ঢাকা | জুলাই ১৪, ২০২৪ - ১১:০৮ অপরাহ্ন

ভারত-বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করা প্রয়োজন

  • আপডেট: Sunday, January 21, 2024 - 7:45 pm

অনলাইন ডেস্ক: বাংলাদেশের সঙ্গে রুপিতে বাণিজ্যের যে প্রক্রিয়া শুরু করেছি, তা আরও বাড়িয়ে দুই দেশের ব্যবসায়ীদের জন্য সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করা প্রয়োজন বলে মনে করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার প্রণয় ভার্মা।

রোববার (২১ জানুয়ারি) শিল্প মন্ত্রণালয়ে শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূনের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় শিল্প মন্ত্রণালয় ও ঢাকাস্থ ভারতীয় হাইকমিশনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে উভয় পক্ষ ব্যবসা বাণিজ্য সম্প্রসারণে সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সাক্ষাৎকালে ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, ভারত মাঝারি ও ক্ষুদ্র শিল্পে সহযোগিতা করতে আগ্রহী।

এসএমইখাতকে দু’দেশের অর্থনীতির মেরুদণ্ড উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা একে অন্যের কাছ থেকে শিখতে পারি। আমরা রুপিতে বাণিজ্যের যে প্রক্রিয়া শুরু করেছি, তা আরও বাড়িয়ে দু’দেশের ব্যবসায়ীদের জন্য সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি করা দরকার।

তিনি বলেন, বর্তমানে ভারত অন্যান্য দেশ থেকে যে সকল দ্রব্য আমদানি করে, তার মধ্যে যেগুলো বাংলাদেশে পাওয়া যায়, সেগুলো আমরা বাংলাদেশ থেকে আমদানি করতে আগ্রহী।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, আমরা টেকনোলজিখাতে এবং সিমেন্ট উৎপাদনের কাঁচামাল সরবরাহের জন্য ভারতের সহযোগিতা নিতে পারি।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের বিএসটিআই এবং বাংলাদেশ অ্যাক্রিডিটেশন বোর্ডে (বিএবি) সঙ্গে ভারতের সমজাতীয় প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতার ক্ষেত্র বৃদ্ধি করা দরকার।

সাক্ষাৎ শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এক প্রশ্নের জবাবে শিল্পমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে দেশের সার কারখানাগুলোতে সার উৎপাদিত হচ্ছে এবং আমদানিকৃত সারের পর্যাপ্ত মজুদ রয়েছে। আশা করি, আগামী মৌসুমে সারের কোনো সংকট হবে না।

সোনালী/জেআর