ঢাকা | জুলাই ২০, ২০২৪ - ৮:২৫ পূর্বাহ্ন

রাজশাহীতে গভীর শ্রদ্ধায় জাতীয় শোক দিবস পালিত

  • আপডেট: Tuesday, August 15, 2023 - 11:50 pm

স্টাফ রিপোর্টার: গভীর শোক আর পরম শ্রদ্ধায় রাজশাহীতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্মরণ করা হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে মঙ্গলবার সকাল থেকে বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়। এর মধ্যে সকালে রাজশাহী মহানগরীর সিঅ্যান্ডবি মোড়ে অবস্থিত ‘বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে শ্রদ্ধা জানিয়েছে রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিকসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ।

এছাড়াও দিবসটি উপলক্ষে নগরীর মোড়ে মোড়ে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দিনভর মাইকে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ বাজানো হয়। এছাড়াও বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধুর জীবনীর উপর আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

মহানগর আওয়ামী লীগ

১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস যথাযোগ্য মর্যাদার সাথে পালনের লক্ষ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, রাজশাহী মহানগর বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে। কর্মসূচি সমূহের মধ্যে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে কুমারপাড়াস্থ দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ এবং কালো পতাকা উত্তোলন, সকাল সাড়ে ১০টায় কুমারপাড়াস্থ দলীয় কার্যালয়ের স্বাধীনতা চত্বরে বঙ্গবন্ধু সহ জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করা হয়। সকাল ১১টায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ সকল শহিদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দলীয় কার্যালয়ে স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল শুরুর পূর্বে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

বেলা ১টায় দলীয় কার্যালয়ে মানবভোজ বিতরণ করা হয়। স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান আলোচক ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের প্রফেসর ড. আবুল কাশেম। আওয়ামী লীগ, রাজশাহী মহানগরের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামালের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি শাহীন আকতার রেণী। সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, রাজশাহী মহানগরের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহ্সানুল হক পিন্টু। এছাড়াও নগরীর প্রতিটি ওয়ার্ডে মাইকযোগে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ ও কোরআন তেলাওয়াত প্রচার করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, রাজশাহী মহানগরের সহ-সভাপতি সৈয়দ শাহাদত হোসেন, অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, ডা. তবিবুর রহমান শেখ, নাঈমুল হুদা রানা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. আসলাম সরকার, আজিজুল আলম বেন্টু, দপ্তর সম্পাদক মাহাবুব-উল-আলম বুলবুল, প্রচার সম্পাদক দিলীপ কুমার ঘোষ, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক মীর তৌফিক আলী ভাদু, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক জিয়া হাসান আজাদ হিমেল, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক ফিরোজ কবির সেন্টু, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব জাহিদুল ইসলাম জাহিদ, মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা ইয়াসমিন রেজা ফেন্সি, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক ওমর শরীফ রাজিব, শ্রম সম্পাদক আব্দুস সোহেল, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক কামারউল্লাহ সরকার কামাল, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা: ফ ম আ জাহিদ, কোষাধ্যক্ষ হাবিবুল্লাহ ডলার, সদস্য অ্যাড. মোজাফফর হোসেন, মুশফিকুর রহমান হাসনাত, নজরুল ইসলাম তোতা, হাবিবুর রহমান বাবু, শাহাব উদ্দিন, অ্যাড. শামসুন্নাহার মুক্তি, বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা: আব্দুল মান্নান, আতিকুর রহমান কালু, হাফিজুর রহমান বাবু, আব্দুস সালাম, মাহবুবা কানিজ কেয়া, বাদশা শেখ, ইউনুস আলী, মোখলেশুর রহমান কচি, অ্যাড. রাশেদ-উন-নবী আহসান, কে এম জুয়েল জামান, আশীষ তরু দে সরকার অর্পণ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগের সদস্য ডা. আনিকা ফারিহা জামান অর্ণা, থানা আওয়ামী লীগের মধ্যে রাজপাড়া থানার সাধারণ সম্পাদক শেখ আনসারুল হক খিচ্চু, বোয়ালিয়া (পূর্ব) থানার সাধারণ সম্পাদক শ্যামল কুমার ঘোষ, বোয়ালিয়া (পশ্চিম) থানার সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান রতন, মতিহার থানার সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন, শাহখদুম থানার সাধারণ সম্পাদক শাহাদত আলী শাহু, নগর শ্রমিক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ওয়ালী খান, নগর যুবলীগ সভাপতি রমজান আলী, সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন বাচ্চু, নগর কৃষক লীগ সভাপতি রহমতউল্লাহ সেলিম, নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আব্দুল মোমিন, নগর মহিলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সালমা রেজা, সাধারণ সম্পাদক কানিজ ফাতেমা মিতু, নগর যুব মহিলা লীগ সভাপতি অ্যাড. ইসমত আরা, সাধারণ সম্পাদক নিলুফার ইয়াসমিন নিলু, নগর ছাত্রলীগ সভাপতি নূর মোহাম্মদ সিয়াম, সাধারণ সম্পাদক ডা: সিরাজুম মুবিন সবুজ, নগর তাঁতী লীগ সভাপতি আনিসুর রহমান আনার, সাধারণ সম্পাদক মোকসেদ-উল-আলম সুমন প্রমুখ।

