ঢাকা | জুলাই ১৭, ২০২৪ - ৮:২৫ অপরাহ্ন

অস্ত্র হাতে নয়, সরকার গঠন হবে ভোটে: শেখ হাসিনা

  • আপডেট: Friday, November 17, 2023 - 5:22 pm

অনলাইন ডেস্ক: আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘অস্ত্র হাতে নয়, রাতের অন্ধকারে নয়, বাংলাদেশে সরকার গঠন হবে ভোটের মধ্য দিয়ে। নির্বাচন জনগণের অধিকার। যাকে ভোট দিয়ে জনগণ নির্বাচিত করবে, তারা দেশ চালাবে।’

আজ শুক্রবার বিকালে রাজধানীর তেজগাঁওয়ে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘বিএনপির আমলে দেশের মানুষ ভোট দিতে পারেনি। আমরা (আওয়ামী লীগ সরকার) মানুষের ভেতরে একটা আস্থা, বিশ্বাস অর্জন করতে পেরেছি। একটা দল দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থেকে মানুষের আস্থা অর্জন করা কিন্তু বেশ কঠিন।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচন করতে দেবে না বলে বিএনপি আগেও আগুন দিয়েছে, এখনো দিচ্ছে। আগুন নিয়ে খেলছে। আগুন নিয়ে খেলা দেশের মানুষ মেনে নেবে না। দেশের মানুষ নির্বাচন বানচাল করতে দেবে না। নির্বাচন বানচালের নামে যারা অগ্নিসন্ত্রাস করছে তাদের ক্ষমা নেই।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা সরকারে আসার পর থেকে একের পর এক নির্বাচন হয়েছে। এখানে নানা ধরনের অনিয়ম দেখেছি। যখনই আমরা সুযোগ পেয়েছি সেগুলো সংশোধন করে জনগণের ভোটের অধিকার যাতে নিশ্চিত হয়, তার ব্যবস্থা করেছি। নির্বাচন কমিশন গঠনের জন্য একটি আইন পর্যন্ত করে দিলাম।

আইনের মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন গঠন হবে। আমার ভোট আমি দেব, যাকে খুশি তাকে দেব এই স্লোগান দিয়ে আমরা মানুষকে তাদের ভোটের অধিকার সম্পর্কে সচেতন করি। এবং ভোট ও ভাতের অধিকার আদায়ের সংগ্রাম করি।’

‘নির্বাচন বানচালের নামে যারা অগ্নিসন্ত্রাস করছে তাদের ক্ষমা নেই’, মন্তব্য করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘দেশের মানুষ তাদের ক্ষমা করবে না।

বিএনপি-জামায়াত নির্বাচন চায় না। তারা নির্বাচন করতে দেবে না বলে আগেও আগুন দিয়েছে, এখনো দিচ্ছে। আগুন সন্ত্রাস ও আগুন নিয়ে খেলা দেশের মানুষ মেনে নেবে না।’

বঙ্গবন্ধুকন্যা বলেন, ‘দেশে অনেকেই ক্ষমতায় ছিল। কিন্তু দেশের মানুষের জন্য কিছুই করেনি। আওয়ামী লীগ বাদে যারা ক্ষমতায় ছিল তারা শ্রমিকদের জন্য কী করেছে? যা করেছে আওয়ামী লীগ সরকার করেছে। আওয়ামী লীগের হাত ধরেই দেশের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন হয়েছে।’

এর আগে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে পৌঁছালে দলীয় সভানেত্রীকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বেনজির আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক পনিরুজ্জামান তরুণ।

এসময় প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রায় সব সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

সোনালী/জেআর