ঢাকা | জুলাই ২৩, ২০২৪ - ৫:২৬ পূর্বাহ্ন

আমেরিকায় মুসলিমবিদ্বেষ: ৬ বছরের শিশুকে কুপিয়ে হত্যা

  • আপডেট: Tuesday, October 17, 2023 - 9:30 am

অনলাইন ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় অঙ্গরাজ্যে ছয় বছর বয়সী ফিলিস্তিনি মুসলিম শিশু ওয়াদেয়া আল-ফাইয়োমেকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় তার মা হান্নান শাহিন আহত হয়েছেন।

গত শনিবার শিকাগো থেকে প্রায় ৪০ মাইল দক্ষিণ-পশ্চিমের প্লেনফিল্ড শহরে এ হামলার ঘটনা ঘটে। সামরিক বাহিনীর সদস্যরা ব্যবহার করেন, এমন ধরনের একটি ছুরি দিয়ে শিশুটিকে ২৬ বার আঘাত করা হয়েছে।

অধিকারকর্মীরা একে ‘বিদ্বেষমূলক হামলা’ অভিহিত করেছেন। এ ঘটনায় সন্দেহভাজন হিসেবে ইলিনয়ের ৭১ বছর বয়সী এক বাসিন্দাকে আটক করা হয়েছে। ছয় বছর বয়সী ওয়াদেয়া কয়েক সপ্তাহ আগে তার শেষ জন্মদিন পালন করেছে।

৯/১১-এ সন্ত্রাসী হামলার পর যুক্তরাষ্ট্রে মুসলমানদের ভয়ানক এক অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হতে হয়। সারাদেশেই তাদের প্রতি বিদ্বেষমূলক ঘটনা বেড়ে যায় সে সময়। বিভিন্ন স্থানে তারা আক্রমণেরও শিকার হয়। দেশটির কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআইর হিসাবে, ওই বছর মুসলিম ও আরবদের প্রতি ঘৃণা বা বিদ্বেষজনিত অপরাধ বেড়ে যায় ১৭০০ শতাংশ; যার কিছু প্রভাব আজও রয়ে গেছে।

শনিবারের ঘটনা নিয়ে পুলিশ বলছে, ওয়াদেয়া ও তার মা মুসলিম হওয়ায় এবং হামাস ও ইসরায়েলিদের সঙ্গে চলমান সংঘাতের কারণে তাদের ওপর ওই ব্যক্তি নৃশংস হামলা চালায় বলে গোয়েন্দারা নিশ্চিত হয়েছেন।

মুসলিমদের অধিকারের পক্ষে সোচ্চার থাকা কর্মীরা বলছেন, ফিলিস্তিন-ইসরায়েল চলমান সংঘাতের জেরে ওই শিশু ও তার মায়ের ওপর ‘বিদ্বেষমূলক হামলা’ চালানো হয়েছে।

উইল কাউন্টি শেরিফের কার্যালয় থেকে বলা হয়েছে, ৭১ বছর বয়সী সন্দেহভাজন জোসেফ সুবার বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ করা হয়েছে। এ ছাড়া তার বিরুদ্ধে বিদ্বেষমূলক অপরাধ সংঘটন এবং প্রাণঘাতী অস্ত্র ব্যবহার করে ক্ষতিসাধন চেষ্টার অভিযোগও আনা হয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, নিহত শিশুটি ফিলিস্তিনের একটি মুসলিম পরিবারের সদস্য। শান্তিতে বসবাস, জ্ঞান অর্জন এবং প্রার্থনা করতে পারার আশা নিয়ে পরিবারটি যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয় নিয়েছিল। যুক্তরাষ্ট্রে এমন ভয়ংকর বিদ্বেষমূলক কর্মকাণ্ডের কোনো জায়গা নেই বলেন তিনি।

এদিকে মার্কিন সংবাদমাধ্যম এমএসএনবিসি গত সপ্তাহে ইসরায়েলের অভ্যন্তরে হামাসের হামলার পর তিন মুসলিম উপস্থাপকের অনুষ্ঠান স্থগিত করেছে। এই সিদ্ধান্তের সঙ্গে সরাসরি জড়িত দুটি সূত্রের বরাতে এ খবর জানিয়েছে আরব নিউজ। এর আগে সেমাফোর নিউজ জানিয়েছিল, মেহেদি হাসান, আয়মান মহিদ্দিন ও আলি ভেলশিকে ইসরায়েলে হামাসের আক্রমণের পর নীরবে উপস্থাপকের চেয়ার থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়।

সেমাফোরের মতে, বামপন্থি নিউজ নেটওয়ার্ক এমএসএনবিসি ‘দ্য মেহেদি হাসান শো’র গত বৃহস্পতিবার রাতের পর্বটি সম্প্রচার করেনি এবং বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার জয় রিডের শো পরিচালনা করার জন্য উপস্থাপক হিসেবে মহিদ্দিনের নাম বাদ দিয়েছে।

সূত্র বলেছে, পরে কী হবে তা নিয়ে অনেক অস্পষ্টতা থাকলেও বর্তমান অবস্থা ৯/১১-এর পরে যা ঘটেছিল তার সঙ্গে সম্পূর্ণ মিল রয়েছে; ‘হয় আপনি আমাদের সঙ্গে অথবা আমাদের বিপক্ষে’। দুঃখজনকভাবে বিষয়টি এখন রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গির ঊর্ধ্বে চলে গেছে এবং এখন নির্দিষ্ট ধর্ম বিশ্বাসের উপস্থাপকদের টার্গেট করা হচ্ছে।

সাম্প্রতিক সময়ে ইহুদিবিদ্বেষী বা ইসলামোফোবিক দৃষ্টিভঙ্গি-তাড়িত সহিংসতা রোধে মার্কিন শহরগুলোতে পুলিশ ও ফেডারেল কর্তৃপক্ষ উচ্চ সতর্কতায় রয়েছে। এফবিআই কর্মকর্তারা বলছেন, ইহুদি ও মুসলিম জনগোষ্ঠীর সঙ্গে ঘৃণাপূর্ণ এবং হুমকিমূলক বক্তব্য বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে উচ্চ সতর্কতা নিতে হয়েছে তাদের। খবর বিবিসি ও আলজাজিরার।

সোনালী/জগদীশ রবিদাস