এদিকে, সকাল সাড়ে ৮টায় আওয়ামী লীগের মহানগর কার্যালয়ের সামনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান মহানগর সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল, সাংগঠনিক সম্পাদক মীর ইসতিয়াক আহমেদ লিমন, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক জেডু সরকারসহ নেতা-কর্মীবৃন্দ।

জেলা আওয়ামী লীগ

রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচি পালন করা হয়। জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ (অবঃ) আমজাদ হোসেন নবাবের সভাপতিত্বে শোকসভার প্রধান আলোচক রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি আলহাজ আব্দুল ওয়াদুদ দারার সার্বিক তত্ত্বাবধান এবং পরিচালনায় জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ, জেলা পর্যায়ের আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। সকাল ১০ রাজশাহী কলেজে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদন করা হয়। বেলা ১১ টায় রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের রানীবাজারস্থ দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় শোক দিবসের শোকসভা ও দোয়া মাহফিল সহ একমিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

দিনব্যাপী জেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাষণ প্রচার এবং রেকর্ডকৃত দেশাত্মবোধক গান প্রচার করা হয়। বাদ জোহর জেলাধীন সকল মসজিদে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল সহ সুবিধামতো সময়ে জেলাধীন সকল মন্দির, গীর্জা এবং প্যাগোডা সহ ধর্মীয় উপাসনালয়ে বিশেষ প্রার্থনা সভার ব্যবস্থা রাখা হয়। জেলাধীন সর্বস্তরে আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী লীগের সকল সহযোগী ও ভাতৃপ্রতীম সংগঠনের নেতৃবৃন্দের উদ্যোগে দুস্থ, এতিম এবং সাধারণ মানুষের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।

জেলা প্রশাসন

সকালে রাজশাহী জেলা শিল্পকলা অ্যাকাডেমি মিলনায়তনে রাজশাহী জেলা প্রশাসনের ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বিভাগীয় কমিশনার ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর বলেছেন, ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার ঘটনা পৃথিবীর সবচেয়ে কলঙ্কিত অধ্যায়। এর অতীত ছিল অনেক নির্মম ও নিষ্ঠুর। রাজশাহী জেলা প্রশাসন এ অনুষ্ঠানের আয়োজনে করে। রাজশাহীর সাবেক মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট আব্দুল হাদী অনুষ্ঠানে আলোচক হিসেবে বক্তব্য দেন। রাজশাহী জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদের সভাপতিত্বে পুলিশের রাজশাহী রেঞ্জের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) আনিসুর রহমান, রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ (আরএমপি) কমিশনার বিপ্লব বিজয় তালুকদার, রাজশাহী জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) সাইদুর রহমান বক্তব্য দেন।

এতে রাজশাহীর সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, বীর মুক্তিযোদ্ধা, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, রাজনৈতিক, ব্যবসায়ী, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন। সভা শেষে রচনা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার। এর আগে মহানগরীর বঙ্গবন্ধু চত্বরে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি দপ্তর, সংস্থা, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানানো হয়। পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে বিভাগীয় কমিশনারের নেতৃত্বে একটি শোক মিছিল বঙ্গবন্ধু চত্বর থেকে জেলা শিল্পকলা অ্যাকাডেমিতে গিয়ে শেষ হয়।

