ঢাকা | জুলাই ১৩, ২০২৪ - ৭:৩১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম

রাজশাহীতে বঙ্গবন্ধু-প্রধানমন্ত্রীর ছবি অবমাননা, গ্রেফতার ২

  • আপডেট: Saturday, September 2, 2023 - 9:00 pm

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীতে বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শো্ভাযাত্রা থেকে যুবলীগ নেতার ব্যানার ও ফেস্টুনে থাকা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি অবমাননা ও ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগে দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

আজ শনিবার দুপুরে শহরের মালোপাড়া এলাকা থেকে এই দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- রাজশাহী মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য পিয়ারুল হায়দার আবু (৪২) এবং নগরের ১২ নম্বর ওয়ার্ড যুবদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামীম হোসেন (৪২)।

জানা যায়, গত শুক্রবার বিকালে বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শহরের বাটার মোড় থেকে একটি শোভাযাত্রা বের করা হয়। বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু ওই শোভাযাত্রায় নেতৃত্ব দেন।

আ’লীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীরা অভিযোগ করেন; শোভাযাত্রা চলাকালীন সময়ে শহরের প্রধান সড়কগুলোতে লাগানো বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, শহিদ এএইচএম কামারুজ্জামান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি সম্বলিত নগর যুবলীগের সম্মেলনের ফেস্টুন ছিড়ে পদদলিত করতে থাকেন যুবদল ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা।

বঙ্গবন্ধুর ফেস্টুন ছিড়ে ফেলার একাধিক ছবি সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হলে এ নিয়ে অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেন। এ ঘটনায় রাজশাহী মহানগর যুবলীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সাবেক সদস্য আব্দুল কারিম বোয়ালিয়া মডেল থানায় বিএনপির অজ্ঞাতনামা নেতাকর্মীদের আসামি করে এজাহার দায়ের করেন।

এজাহারে তিনি উল্লেখ করেন, আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর রাজশাহী মহানগর যুবলীগের সম্মেলন। নাহিদ আক্তার নাহান এ সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক পদপ্রত্যাশী। সম্মেলন উপলক্ষে তার সমর্থকরা মহনাগরীর বিভিন্ন সড়কের মধ্যভাগের রেলিং এবং লাইট পোস্টে ব্যানার ও ফেস্টুন সাটান। শুক্রবার বিকালে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর র‌্যালিতে যাওয়ার সময় বিএনপি নেতাকর্মীরা মহানগরীর গৌরহাঙ্গা, বিন্দুর মোড়, নিউমার্কেট, রাণীবাজার এবং ফায়ারব্রিগেড মোড়সহ বিভিন্ন এলাকায় সাটানো ব্যানার ও ফেস্টুন ছিঁড়ে ফেলেন। এসময় ২৩০টি ব্যানার ও ফেস্টুন ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে। এর ফলে লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে।

এ বিষয়ে নাহিদ আক্তার নাহান বলেন, ব্যানার ফেস্টুনে আমাদের নাম থাকাটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নয়। গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে- ফেস্টুনগুলোতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহিদ এএইচএম কামারুজ্জামান ও সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের ছবিও আছে। ওদের উদ্দেশ্য আমরা নই। তাদের উদ্দেশ্য বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীকে আবমাননা এবং অসম্মান করা। তারা সেটিই করেছে। ব্যানার ও ফেস্টুনের ছবি ছিঁড়ে ফেলে বিএনপির নেতাকর্মীরা ধৃষ্টতা দেখিয়েছেন। এটি রাষ্ট্রদ্রোহের শামিল। এ কারণে আইনের আশ্রয় নিয়েছি। এ ঘটনায় জড়িতদের শাস্তি দাবি করছি।

বোয়ালিয়া মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আমিরুল ইসলাম বলেন, মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। ইতোমধ্যে দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত অন্যদেরও গ্রেফতারের জন্য অভিযান চালানো হচ্ছে।

সোনালী/জেআর