ঢাকা | জুলাই ২০, ২০২৪ - ১০:৪৭ অপরাহ্ন

পুঠিয়ায় শ্বাসরোধে অন্তসত্বা গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ

  • আপডেট: Saturday, September 9, 2023 - 9:32 pm

পুঠিয়া প্রতিনিধি: পুঠিয়ায় বিথী বেগম (২৭) নামের এক অন্তসত্বা গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর তার লাশ ঘরের তীরের সাথে ফাঁসি লাগিয়ে ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ উঠেছে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ লাশ উদ্ধার করেছেন। তবে ঘটনার পর থেকে স্বামীর পরিবারের লোকজন গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে গেছেন। এদিকে পুলিশ লাশের ময়না তদন্তের জন্য রামেক হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছেন।

গত শুক্রবার দিবাগত রাত ১০টার দিকে উপজেলার ভালুকগাছি ইউনিয়নের সুকদেবপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বিথী বেগম ওই গ্রামের আব্দুল হালিমের দ্বিতীয় স্ত্রী ও একই গ্রামের মৃত জামাল হোসেনের মেয়ে।

ভুক্তভোগির মা বিলকিস বেগম বলেন, গত প্রায় ৪ মাস আগে আব্দুল হালিম কৌশলে বিথীর আগের স্বামীকে তালাক করিয়ে বিয়ে করে। বিথীর প্রথম পক্ষের একটি ৫ বছরের ছেলে আছে।

এরপর বর্তমান স্বামীর পক্ষে বিথী তিন মাসের অন্তসত্বা ছিল। তিনি বলেন, আব্দুল আলিমের কথামত না চলায় তার মেয়েকে হত্যা করেছে।

প্রতিবেশী দুলাল হোসেন বলেন, আব্দুল হালিম একজন খুনি। তার বিরুদ্ধে গত কয়েক বছর আগে তার নামে একটি শিশু হত্যার মামলা হয়। বর্তমানে সে জামিনে আছে।

আর গতরাতে সে তার দ্বিতীয় স্ত্রীকে হত্যা করে আগের পরিবারে সদস্যদের নিয়ে রাতেই গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে যায়।

বিথীর ভাবি কাজলী বেগম বলেন, তার ননদ প্রথম স্বামী বাড়িতে থাকা অবস্থায় আব্দুল হালিম তাকে ধর্ষণ করেছিল। আব্দুল হালিম সর্ম্পকে বির্থীর প্রতিবেশী চাচা হয়। এ ঘটনায় তার ননদ আব্দুল হালিমের নামে থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেন।

পরে সেই মামলা থেকে রেহাই পেতে কৌশলে তার ননদকে আগের স্বামীকে তালাক করিয়ে বিয়ে করে। কিন্তু বিয়ের পর তার ননদ আদালত থেকে সেই মামলা তোলেনি।

আর এই নিয়ে দুইদিন তিনদিন পর পর তাদের মধ্যে ঝগড়া-মারামারি হতো। গতরাতেও তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। পরে রাত আনুমানিক ১০টার দিকে আব্দুল হালিম প্রথম স্ত্রীকে সাথে নিয়ে বিথীকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রেখে পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে থানার ওসি ফারুক হোসেন বলেন, খবর পেয়ে গতকাল রাতেই ঘটনা স্থল থেকে ওই মহিলার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। দুপুরে ময়না তদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে।

তবে এটা হত্যা না আত্মহত্যা তা ময়না তদন্ত প্রতিবেদন ছাড়া কিছুই বলা যাচ্ছে না। তবে এ ঘটনার পর থেকে ওই মহিলার স্বামীসহ পুরো পরিবার পলাতক রয়েছে। এ ঘটনায় ওই পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সোনালী/জেআর