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ

আলোচনা সভা ও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পৃষ্পার্ঘ অর্পণের মধ্য দিয়ে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শ্হাাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন করেছে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৮টায় কুমারপাড়াস্থ মহানগর আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণের মাধ্যমে এ দিবসটি পালন করে তারা। সেখানে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন ও বঙ্গবন্ধুসহ সকল শহিদদের আত্মার শান্তি কামনা করে দোয়া করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল, যুদ্ধকালীন কমাণ্ডার সফিকুর রহমান রাজা, বীর মুক্তিযোদ্ধা আইবুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা তৈয়বুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা আমিনুল হক টুক্,ু বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাড, মনোয়ারুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোতাহার হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা কামরুজ্জামান, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা এমদাদুল হক, বীর মুক্তিযোদ্ধা জুহরিুল ইসলাম সহ অন্যান্য বীর মুক্তিযোদ্ধাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

রাসিক

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৮তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার দিবসটি উপলক্ষে শোক র‌্যালি, বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে শ্রদ্ধা নিবেদন, বৃক্ষরোপণ, আলোচনা সভা, বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম পরিচালিত হয়। সকাল ১০টায় সিঅ্যান্ডবি মোড়ে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন কাউন্সিলরবৃন্দ। এরপর কর্মকর্তাবৃন্দ-কর্মচারীবৃন্দ ও কর্মচারী ইউনিয়নের পক্ষ থেকে পৃথক পৃথকভাবে শ্রদ্ধা জানানো হয়। এর আগে নিউ গভ. ডিগ্রি কলেজ হতে একটি শোকর‌্যালি বের হয়ে সিএন্ডবি মোড়ে বঙ্গবন্ধু ম্যুরালের সামনে গিয়ে শেষ হয়। শ্রদ্ধা নিবেদনকালে রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ ও ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু এবং প্যানেল মেয়র-২ ও ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রজব আলী, কাউন্সিলরবৃন্দ, কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে ১৫ আগস্টের শহিদদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। দিবসটি উপলক্ষে সকাল সাড়ে এগারটায় নগর ভবন সিটিহল সভাকক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন রাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. এ.বি.এম. শরীফ উদ্দিন। সভায় বক্তব্য দেন প্যানেল মেয়র-২ ও ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রজব আলী, ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল হক সুমন, ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কামরুজ্জামান কামরু, প্রধান প্রকৌশলী নূর ইসলাম তুষার, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ এফ.এ.এম আঞ্জুমান আরা বেগম, রাসিক কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আজমির আহম্মেদ মামুন। সভায় বক্তারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কর্মময় জীবন, রাজনৈতিক জীবন ইতিহাস তুলে ধরেন।

দিবসের অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে বঙ্গবন্ধুর ছবি সংবলিত শোক ব্যানার প্রদর্শন করা হয়, সূর্যোদয়ের সাথে সাথে নগর ভবন ও ওয়ার্ড কার্যালয় সমূহে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করে উত্তোলন, বাদ যোহর সোনাদিঘি জামে মসজিদসহ সকল মসজিদে বিশেষ মোনাজাত, সুবিধাজনক সময়ে স্ব স্ব উপাসনালয়ে অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদের বিশেষ প্রার্থনা করা হয়। নগর ভবনসহ ৩০টি ওয়ার্ড ও ১০টি সংরক্ষিত আসন কার্যালয়ে দিনব্যাপী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাষণ প্রচার করা হয়। এছাড়াও রাজশাহী সিটি হাসপাতালে দুই দিনব্যাপী বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান, মাসব্যাপী কালো ব্যাজ, বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করা হয়।

জেলা পরিষদ

বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে জাতীয় শোক দিবস পালন করেছে রাজশাহী জেলা পরিষদ। এ উপলক্ষে গতকাল মঙ্গলবার সকালে সিএন্ডবি মোড় এলাকায় এবং জেলা পরিষদ ভবনে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য ও রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এবং রাজশাহী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রেজা হাসান সহ অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ। আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন রাজশাহী জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান-১ মাইনুল ইসলাম, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রেজা হাসান সহ অন্যান্য কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ। আলোচনা শেষে বঙ্গবন্ধু সহ সকল শহিদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এর পর বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি রাজশাহী জেলা ইউনিটের আয়োজনে রক্তদান কর্মসূচি উদ্বোধন করেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মীর ইকবাল।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

