ঢাকা | জুলাই ২৪, ২০২৪ - ৫:৫৬ অপরাহ্ন

নিয়ামতপুরে এসএসসির ফরম পূরণে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগ

  • আপডেট: Wednesday, November 8, 2023 - 6:19 pm

নিয়ামতপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার বাসুদেবপুর দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০২৪ সালে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ফরম পূরণে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ উঠেছে।

অতিরিক্ত ফি ছাড়া বোর্ড নির্ধারিত ফি নিয়ে ফরম পূরণে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে মঙ্গলবার লিখিত অভিযোগ করেছেন শিক্ষার্থীদের অভিভাবকেরা।

৯ জন অভিভাবকের স্বাক্ষর করা ওই লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, এবার এসএসসি পরীক্ষার জন্য মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের ফরম পূরণের জন্য ১ হাজার ৯৬০ টাকা নির্ধারণ করেছে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড। এছাড়া বিজ্ঞান বিভাগের জন্য নির্ধারিত ফি ২ হাজার ৫০ টাকা। কিন্তু বাসুদেবপুর উচ্চবিদ্যালয়ে মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থী প্রতি ২ হাজার ৩০০ টাকা এবং বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী প্রতি ২ হাজার ৪০০ টাকা করে আদায় করা হচ্ছে। লিখিত অভিযোগকারী ছালাউদ্দিন, আল মামুন ও সন্তোষ বর্মণ বলেন, এই এলাকার বেশিরভাগ মানুষই দরিদ্র কৃষক ও কৃষি শ্রমিক।

ফরম পূরণে ৪০০ টাকা করে বেশি নেয়া হচ্ছে। বোর্ড ফি ছাড়া অতিরিক্ত যে টাকা নেয়া হচ্ছে এটা না নেয়ার জন্য তাদের মতো অনেকেই প্রধান শিক্ষককে অনুরোধ করলেও তা কমানো হয়নি। বাধ্য হয়ে নির্ধারিত ফি নিয়ে ফরম পূরণে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আবেদন জানিয়ে প্রধান শিক্ষককের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘ফরম পূরণে টাকা বেশি না দিলে নির্বাচনী পরীক্ষায় ফেল করে দেবেন বলে স্যারেরা হুমকি দিয়েছেন। আমাদের আগে যারা এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছেন তাদের কাছ থেকেও এভাবে জিম্মি করে অতিরিক্ত টাকা নিয়েছিলেন।’

অভিযোগের বিষয়ে বাসুদেবপুর দ্বিমুখী উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক বিধান কুমার ফরম পূরণে অতিরিক্ত টাকা নেয়ার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, ‘উপজেলার অন্যান্য স্কুলেও বোর্ড নির্ধারিত ফির চেয়ে ফরম পূরণে বেশি টাকা নেয়া হচ্ছে। অন্যদের দেখাদেখি ম্যানেজিং কমিটির মিটিং করে ফরম পূরণ বাবদ কিছু শিক্ষার্থীদের কাছে অতিরিক্ত টাকা নেয়া হয়েছে। তবে যারা অতিরিক্ত টাকা দিতে পারবে না বলে আবেদন করেছে তাদের কাছ থেকে বেশি টাকা নেয়া হয়নি। বিষয়টি নিয়ে অভিযোগ উঠায় যাদের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা নেয়া হয়েছে তাদের টাকাও ফেরত দেয়া হবে।’

এ বিষয়ে নিয়ামপুরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইমতিয়াজ মোরশেদ বলেন, ‘অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করা হবে। তদন্তে ফরম পূরণে অতিরিক্ত টাকা নেয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হলে বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

সোনালী/জেআর