ঢাকা | জুলাই ১৮, ২০২৪ - ১:৪৮ পূর্বাহ্ন

দেশে নৈরাজ্য-সন্ত্রাস সৃষ্টি করতে দেয়া হবে না: বাদশা

  • আপডেট: Monday, November 6, 2023 - 9:00 pm

গণসংযোগ ও পথসভা 

স্টাফ রিপোর্টার: জনগণের স্বার্থে ও তাদের দৈনন্দিন জীবিকা স্বাভাবিক রাখতে দেশে কোনভাবেই নৈরাজ্য ও সন্ত্রাস কায়েম করতে দেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও রাজশাহী-২ আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা।

তিনি বলেছেন, “বিএনপি-জামায়াত যদি কর্মসূচির নামে চলমান স্থিতিশীল পরিবেশকে অস্থিতিশীল করার অপচেষ্টা চালায়; তবে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি ঐক্যবদ্ধ হয়ে তাদের শক্ত হাতে প্রতিহত করবে।”

গতকাল সোমবার বিকালে শহরের গণকপাড়া এলাকায় আয়োজিত পথসভা থেকে তিনি এসব কথা বলেন।

পথসভা শেষ করে শহরের গণকপাড়া, সাহেব বাজার জিরোপয়েন্ট, আরডিএ মার্কেট, বড় মসজিত চত্বর এলাকায় গণসংযোগ করেন এমপি ফজলে হোসেন বাদশা। এসময় তিনি সাধারণ মানুষের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন এবং যেকোন পরিস্থিতিতে ওয়ার্কার্স পার্টি তাদের পাশে থাকবে বলে আশ্বস্ত করেন।

পথসভায় ১৪ দলের কেন্দ্রীয় নেতা ফজলে হোসেন বাদশা এমপি বলেন, “বাংলাদেশে যখনই নির্বাচনের সময় ঘনিয়ে আসে, জনগণের ভোটাধিকার প্রয়োগের সময় সামনে এসে দাঁড়ায়; তখনই একটি রাজনৈতিক চক্র গণতান্ত্রিকভাবে সরকার নির্বাচিত করার পথ থেকে সরে আসে। তারা গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে ব্যহত করে হরতাল-অবরোধের মতো সন্ত্রাসী কর্মসূচিকে বেছে নেয়। আমরা এসবকে অগণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে সমর্থন করি না, বিশ্বাসও করি না।”

জাতীয় এই রাজনীতিক আরও বলেন, “আমরা স্পষ্টভাবে দেখতে পাচ্ছি; আমেরিকা বাংলাদেশের নির্বাচনের ব্যাপারে সরাসরি হস্তক্ষেপ করছে। আমাদের দেশের কিছু নেতারা বিদেশি দূতাবাসে গিয়ে শলা-পরামর্শ করে নিজেদের ভাগ্য নির্ধারণের পথ বেছে নিয়েছেন। যে সকল বিদেশি দূতাবাস আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতা করেছিল; যেসব দূতাবাস মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে আমাদের সঙ্গে ছিল না; তাদের সঙ্গে এদেশের মুক্তিযুদ্ধবিরোধী শক্তির রাজনৈতিক নেতাদের সক্রিয়তা বাড়ছে। এসব হচ্ছে দেশের সঙ্গে বেইমানি। বেইমানি রাজনীতির সঙ্গে আমরা থাকতে পারি না।”

বাদশা বলেন, “কথা স্পষ্ট- মুক্তিযুদ্ধ করে আমরা এই বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করেছি। সুতরাং যেসব রাষ্ট্র আমাদের মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতা করেছিল; তাদের সঙ্গে আমাদের কোনো সম্পর্ক থাকতে পারে না।”

এদেশের জনগণ যাদের চাইবে তারাই রাষ্ট্র ক্ষমতায় যাবে মন্তব্য রাকসুর সাবেক এই ভিপি বলেন, “বাংলাদেশে আগামী যে নির্বাচন হবে; তা এদেশের জনগণের সমর্থনেই হবে। বিদেশি কোন দূতাবাসের শলা-পরামর্শে বাংলাদেশের ভাগ্য পরিবর্তন হবে না। সুতরাং অবৈধ পথে ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য জোরজবস্তি করে কোন অবরোধ কর্মসূচি করা যাবে না। জোরজবস্তি করে সন্ত্রাসের মাধ্যমে জনগণের জীবনযাত্রাকেও ব্যাহত করা যাবে না। জনগণ নিজ গতিতে তার জীবনযাত্রা চালিয়ে যাবে। যারাই এটিকে বাধাগ্রস্থ করার অপচেষ্টা করবে; ওয়ার্কার্স পার্টিসহ মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে শক্তি জনগণকে সঙ্গে নিয়ে তাদের প্রতিহত করবে।”

পথসভায় উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রফিকুল ইসলাম পিয়ারুল, মহানগরের সাধারণ সম্পাদক দেবাশিষ প্রামানিক দেবু, জেলার সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল হক তোতা, মহানগর সম্পাদকম-লির সদস্য সাদরুল ইসলাম, সিরাজুর রহমান খান, আইনজীবী আবু সাঈদ, আব্দুল মতিন, বিশিষ্ট সমাজসেবক মোরশেদ হাসান চুন্না, সেলিম মনোয়ার, নূরুল হক, সালাউদ্দীন জেমস, একে মাসুদ, শিক্ষক প্রতিনিধি আমজাদ হোসেন, আব্দুল গফুর, মহানগর সম্পাদকম-লির সদস্য মনির উদ্দীন পান্না, নাজমুল করিম অপু, মহানগর যুবমৈত্রীর সভাপতি ও ৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি, মহানগর সদস্য সীতানাথ বণিক, আব্দুল খালেক বকুল, মাসুম আক্তার অনিক, সাঈদ চৌধুরী, ছাত্রমৈত্রীর সভাপতি ওহিদুর রহমান প্রমুখ।

সোনালী/জগদীশ রবিদাস