দিবসের শুরুতে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে শহিদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম প্রশাসনভবনসহ অন্যান্য ভবনে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত ও কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়। সকাল ৯:৩০ মিনিটে উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার শোক র‌্যালিসহ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এসময় উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক সুলতান-উল-ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক অবদায়দুর রহমান প্রামানিক, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক আবদুস সালাম, প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক, ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক জাহাঙ্গীর আলম সাউদ, জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রদীপ কুমার পাণ্ডে, হল প্রাধ্যক্ষ, ইনস্টিটিউট পরিচালক, বিভাগীয় সভাপতিগণসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সেখানে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তাঁর রুহের মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়। পরে বিভিন্ন আবাসিক হল ও বিভাগ, রাবি শিক্ষক সমিতি, ক্যাম্পাসের স্কুলসমূহ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজ, রাবি বঙ্গবন্ধু পরিষদসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠান এবং পেশাজীবী ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। সকাল ১০টায় শহিদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক অবায়দুর রহমান প্রামানিক। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক সুলতান-উল-ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় ‘আমার দেখা নয়াচীন : বঙ্গবন্ধুর পর্যবেক্ষণ ও আমাদের শিক্ষণীয়’ শীর্ষক বক্তৃতা দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শেখ মুজিব রিসার্চ ইনস্টিটিউট ফর পিস এন্ড লিবার্টি এর পরিচালক অধ্যাপক ফকরুল আলম। রেজিস্ট্রার অধ্যাপক আব্দুস সালাম আলোচনা সভাটি সঞ্চালনা করেন। এ অনুষ্ঠানে রাবি বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল ও রাবি শেখ রাসেল মডেল স্কুলের শিক্ষার্থীদের জন্য রচনা, চিত্রাঙ্কন ও কুইজ প্রতিযোগিতার পুরস্কার প্রদান করা হয়। অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে ছিল বাদ জোহর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে কোরআনখানি ও মিলাদ মাহফিল, বিকেল ৫টায় শহিদ মিনার মুক্তমঞ্চে আবৃত্তি, গান ও নাটক পরিবেশন এবং সন্ধ্যায় শহিদমিনারে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন ও কেন্দ্রীয় মন্দিরে বিশেষ প্রার্থনা।
রুয়েট

নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৮ তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট)-এ। গতকাল মঙ্গলবার যথাযোগ্য মর্যাদায় দিনব্যাপী কর্মসূচির মধ্যে দিয়ে এ দিবসটি পালিত হয়েছে। সূর্যোদয়ের সাথে সাথে প্রশাসনিক ভবন ও হলসমূহে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা ও কালো পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়। এরপর সকাল ১০টায় কালোব্যাজ ধারণ করা হয়। সকাল সাড়ে ১০টায় রুয়েট রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. সেলিম হোসেন এর নেতৃত্বে রুয়েট প্রশাসনের পক্ষ থেকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর ম্যুরালে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ ও শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়।

শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন শেষে দিবসটি উপলক্ষে বেলা ১১ টায় বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালিত হয়েছে। কর্মসূচিতে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- রুয়েট শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. ফারুক হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. রবিউল আওয়াল, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, রুয়েট এর সভাপতি অধ্যাপক ড আশরাফুল আলম ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড.কামরুজ্জামান রিপন, কর্মকর্তা সমিতির সভাপতি নাজিমউদ্দীন আহম্মদ ও সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার ঘোষ, কর্মচারী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন শুভ সহ বিভিন্ন অনুষদের ডিনবৃন্দ, পরিচালকবৃন্দ, বিভাগ, দপ্তর, শাখা প্রধান, হলসমূহের প্রভোস্টবৃন্দ সহ শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা, কর্মচারী প্রমুখ।

রামেবি

রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (রামেবি) জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে কর্মসূচিতে ছিল সকাল ৮টায় জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত ও কালো পতাকা উত্তোলন, সকাল সাড়ে ৮টায় জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং মোনাজাত করা হয়। এরপর সকাল ৯ টায় জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন, সহকারী-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ডা. আমীর হোসেন। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (রামেবি) উপাচার্য অধ্যাপক ডা. এ.জেড.এম মোস্তাক হোসেন, রামেবির কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. রুস্তম আলী আহমেদ, রেজিস্টার অধ্যাপক ডা. আনোয়ারুল কাদের, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক ডা. আনোয়ার হাবিব, কলেজ পরিদর্শক অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন, পরিচালক (অর্থ ও হিসাব) ডা. জাকির হোসেন খোন্দকার, পরিচালক (প.উ.) ইঞ্জিনিয়ার সিরাজুম মুনির, সহকারী রেজিস্ট্রার রাসেদুল ইসলাম।

