ঢাকা | জুলাই ২১, ২০২৪ - ১২:১৭ অপরাহ্ন

‘প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষায় এখনো পিছিয়ে অনগ্রসর জাতিগোষ্ঠীরা’

  • আপডেট: Wednesday, October 25, 2023 - 9:45 pm

মানবাধিকার কমিশনের থিমেটিক কমিটির সভায় বক্তারা

অনলাইন ডেস্ক: দেশের অনগ্রসর জাতিগোষ্ঠীরা প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা গ্রহণ ও কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে এখনো অনেক পিছিয়ে আছে বলে জানিয়েছেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের নেতৃবৃন্দ।

তারা বলেছেন, কোনো জাতিগোষ্ঠীকেই তাদের অধিকার থেকে তিল পরিমাণ বঞ্চিত করার সুযোগ নেই। দেশের সামগ্রিক বৈষম্য নিরসনে সবাইকে সমন্বিত প্রচেষ্টা চালানোর উদ্যোগ নিতে হবে। এর জন্য স্ব-স্ব জায়গা থেকে নিষ্ঠার সাথে কাজ করা প্রত্যেকের নৈতিক দায়িত্ব।

বুধবার সকালে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সভাকক্ষে আয়োজিত ‘জাতিগত ও ধর্মীয় সংখ্যালঘু এবং অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর অধিকার সুরক্ষা সংক্রান্ত কমিটি’ এবং ‘দলিত, হিজরা ও অন্যান্য অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর অধিকার সুরক্ষা’ সংক্রান্ত থিমেটিক কমিটির যৌথ সভায় তারা এসব কথা বলেন।

সভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ও থিমেটিক কমিটির সভাপতি ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ। আলোচক ও অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আদিবাসী ও সংখ্যালঘু বিষয়ক সংসদীয় ককাসের আহ্বায়ক ফজলে হোসেন বাদশা এমপি।

সভায় বক্তারা বিভিন্ন বিষয়ের ওপর আলোকপাত করে বলেন, অনগ্রসর জাতিগোষ্ঠীদের জন্য সমন্বিত ও শক্তিশালী ডাটাবেজ এবং পরিসংখ্যান খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ডাটাবেজের নিয়মিত হালনাগাদ নিশ্চিত করতে হবে। বৈষম্য নিরসনের জন্য এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ।

এছাড়াও সভায় জাতিগত ও ধর্মীয় সংখ্যালঘু এবং অন্যান্য অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর মানবাধিকার পরিস্থিতি, দক্ষতা উন্নয়নে ট্র্যান্সজেন্ডার ব্যক্তিদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাকরণ, সংশ্লিষ্ট জেলা পরিদর্শন ও সভা সেমিনার আয়োজন সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। এর পাশাপাশি সভায় ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের অধিকার নিশ্চিতের বিষয়টি বিশেষভাবে গুরুত্ব পায়।

একইসঙ্গে নির্বাচনকালীন সময়ে সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা ও অধিকার নিশ্চিতকরণে মানবাধিকার কমিশনের সামগ্রিক কর্মকাণ্ড উপস্থাপন করা হয়। পাশাপাশি বিস্তৃত পরিসরে দলিত, হরিজন, তেলেগু, ডোমসহ অন্যান্য অনগ্রসর জাতিগোষ্ঠীর জীবনযাপনের বর্তমান প্রেক্ষাপট নিয়েও সভায় আলোচনা করা হয়।

মানবাধিকার কমিশনের থিমেটিক কমিটির সভায় কমিশনের সার্বক্ষণিক সদস্য সেলিম রেজা, সম্মানিত অবৈতনিক সদস্যগণ এবং আমন্ত্রিত অতিথিসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সোনালী/জগদীশ রবিদাস