ঢাকা | মে ৩০, ২০২৪ - ৩:৪৪ অপরাহ্ন

জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে রওশনপন্থীরা

  • আপডেট: Friday, February 2, 2024 - 5:00 pm

অনলাইন ডেস্ক: জাতীয় পার্টির নবনিযুক্ত মহাসচিব কাজী মামুনূর রশিদ বলেছেন, পার্টিতে এখন আর জিএম কাদের ও চুন্নুর প্রয়োজন নেই। নেতাকর্মীরা প্রতারক ও বাচালদের দেখতে চায় না। তারা দলের অনেক ক্ষতি করেছেন। পার্টির ইমেজ নষ্ট করেছেন। আমরা পার্টিকে পুনরায় শক্তিশালী করছি।

শুক্রবার সকালে কাকরাইলে পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে পল্লীবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুলেল শ্রদ্ধা জানানো শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন জাপার নবনিযুক্ত মহাসচিব কাজী মামুন।

এসময় তিনি আরো বলেন, বেগম রওশন এরশাদ পার্টির চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর দলে প্রাণ ফিরে এসেছে। আমরা পল্লীমাতাকে সামনে রেখে এগিয়ে যাচ্ছি।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মহাসচিব মামুন বলেন, কাদের-চুন্নুর জন্য দলের আজ বেহাল দশা। তাদের নেতৃত্বের প্রতি পার্টির নেতাকর্মীদের আস্থা নেই। প্রয়োজনে পার্টিতে তাদের অন্য কোনো দায়িত্ব দেয়া হবে।

এরআগে দিবসের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় ও ঢাকা মহানগরের নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে পল্লীবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান নবনিযুক্ত মহাসচিব কাজী মামুনূর রশিদ। এসময় তার সঙ্গে ছিলেন জাপার নবনিযুক্ত মুখপাত্র ও পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভরায়, ঢাকা মহানগর উত্তর জাপার আহবায়ক ও প্রেসিডিয়াম সদস্য শফিকুল ইসলাম সেন্টু, মহানগর জাপার সদস্য সচিব ও পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম পাঠান, নব্বই পরবর্তী জাতীয় ছাত্র সমাজের জনপ্রিয় সভাপতি ও প্রভাবশালী ছাত্র নেতা খন্দকার মনিরুজ্জামান টিটু, দলের যুগ্ম মহাসচিব ফখরুল আহসান শাহজাদা, জাপা নেতা খোরশেদ আলম খোশু, কেন্দ্রীয় সদস্য শাহীন আরা সুলতানা রিমা, শেখ রুনা, মহানগর জাপা নেতা মাসুম আহমেদ, মুকুল আহমেদ, আবুল হাশেম, মো. আসাদ ও জাতীয় ওলামা পার্টির মাওলানা সোহরাব হোসেন প্রমুখ।

পরে পল্লীবন্ধুর প্রতিকৃতির সামনে দাঁড়িয়ে তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনায় দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। এরপর নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে কাকরাইলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে প্রবেশ করেন নবনিযুক্ত মহাসচিব কাজী মামুনূর রশিদ। কার্যালয় পরিদর্শন ও পার্টির স্টাফদের খোঁজখবর নেন তিনি। পরে কার্যলয়ে উপস্থিত নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন জাতীয় পার্টির মহাসচিব।

দেড় ঘণ্টারও বেশি সময় সেখানে অবস্থান শেষে কেন্দ্রীয় কার্যালয় ত্যাগ করেন নবনিযুক্ত মহাসচিব ও কেন্দ্রীয় শীর্ষ নেতৃবৃন্দ।

সোনালী/জেআর