ঢাকা | জুলাই ১৪, ২০২৪ - ১০:১৪ অপরাহ্ন

বালুদস্যুদের হাত থেকে কি পদ্মা রেহাই পাবে?

  • আপডেট: Thursday, November 2, 2023 - 3:22 am

সম্পাদকীয় 

বালু উত্তোলন নদীর জলকাঠামো ও জীববৈচিত্র্যের জন্য সার্বিকভাবে ক্ষতিকর তো বটেই; পদ্মার প্রবাহপথে মুন্সীগঞ্জের লৌহজং ও মাদারীপুরের শিবচর এলাকায় বালু উত্তোলনের বিপদ আরও ব্যাপক।

কারণ এই অঞ্চলেই অবস্থিত বাংলাদেশের অবকাঠামোগত গৌরব পদ্মা সেতু। আমরা জানি, ২০১০ সালের ‘বালু উত্তোলন ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন’ অনুযায়ী সেতু, জলকপাট, বাঁধ, মহাসড়ক, আবাসনসহ গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামোর এক কিলোমিটারের মধ্যে বালু উত্তোলন নিষিদ্ধ। কিন্তু সোমবার সমকালে প্রকাশিত প্রতিবেদনে দেখা যাইতেছে, পদ্মা সেতুর অর্ধকিলোমিটারের মধ্যেই একাধিক স্থানে বসিয়াছে ‘ড্রেজার’।

দেশের বিভিন্ন ক্ষুদ্র ও মাঝারি সেতু একইভাবে ঝুঁকিপূর্ণ করিয়া তুলিতে তুলিতে বালু মাফিয়াদের দুঃসাহস সম্ভবত বৃদ্ধি পাইয়াছে। জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাটিও তাহাদের লোভ ও মুনাফার নিকট গুরুত্ব পাইতেছে না!

পদ্মায় নির্বিচার বালু উত্তোলনের ফলে ইহার প্রবাহপথ মাওয়া হইতে জাজিরা প্রান্তে চলিয়া যাইবার আর্থসামাজিক ক্ষতিও কম নহে। আমরা দেখিতেছি, উহার ফলে এক দশক ধরিয়া পদ্মার দুই তীরেই প্রবল ভাঙনে অনেক পরিবার নিমেষেই নিঃস্ব হইয়া যাইতেছে।

আর পদ্মা সেতুর নদী শাসন প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী স্পষ্টত স্বীকার করিয়াছেন, ভাঙনের প্রধান কারণ ‘অতিরিক্ত’ বালু উত্তোলন। আমরা মনে করি, এই ক্ষতি কেবল ব্যক্তিবিশেষের হইতে পারে না।

ভাঙনে নিঃস্ব পরিবার যেইরূপ দেশের দারিদ্র্যসূচক ঊর্ধ্বমুখী করিতেছে, সেইরূপ কৃষিজমির ভাঙনও খাদ্যনিরাপত্তা সূচক নিম্নমুখী করিবে। কিন্তু মূল প্রশ্নটি আরও বড়। ব্যক্তি ও গোষ্ঠীবিশেষের পকেট ভারী করিবার জন্য আমরা গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনার ঝুঁকি ও বিপুল জনগোষ্ঠীর আর্থসামাজিক ক্ষতি মানিয়া লইব?

আমরা জানি, বালু মাফিয়ার খুঁটির জোর অনেক গভীরে কিংবা উঁচুতে। রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক প্রভাবশালীদের সরাসরি বা তাদের ছত্রছায়াতেই চলে এই সর্বনাশা কর্মকাণ্ড। যেই কারণে পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্যের ক্ষতি, নদীভাঙন ও ভূমিধস, কৃষিজমির উর্বরাশক্তি হ্রাস এবং উচ্চ আদালতের একাধিক দফা নির্দেশনা সত্ত্বেও নির্বিচার বালু উত্তোলন বন্ধ হয় নাই।

খোদ জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের সদ্য বিদায়ী চেয়ারম্যানও এই ক্ষেত্রে নিজের অসহায়ত্ব প্রকাশ করিতে গিয়া শেষ পর্যন্ত দায়িত্বই হারাইয়াছেন। কিন্তু জাতীয় স্বার্থেই বালু মাফিয়াদের রুখিবার বিকল্প নাই। সেই জরুরি কাজটি অন্তত পদ্মা সেতুর সুরক্ষার স্বার্থেও পদ্মা নদী হইতে সূচিত হইলে মন্দ হইবে না।