ঢাকা | জুলাই ১৮, ২০২৪ - ৩:৪৫ অপরাহ্ন

বাঘায় অল্পের জন্য দুর্ঘটনা থেকে বাঁচলেন দুই ট্রেনের যাত্রীরা

  • আপডেট: Tuesday, October 3, 2023 - 7:15 pm

বাঘা প্রতিনিধি: বাঘা উপজেলার আড়ানী রেলওয়ে স্টেশনে চালকের দক্ষতায় মুখোমুখি সংঘর্ষ থেকে রক্ষা পেল দুটি ট্রেনের যাত্রীরা। মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে আড়ানী স্টেশনে এ ঘটনা ঘটে।

সূত্রে জানা যায়, রাজশাহী থেকে ছেড়ে আসা ঈশ্বরদীগামী সিক্স ডাউন মেইল ট্রেনটি আড়ানী রেল স্টেশনে ১ নম্বর লাইনে দাঁড়িয়েছিল। এ সময় ঢাকা থেকে রাজশাহীগামী আন্তঃনগর ধুমকেতু ট্রেনটি ২ নম্বর লাইনে দাঁড়ানোর কথা ছিল। কিন্তু তা না করে ১ নম্বর লাইনে ঢুকে পড়ে। ফলে ১ নম্বর লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রেনটির মুখোমুখি হয় ধুমকেতু আন্তঃনগর ট্রেনটি।

কিন্তু ট্রেনের চালক মোস্তাফিজুর রহমান দাঁড়িয়ে থাকা ট্রেনটি দেখতে পেয়ে মুখোমুখি হওয়ার ২৫ গজ দূরেই ট্রেনটি থামিয়ে দেন। এতে বড় ধরনের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পায় ট্রেন দুটি। এসময় উভয় ট্রেনের যাত্রীদের মধ্যে ছুটোছুটি ও চরম আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

ঢাকা থেকে আন্তঃনগর ধুমকেতু ট্রেন রাজশাহীর উদ্দেশ্যে ছাড়ে সকাল সাড়ে ৬টায়। আড়ানী স্টেশনে থামার কথা ছিল ছিল ১০টা ৫৫ মিনিটে। কিন্তু দাঁড়িয়ে থাকা ট্রেনের মুখোমুখি হয় ১২টা ৮ মিনিটে। পরে ১২টা ৩০ মিনিটে ট্রেনটি রাজশাহীর উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়।

এদিকে সিক্স ডাউন মেইল ট্রেনটি রাজশাহী থেকে ঈশ্বরদীর উদ্দেশ্যে ছাড়ে সকাল সাড়ে ১০টায়। আড়ানী স্টেশনে এসে পৌঁছে ১১টা ৩৮ মিনিটে। ছাড়ে বেলা ১২টা ৫২ মিনিটে।

আড়ানী রেল স্টেশনের পয়েন্টম্যান কিরণ বলেন, পয়েন্ট তৈরি করতে যাওয়ার সময়ে আন্তঃনগর ধুমকেতু ট্রেন একই লাইনে ঢুকে পড়ে। চালকের বুদ্ধিমত্তায় দুই ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষ এড়ানো সম্ভব হয়েছে। আড়ানী স্টেশন মাস্টার মোশারফ হোসেন বলেন, পয়েন্টম্যান কিরোন পয়েন্ট তৈরি করতে যাওয়ার আগে আন্তঃনগর ধুমকেতু ট্রেন ঢুকে পড়ে।

এদিকে বিদ্যুৎ না থাকায় সিগনাল দেয়া সম্ভব হয়নি। আন্তঃনগর ধুমকেতু আড়ানীতে দাঁড়ানোর ব্যবস্থা আছে। বিদ্যুৎ থাকলে হইতো এমন ঘটনা ঘটতো না। তবে ২২ মিনিট পর ট্রেনটি আড়ানী ছেড়ে রাজশাহীর উদ্দেশ্যে রওনা হয়।

সোনালী/জেআর