এ সময় রামেবির উপ-রেজিস্ট্রার ডা. আমিন আহমেদ খান, উপ-পরিচালক (অ.হি) আখতার হোসেন, উপ-পরিচালক (প.উ.) এস.এম.ওবায়দুল ইসলাম, উপ- কলেজ পরিদর্শক ডা. মোহাম্মদ মেহেরওয়ার হোসেন, সরকারি কলেজ পরিদর্শক(চ.দা) নাজমুল হোসাইন, সহকারী পরিচালক (অ.হি.) মফিজ উদ্দিন, সহকারী পরিচালক(প.উ.) আবুল আশরাফ, উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ডা. সারওয়ার জাহান, সেকশন অফিসার তানভির আহমেদ, সেকশন অফিসার শাকিল আহমেদ, সেকশন অফিসার শারমিন আক্তার নূর, সেকশন অফিসার শাহারিয়ার ইসলাম, মেহেদী মাসুদ সানি, আসাদুর রহমান, গোলাম রহমান, মোসা: সিমা আক্তার, আশরাফুল ইসলাম, আব্দুস সোবহান, মেহেদী হাসানসহ রামেবির সকল কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সভায় ১৫ আগস্ট শহিদ সকলের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করা হয়।

রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড

বিভিন্ন কর্মসুচির মধ্য দিয়ে জাতীয় শোক দিবস’ পালন করেছে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড। এ উপলক্ষে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত ও কালো পতাকা উত্তোলন এবং বাদ ফজর লক্ষ্মীপুর ভাটাপাড়া ফারুকিয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসার শিক্ষার্থীর দ্বারা কোরআনখানির মাধ্যমে জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়। সকাল ১০ টায় রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড চত্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্টে শাহাদতবরণকারী বঙ্গমাতাসহ তার পরিবারের অন্য শহিদ সদস্যদের সম্মানার্থে ১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের সকল স্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের উপস্থিতিতে সকাল সাড়ে ১০ টায় রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর আরিফুল ইসলামের সভাপতিত্বে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রধান অতিথি ছিলেন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড রাজশাহী’র চেয়ারম্যান প্রফেসর কামরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড সচিব হুমায়ূন কবীর, বিদ্যালয় পরিদর্শক জিয়াউল হক, উপ-পরিচালক (হিসাব ও নিরীক্ষা) বাদশা হোসেন, সিনিয়র সিষ্টেম এনালিষ্ট প্রকৌশলী মুহাম্মদ শফিকুল ইসলাম, বাংলাদেশ আন্তঃশিক্ষা বোর্ড কর্মচারী ফেডারেশনের মহাসচিব ও রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি হুমায়ূন কবীর।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর আরিফুল ইসলাম। এরপর বক্তব্য রাখেন হিসাব রক্ষণ অফিসার (দায়িত্বপ্রাপ্ত) হোসনে আরা আরজু, সহ-হিসাব রক্ষণ অফিসার মোহাম্মদ আব্দুল মান্নান, উপ-বিদ্যালয় পরিদর্শক (দায়িত্বপ্রাপ্ত) ফরিদ হাসান, বাংলাদেশ আন্তঃশিক্ষা বোর্ড কর্মচারী ফেডারেশনের মহাসচিব ও রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপি হুমায়ূন কবীর, সিনিয়র সিষ্টেম এনালিষ্ট প্রকৌশলী মুহাম্মদ শফিকুল ইসলাম, বিদ্যালয় পরিদর্শক জিয়াউল হক এবং সচিব হুমায়ূন কবীর।

এরপর দুপুর পৌনে ২ টায় রাজশাহী মহিষবাথান গোরস্থান সংলগ্ন লক্ষীপুর ভাটাপাড়া ফারুকিয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসার এতিম ও সুবিধাবঞ্চিত শিক্ষার্থীদের মাঝে দুপুরের খাবার বিতরণ করা হয়। বাদ আসর রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড মসজিদে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ শাহাদতবরণকারী শহিদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও তবারক বিতরণ করা হয়।

বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়

শ্রদ্ধা ও যথাযথ মর্যাদায় বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৮তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাসে শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ, জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ, নীরবতা পালন এবং আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করেন অতিথিরা। এরপর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের অন্যান্য শহিদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সাইন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আরিফা ফেরদৌসীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এম. ওসমান গনি তালুকদার। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপদেষ্টা প্রফেসর ড. এম. সাইদুর রহমান খান এবং মূল আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. ফায়েক উজ্জামান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর আনন্দ কুমার সাহা এবং ট্রেজারার প্রফেসর ড. ফয়জার রহমান।

