ঢাকা | জুলাই ১৮, ২০২৪ - ১:৫৯ অপরাহ্ন

আরও চার বিভাগে আ’লীগের ১০০ প্রার্থী চূড়ান্ত

  • আপডেট: Friday, November 24, 2023 - 9:35 pm

অনলাইন ডেস্ক: আগামী নির্বাচনের জন্য আরও চারটি বিভাগে আওয়ামী লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়েছে। শুক্রবার দলের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের দ্বিতীয় দিনের বৈঠকে খুলনা, বরিশাল, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের ১০০টি আসনে দলীয় প্রার্থীদের মনোনয়ন দেওয়া হয়। এদিনও বর্তমান এমপিদের কয়েকজন মনোনয়নবঞ্চিত হন। তাদের জায়গায় নতুন প্রার্থী দেওয়া হয়েছে।

এ নিয়ে দু’দিনে ছয় বিভাগের ১৭২টি আসনে দলীয় প্রার্থী ঠিক করল ক্ষমতাসীন দলটি। আগের দিন বৃহস্পতিবার চূড়ান্ত হয়েছিল রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের ৭২টি আসনের প্রার্থী। তবে প্রথমদিনের মতো আজও দল মনোনীত প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করা হয়নি। এমনকি ‘কৌশলগত কারণে’ এদিন কোন কোন বিভাগের প্রার্থী চূড়ান্ত হয়েছে– সেটাও জানানো হয়নি। বলা হয়েছে, ৩০০ আসনের প্রার্থী চূড়ান্ত করার পর রোববার আনুষ্ঠানিকভাবে দলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হবে।

অবশ্য দলীয় বিভিন্ন সূত্রে খুলনা, বরিশাল, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের ১০০টি আসনে দলীয় প্রার্থী মনোনয়নের কথা নিশ্চিত হওয়া গেছে। এই দুই বিভাগের অনেক প্রার্থীও তাদের মনোনয়ন নিশ্চিত হওয়ার তথ্য জানিয়েছেন। বিভিন্ন এলাকায় এমন অনেক প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকরা মিষ্টি বিতরণ করেছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে অভিনন্দনের বন্যা বয়ে গেছে।

শুক্রবার টানা দ্বিতীয় দিনের মতো বৈঠকে বসে আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ড। এদিন দু’দফা বৈঠক হয়। সকাল ১০টায় শুরু হয়ে তিন ঘণ্টারও বেশি চলা প্রথম বৈঠকে খুলনা ও বরিশাল বিভাগের ৫৭টি এবং সন্ধ্যা থেকে আরেক দফা বৈঠকে বসে ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের ৪৩টি আসনে দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও দলের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভাপতি শেখ হাসিনা।

শনিবার সকাল ১০টা থেকে সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের তৃতীয় দিনের বৈঠক বসবে। যেখানে ঢাকা ও চট্টগ্রামের দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করার কথা রয়েছে। এই দুই বিভাগের আসন সংখ্যা ১২৮টি।

প্রথম দফার বৈঠক শেষে বিকেলে দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, এ পর্যন্ত চারটি বিভাগে দলীয় প্রার্থী মনোনয়ন চূড়ান্ত হয়েছে। তবে কৌশলগত কারণে আজ কোন কোন বিভাগের মনোনয়ন চূড়ান্ত হয়েছে তা আর প্রকাশ করা হচ্ছে না। একসঙ্গে ৩০০ আসনের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হবে। শনিবার সম্ভব না হলে রোববার এই তালিকা প্রকাশ করা হবে।

তিনি বলেন, আমরা যখন বিভাগের নাম ঘোষণা করি, তখন ভিড় বেড়ে যায়। নির্দিষ্ট বিভাগ শুনলে পীড়াপীড়ি শুরু হয়ে যায়, কীভাবে নাম বের করা যায়। সে কারণে বিভাগের নাম ঘোষণা করছি না। আমরা দলীয় মনোনয়নের ব্যাপারটাও সুনির্দিষ্ট করে এখনই বলছি না। কারণ এর মধ্যে আমরা যেসব প্রার্থী দিয়েছি, সেসব মনোনয়নে ভুলত্রুটিও থাকতে পারে। সেটাও সংশোধনের একটা সুযোগ রেখেছি। এ কারণে আমরা ঠিক করেছি– ভিন্নভাবে জেলাওয়ারি বা বিভাগওয়ারি প্রার্থিতা ঘোষণা করব না। একসঙ্গে ৩০০ আসনের প্রার্থিতা ঘোষণা করতে চাই।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, আজকের সভায়ও কিছু পুরোনো এমপি বাদ গেছেন, নতুনও মনোনয়ন পেয়েছেন। সম্ভাব্য জয়ী প্রার্থী আমরা বাদ দেইনি। দলীয় মনোনয়নের ক্ষেত্রে বর্তমান এমপিদের বাদ পড়ার কারণ সম্পর্কে তিনি বলেন, যারা সম্ভাব্য জয়ী কিংবা জয়ের সম্ভাবনা নেই এবং জনগণের কাছে গ্রহণযোগ্যতা হারিয়ে ফেলেছেন, তারাই বাদ পড়ছেন। নারী-পুরুষ সব প্রার্থীর মনোনয়নের ক্ষেত্রেই এটা প্রযোজ্য।

আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ, কাজী জাফরউল্লাহ, রমেশ চন্দ্র সেন, ওবায়দুল কাদের, রশিদুল আলম এবং ডা. দীপু মনি। দাপ্তরিক কাজের প্রয়োজনে দলের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া এবং উপদপ্তর সম্পাদক সায়েম খান বৈঠকে যোগ দেন।

সোনালী/জেআর