকেটের ভক্তরা। কিন্তু পাকিস্তানের ক্রিকেট মানেই তো নাটকীয়তা।

শাহিন আফ্রিদি জানিয়েছেন, তার সঙ্গে কোনো আলাপ না করেই এই বিবৃতি প্রকাশ করেছে পিসিবি। আর বিষয়টি ভালোভাবে নেননি শাহিন বেশ ক্ষুব্ধই হয়েছেন সদ্য বরখাস্ত হওয়া আফ্রিদি।

ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ইএসপিএনক্রিকইনফোর খবর, এ ব্যাপারে নাকি পাল্টা বিবৃতি দিতেও উদ্যত হয়েছিলেন এ বাঁহাতি পেসার। তবে জরুরি ভিত্তিতে কথা বলে তাকে থামিয়েছে পিসিবি।

যেভাবে অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে, তাতে শাহিন খুশি নন মোটেও। তাকে বিবৃতি দেওয়ার জন্য আহ্বানও জানায়নি পিসিবি। সবটাই তারা করেছে নিজ থেকেই। স্বাভাবিকভাবেই বেশ ক্ষুব্ধ তরুণ এই পেসার। এমন পরিস্থিতিতে শাহিনকে নিয়ে সোমবার পিসিবি চেয়ারম্যান মহসিন নাকভির সঙ্গে বৈঠক হওয়ার কথা আছে।

 

সোনালী/ সা