রাজশাহী কলেজ

রাজশাহী কলেজে মাসব্যাপী বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানের মধ্যে ছিল বিভাগ পর্যায়ে হামদ-নাত, কবিতা আবৃত্তি, রচনা, কুইজ ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন। ৭ আগস্ট হতে ৯ আগস্ট পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয় বিভাগভিত্তিক আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান। গতকাল মঙ্গলবার সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা ও কালো পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়। সকাল ৮টায় কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুল খালেক ও উপাধ্যক্ষ প্রফেসর ওলিউর রহমানের নেতৃত্বে বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, শিক্ষকমণ্ডলী, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ ও শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে শোক-র‌্যালি বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

র‌্যালি শেষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। কলেজের বিভিন্ন বিভাগ ও সংগঠনসমূহ এবং সমাজবিজ্ঞান বিভাগ পরিচালিত সামাজিক স্কুলের পথশিশু শিক্ষার্থীরা র‌্যালি শেষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও শ্রদ্ধা নিবেদন করে। এরপর সকাল সাড়ে ৯ টায় রাজশাহী কলেজের রোভার স্কাউট গ্রুপ, বিএনসিসি ইউনিট, রেঞ্জার ইউনিট ও রেড ক্রিসেন্ট ইউনিট এর উদ্যোগে কলেজ ক্যাম্পাসে বৃক্ষরোপণ করা হয়। সকাল পৌনে ৯ টায় কলেজ কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনের চত্বরে রাজশাহী কলেজ বাঁধন ইউনিট-এর উদ্যোগে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুল খালেক। সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হয় ‘বঙ্গবন্ধু ও বাঙালির আত্মপরিচয়’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান।

আলোচনা অনুষ্ঠানের শুরুতে বঙ্গবন্ধু এবং তাঁর পরিবারের সদস্যদের বিদেহী আত্মার প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শন করে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। সভার মুখ্য আলোচক ছিলেন ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক আবু হাসনাৎ রফিকুল ইসলাম। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক কমিটির আহ্বায়ক ও ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. ইয়াসমীন আকতার সারমিন, শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক প্রফেসর আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ ও উপাধ্যক্ষ প্রফেসর ওলিউর রহমান। আলোচনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুল খালেক।

আরইউজে

জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর শাহাদৎ বার্ষিকী উপলক্ষে রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১২ টায় ইউনিয়ন কার্যালয়ে আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক তানজিমুল হক।

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট সাংবাদিক আহম্মেদ শফিউদ্দিন। এতে বক্তব্য রাখেন সভাপতি রফিকুল ইসলাম, বিএফইউজের যুগ্ম মহাসচিব রাশেদ রিপন, সদস্য বদরুল আলম লিটন, রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা তৈয়বুর রহমান।

বিএমডিএ

যথাযথ মর্যাদায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৮তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন করেছে বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিএমডিএ)। গতকাল মঙ্গলবার বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের প্রধান কার্যালয় রাজশাহী বরেন্দ্র ভবনে ও সকল জোন ও রিজিওন অফিসে পালন করা হয় এ দিবসটি। এছাড়া এদিন বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ, প্রধান কার্যালয়সহ আওতাধীন স্ব-স্ব দপ্তরে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করা হয়। বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী পরিচালক আব্দুর রশীদ এর নেতৃত্বে দিবসের কর্মসূচিতে রাজশাহী নগরীর সিএণ্ডবি মোড়ে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু চত্বরে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্প অর্পণ করা হয়। পরে বিএমডিএ সম্মেলন কক্ষে বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ শীর্ষক আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিল ও বঙ্গবন্ধুর স্মৃতির উপর ভিডিও স্লাইড প্রদর্শন করা হয়।

বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ শীষক আলোচনা সভার শুরুতে ১৫আগষ্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবার পরিজনসহ সকল শহীদরের রুহের মাগফিরাত কামনা করে ১মিনিট নিরবতা ও দোয়া অনুষ্টিত হয়। প্রধান অতিথি ছিলেন বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিএমডিএ) নির্বাহী পরিচালক আব্দুর রশীদ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অতি. প্রধান প্রকