ঢাকা | জুলাই ১৮, ২০২৪ - ১২:৫৭ পূর্বাহ্ন

রাজশাহীতে এইচআইভি রোগীর সংখ্যা যত

  • আপডেট: Thursday, September 14, 2023 - 12:30 am

অনলাইন ডেস্ক: রাজশাহীতে এখন ১৯ জন এইচআইভি পজিটিভ রোগী রয়েছেন। এদের মধ্যে চলতি মাসের দুই তারিখে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে অনুষ্ঠিত এক অ্যাডভোকেসি মিটিংয়ে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক কার্যলয়ের সম্মেলন কক্ষে বুধবার দুপুরে ঢাকা আহছানিয়া মিশনের উদ্যোগে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী সিভিল সার্জন ডা. আবু সাইদ মোহাম্মদ ফারুক।

এ সময় ঢাকা আহছানিয়া মিশনের ডিআইসি ম্যানেজার মো. কবির হুসাইনের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন বিভাগীয় টিবি বিশেষজ্ঞ ডা. সাইফুর ইসলাম, মেডিকেল অফিসার (সিএস) ডা. বায়েজীদ-উল ইসলাম, মেডিকেল অফিসার (সিও) ডা. আব্দুর রাকিব, দিনের আলো হিজড়া সংঘের সভাপতি মোহনা, দিনের আলো হিজড়া সংঘের উপদেষ্টা ও সাংবাদিক শরীফ সুমন এবং সাংবাদিক হাসান পলাশ।

সভায় জানানো হয়, ঢাকা আহছানিয়া মিশন একটি বেসরকারি মানবাধিকার, স্বেচ্ছাসেবী ও উন্নয়নমূলক সংস্থা। ১৯৫৮ সাল থেকে বাংলাদেশের গ্রামীণ ও শহুরে দরিদ্র, প্রান্তিক ও উচ্চঝুঁকির জনগোষ্ঠী, যৌন সংখ্যালঘু, হিজড়া, আদিবাসী এবং অন্যান্য পিছিয়েপড়া জনগোষ্ঠীর বর্তমান অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

তারই ধারাবাহিকতায় বর্তমানে ঢাকা আহছানিয়া মিশন আইসিডিডিআরবির ব্যবস্থাপনায় ও গ্লোবাল ফান্ডের আর্থিক সহায়তায় এবং জাতীয় এইডস/এসটিডি প্রোগ্রামের সার্বিক তত্ত্বাবধানে পরিচালিত ‘প্রায়োরাটাইজড এইচআইভি প্রিভেনশন অ্যান্ড ট্রিটমেন্ট সার্ভিসেস ফর কি পপুলেশন ইন বাংলাদেশ’ নামক প্রকল্পটি ১৯টি জেলায় ২৮টি সার্ভিস সেন্টারের মাধ্যমে অত্যন্ত ‘ঝুঁকিপুর্ণ পূরুষ ও হিজড়া’ জনগোষ্ঠীর জন্য এইচআইভি/এইডস প্রতিরোধ কার্যক্রম সফলতার সঙ্গে বাস্তবায়ন করছে।

সভায় রাজশাহী সিভিল সার্জন বলেন, চলমান প্রকল্পটি সরকারের কাজ, সরকার সবার সহযোগিতা নিয়ে কাজটি করছে। তবে এইচআইভি আক্রান্ত ব্যক্তিকে ঘৃণা করা যাবে না। তাদের সর্বাত্মক সহযোগিতা করতে হবে। তিনি সমন্বিতভাবে সবাইকে একটি নির্দিষ্ট প্ল্যাটফর্মে কাজ করার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

সোনালী/জেআর