ঢাকা | জুলাই ১৯, ২০২৪ - ১:৩৩ পূর্বাহ্ন

বগুড়ায় আসামিদের সঙ্গে যোগসাজশের অভিযোগ, তদন্ত কর্মকর্তা বদলি

  • আপডেট: Thursday, October 19, 2023 - 10:19 pm

অনলাইন ডেস্ক: হত্যা মামলার আসামির সঙ্গে যোগসাজশের অভিযোগ করার পর বগুড়ার শিবগঞ্জ থানার মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপপরিদর্শক (এসআই) রিপন মিঞাকে বদলি করা হয়েছে।

গত বুধবার রাতে তাঁকে জেলার শাজাহানপুর থানায় বদলি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার শিবগঞ্জ থানার ওসি আব্দুর রউফ বদলির তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

শিবগঞ্জ উপজেলার চকপাড়া গ্রামের শহিদুল ইসলাম (৫৩) নামে এক গরু ব্যবসায়ী হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ছিলেন এসআই রিপন।

গত ৩১ আগস্ট সকালে শহিদুলের বাড়ি থেকে কিছু দূরে মাঝপাড়া গ্রামের একটি কলাবাগানে শহিদুলের লাশ পাওয়া যায়। এ ঘটনায় শহিদুলের বোন তাছলিমা শিবগঞ্জ থানায় মামলা করেন।

স্থানীয়রা জানান, শহিদুলের প্রথম স্ত্রী মারা যাওয়ার পর দুই বছর আগে পাশের মাঝপাড়া গ্রমের মোত্তালেবের মেয়ে নিপা আক্তারকে বিয়ে করেন। বিয়ের কয়েক মাস পর শ্বশুর মোত্তালেব একটি জমি বিক্রি করতে চাইলে শহিদুল তা কেনার জন্য টাকাও পরিশোধ করেন।

কিন্তু তাঁর শ্বশুর জমির দলিল বুঝিয়ে না দিয়ে টালবাহানা শুরু করেন। এ নিয়ে শহিদুলের সঙ্গে তাদের দ্বন্দ্ব চলে আসছিল। এর জের ধরে শহিদুলকে হত্যা করা হতে পারে।

মামলার বাদীর অভিযোগ এই মামলায় আসামিদের সঙ্গে এসআই রিপনের যোগাযোগ ছিল।

এ কারণে হত্যার সঙ্গে জড়িত কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। বিষয়টি পুলিশ সুপারকে জানালে পুলিশ সুপার তাঁকে বদলি করেন বলে জানা গেছে।

তবে রিপন মিঞা এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, মামলা তদন্তের কাজ শেষ হয়নি, অথচ বাদী অহেতুক সন্দেহ পোষণ করে আসছিলেন। তিনি আরও বলেন, তাঁকে বদলি করা হয়েছে কিনা তা জানেন না।

শিবগঞ্জ থানার ওসি আব্দুর রউফ বলেন, বুধবার রাতে এসআই রিপনকে মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র থেকে শাজাহানপুর থানায় বদলি করা হয়েছে। কী কারণে তাঁকে বদলি করা হয়েছে তা নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না তিনি।

পুলিশ সুপার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী বলেন, এসআই রিপন দীর্ঘদিন থেকে একই জায়গায় কর্মরত ছিলেন বলে রুটিন মাফিক বদলি করা হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকলেও সে কারণে বদলি করা হয়নি বলে জানান তিনি।

সোনালী/জেআর