ঢাকা | ফেব্রুয়ারী ২৮, ২০২৪ - ১২:৪৩ অপরাহ্ন

ছাত্রলীগের সমাবেশ দিয়ে নির্বাচনী যাত্রা শুরু করছে আ’লীগ

  • আপডেট: Friday, September 1, 2023 - 8:32 am

অনলাইন ডেস্ক: স্মরণকালের সর্ববৃহৎ ছাত্রসমাবেশ’র জন্য প্রস্তুতি রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যান। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের উদ্যোগে আয়োজিত এই সমাবেশে সারাদেশ থেকে পাঁচ লাখ শিক্ষার্থী সমাগমে জাগরণ সৃষ্টি হবে।

যেখানে নির্বাচনী দিক নির্দেশনা দেবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে রাজনীতির মাঠ নিজেদের দখলে রাখতে চায় আওয়ামী লীগ। এ লক্ষ্যে আরও জোরালো কর্মসূচি নিয়ে মাঠে থাকার পরিকল্পনা রয়েছে ক্ষমতাসীনদের।

সেপ্টেম্বরের শুরু থেকেই ‘পুরোদমে নির্বাচনি যাত্রা’ শুরু করতে যাচ্ছে দলটি। এরই অংশ হিসাবে মাসের প্রথম দিনেই ছাত্র সমাবেশের মধ্য দিয়ে বড় ধরনের শোডাউনের প্রস্তুতি নিয়েছে ছাত্রলীগ।

ধারনা করা হচ্ছে ছাত্রলীগের এ সর্ববৃহৎ মহাসমাবেশ দিয়ে নির্বাচনী অভিযাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ। এরপর থেকে টানা জনসভা নিয়ে রাজনীতির মাঠ দখলে রাখতে চায় ক্ষমতাসীনরা।

এর পরদিন ২ সেপ্টম্বর ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের প্রথম অংশের উদ্বোধন ঘিরেও মহাসমাবেশের মধ্য দিয়ে নিজেদের শক্তি জানান দেবে দলটি।

এছাড়া ঢাকা ও ঢাকার বাইরে অন্যান্য উন্নয়ন প্রকল্প অর্থাৎ মেগা প্রজেক্টের উদ্বোধন ঘিরেও কয়েকটি সমাবেশ করবে আওয়ামী লীগ। নির্বাচনি যাত্রার অংশ হিসাবে খুলনা, চট্টগ্রাম, বরিশাল ও সিলেটে বিভাগীয় সমাবেশ হবে। জেলা পর্যায়েও পালিত হবে এসব কর্মসূচি।

এর বাইরে ঢাকাসহ সারা দেশে ছাত্র সমাবেশ, সুধী সমাবেশ, মিছিল, শোভাযাত্রা এবং আলোচনা সভা ও সেমিনারসহ নানা কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত রয়েছে দল ও সহযোগী সংগঠনের। এসব কর্মসূচির মধ্য দিয়ে নিজেদের নির্বাচনী প্রস্তুতির পাশপাাশি সংগঠনকে শক্তিশালী ও ঐক্যবদ্ধ করা হবে।

একই সঙ্গে, বিএনপি-জামায়াতের নেতিবাচক কর্মকাণ্ড তুলে ধরা এবং বর্তমান সরকারের উন্নয়ন চিত্র সাধারণ মানুষের সামনে তুলে ধরবে আওয়ামী লীগ। এছাড়া বিএনপির আন্দোলন মোকাবিলায় প্রত্যেকটি কর্মসূচির দিন নানা বিষয় সামনে এনে মাঠে থাকবে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরাও।

১৪ দলীয় জোটের শরিকসহ সমমনা অন্যান্য দল ও সংগঠনকেও মাঠে রাখতে চায় ক্ষমতাসীনরা। আওয়ামী লীগ নেতারা বলছেন, নির্বাচন পর্যন্ত তাদের এ ধরনের কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।

এদিকে নির্বাচনের আগে নিজেদের সক্ষমতার জানান দিতে এতে পাঁচ লাখের বেশি শিক্ষার্থী সমাগম করার ঘোষণা দিয়েছে ছাত্রলীগ। সমাবেশকে সার্থক করার জন্য দেশব্যাপী চালানো হয়েছে প্রচারণা।

সমাবেশে সর্বোচ্চসংখ্যক নেতাকর্মী নিয়ে অংশ নেয়া ইউনিটকে পুরস্কৃত করারও ঘোষণা দেয়া হয়েছে। এছাড়াও এই ছাত্রসমাবেশ থেকে শিক্ষার্থীরা শেখ হাসিনাকে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয় উপহার দেয়ার শপথ নেবে বলেও জানান ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতারা।

ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন বলেন, আমাদের প্রস্তুতি সম্পন্ন। আমাদের প্রস্তুতি এ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই। এ ঐতিহাসিক ছাত্রসমাবেশের প্রস্তুতি দেশের ৫৬ হাজার বর্গমাইল ছুঁয়ে গিয়েছে।

দেশের ৫ কোটি শিক্ষার্থীকে ছুঁয়ে গেছে। আমাদের স্বপ্নের নিরাপত্তার জন্য, দেশের নিরাপত্তার জন্য, আমাদের উন্নত ভবিষ্যতের নিরাপত্তা নিশ্চিতের জন্য এ ছাত্রসমাবেশে সামিল হবেন শিক্ষার্থীরা।

ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ ওয়ালী আসিফ ইনান বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদের নিয়ে উন্মুক্তভাবে শপথ নিতে চাই, দেশ বিরোধী যে কোন অপতৎপরতাকে তারুণ্য রুখে দেবে।

সোনালী/জেআর