ঢাকা | ফেব্রুয়ারী ২১, ২০২৪ - ১:৪৯ অপরাহ্ন

কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হকের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

  • আপডেট: Wednesday, November 15, 2023 - 7:49 pm

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক: উপমহাদেশের প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) দর্শন বিভাগের প্রাক্তন অধ্যাপক হাসান আজিজুল হকের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে।

বুধবার সকাল সাড়ে ১০ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে তার সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন দর্শন বিভাগসহ কয়েকটি সাংস্কৃতিক সংগঠন। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহিদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনে একটি স্মরণসভার আয়োজন করে দর্শন বিভাগ।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ২০২১ সালের ১৫ নভেম্বর উপমহাদেশের প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক ৮২ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন। বাংলা সাহিত্যে বিশেষ অবদানের জন্য বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার, একুশে পদক ও স্বাধীনতা পুরস্কার পেয়েছিলেন তিনি।

বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনার পাশাপাশি তিনি গল্প, উপন্যাস ও প্রবন্ধ লিখে গেছেন। তার রচিত জনপ্রিয় গল্পগ্রন্থের মধ্যে রয়েছে ‘সমুদ্রের স্বপ্ন শীতের অরণ্য’, ‘আত্মজা ও একটি করবী গাছ’, ‘জীবন ঘষে আগুন’, ‘নামহীন গোত্রহীন’, ‘পাতালে হাসপাতালে’, ‘আমরা অপেক্ষা করছি’ ইত্যাদি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক মলয় কুমার ভৌমিক বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন নিজ নিজ বিভাগে আয়োজনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। তারপরও প্রশাসনের উচিত ছিল এই কথাসাহিত্যিকের জন্য আলাদা কোন আয়োজন করা। প্রশাসন হাসান আজিজুল হকের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ না করে থাকলে, কাজটি ঠিক করেনি।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপ-উপাচার্য এবং ভূতত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. চৌধুরী সরওয়ার জাহান বলেন, ‘হাসান আজিজুল হক আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের গর্ব। তিনি একজন জাতীয় ব্যক্তিত্ব। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের উচিত ছিল উনার মৃত্যুবার্ষিকী পালন করা। কিন্তু তারা যে কেন কিছুই করলো না, এ বিষয় আমার বোধগম্য নয়!’

বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক নিলুফার আহমেদ বলেন, ‘আমাদের বিভাগের উদ্যোগেই হাসান আজিজুল হকের মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সামনের বছর থেকে আমাদের বিভাগকে সহযোগিতা করবেন বলে আমাদেরকে জানিয়েছেন।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান উল ইসলাম বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় গুণী ব্যক্তিদের মৃত্যবার্ষিকীসহ অন্যান্য আয়োজন নিজ নিজ বিভাগের উদ্যোগে পালন করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। হাসান আজিজুল হকের ক্ষেত্রেও তাই করা হয়েছে। আমরা প্রশাসন থেকে দর্শন বিভাগকে সহযোগিতা করেছি।

সোনালী/জেআর