ঢাকা | এপ্রিল ১৯, ২০২৪ - ১:০১ পূর্বাহ্ন

রাজশাহীতে ভর্তি পরীক্ষার ভাড়া নিয়ন্ত্রণসহ সাত দফা দাবিতে ইয়্যাসের স্মারকলিপি

  • আপডেট: Thursday, February 29, 2024 - 12:00 am

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীতে ভর্তি পরীক্ষার সময় অযৌক্তিক ও অস্বাভাবিক অটোরিক্সা ভাড়া নিয়ন্ত্রণে অবিলম্বে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণসহ সাত দফা দাবিতে স্বারকলিপি প্রদান করেছে বরেন্দ্র অঞ্চলের উন্নয়ন গবেষণাধর্মী যুব সংগঠন ‘ইয়ুথ এ্যাকশন ফর সোস্যাল চেঞ্জ-ইয়্যাস।’

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত সংগঠনটির পক্ষ থেকে দুই সদস্যের প্রতিনিধি দল রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র, রাজশাহীর বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক, রাজশাহী মহানগর পুলিশের কমিশনার, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালকে পৃথক পৃথক স্মারকলিপি প্রদান করেন।

প্রতিনিধি দলের সদ্যরা হলেন, ‘ইয়ুথ এ্যাকশন ফর সোস্যাল চেঞ্জ-ইয়্যাস’র সভাপতি মো. শামীউল আলীম শাওন ও সাধারণ সম্পাদক মো. আতিকুর রহমান আতিক।

তাদের যৌথ স্বাক্ষরিত স্বারকলিপির দাবিগুলো হলো:
রাজশাহীতে অবিলম্বে ব্যাটারি চালিত (২ ও ৫ আসন উভয়) অটোরিক্সার চলাচলের রুট ভাগ ও ভাড়া নির্ধারণ; আসন্ন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষাসহ সকল পরীক্ষার সময় রাজশাহীতে ব্যাটারি চালিত (২ ও ৫ আসন উভয়) অটোরিক্সার চালক কর্তৃক অযৌক্তিক ভাবে অস্বাভাবিক ভাড়া আদায় বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ নিশ্চিত করা; আসন্ন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষাসহ সকল পরীক্ষার সময় রাজশাহীতে যানজট নিরসনে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ নিশ্চিত করা; যেকোন অপ্রতিকর পরিস্থিতি মোকাবেলায় সুষ্ঠুভাবে মনিটরিং করা। বিভিন্ন জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে স্ট্রাইকিং ফোর্স নিয়োগ করা এবং অপরাধীদের বিচারে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কর্তৃক ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে শাস্তি নিশ্চিত করা; পরীক্ষার্থীদের যাতায়াতের সুবিধার্থে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ও রুয়েটসহ স্ব স্ব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বাস দ্বারা বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের বিশ্ববিদ্যালয়ে আনা নেয়া করার ব্যবস্থা রাখা; পরীক্ষার্থীদের সেবায় বিশেষ ‘হটলাইন সার্ভিস’ চালুর ব্যবস্থা করা, যেখানে অভিযোগ ও পরামর্শ প্রদানে সুযোগ থাকবে; রাজশাহীর খাবার হোটেল-রেস্তোরা, আবাসিক হোটেলসহ বিভিন্ন বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে যথাযথ বা মানসম্মত সেবা না দেয়া ও অযৌক্তিকভাবে স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি টাকা আদায় রোধে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, নিরাপদ খাদ্য অধিদপ্তরসহ সংস্লিষ্ট সরকারি সংস্থাগুলোর মনিটরিং বৃদ্বির ব্যবস্থা করতে হবে এবং অসাধু ব্যবসায়ী ও অপরাধী শাস্তি নিশ্চিত করা।

সোনালী/জেআর