ঢাকা | জুলাই ১৭, ২০২৪ - ৮:০৩ অপরাহ্ন

বিবৃতি ইস্যুতে বক্তব্য: বরখাস্ত হচ্ছেন সেই ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল

  • আপডেট: Wednesday, September 6, 2023 - 8:32 am

অনলাইন ডেস্ক: ড. মুহাম্মদ ইউনূসের বিপক্ষে বিবৃতিতে স্বাক্ষর করা নিয়ে বক্তব্য দেওয়া ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এমরান আহম্মদ ভূঁইয়াকে শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে বরখাস্তের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

গতকাল আইন মন্ত্রণালয়ের সলিসিটর উইং-এ তথ্য জানিয়েছে। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, বিবৃতি-সংক্রান্ত বক্তব্য দিয়ে এমরান আহম্মদ ভূঁইয়া শৃঙ্খলা ভঙ্গ করেছেন। তার (এমরান আহম্মদ ভূঁইয়া) বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

এদিকে গতকাল দুপুরে অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়ের ৫১১ নম্বর রুমের সামনে এমরান আহম্মদ ভূঁইয়ার নেমপ্লেট খুলে ফেলা হয়েছে।

তার কক্ষে থাকা মামলার সব ফাইল সরিয়ে নিয়েছে অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়ের প্রশাসনিক কর্মকর্তা। যে কোনো মুহূর্তে বরখাস্তের আদেশ জারি হতে পারে।

সার্বিক বিষয় নিয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন জানিয়েছেন, অ্যাটর্নি জেনারেল অফিস থেকে ড. ইউনূসের বিপক্ষে বিবৃতির কোনো নির্দেশনা দেয়া হয়নি। অন্য কোনো পক্ষকে খুশি করার জন্য ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এমরান আহম্মদ ভূঁইয়া এটা বলেছেন। নিশ্চয়ই এখানে তার কোনো উদ্দেশ্য ছিল। গতকাল সুপ্রিম কোর্টে অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, যদি তাকে কেউ বিবৃতিতে স্বাক্ষর করতে বলত, তার উচিত ছিল অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে আমাকে জিজ্ঞেস করা। কিন্তু তিনি আমার সঙ্গে কোনো কথা বলেননি। সোমবার ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এমরান আহম্মদ ভূঁইয়া ছুটিতে ছিলেন।

কিন্তু তিনি কোর্ট প্যান্ট পরে সরাসরি সাংবাদিকদের কাছে গিয়ে ব্রিফ করেছেন। এখানে নিশ্চয়ই তার কোনো উদ্দেশ্য আছে। উল্লেখ্য, গত সোমবার এমরান আহম্মদ ভূঁইয়া জানিয়েছিলেন, ড. মুহাম্মদ ইউনূসের বিপক্ষে বিবৃতিতে তিনি সই করবেন না। তিনি বলেন, ‘ড. ইউনূসের সম্মানহানি করা হচ্ছে এবং এটা বিচারিক হয়রানি।’

সোনালী/জেআর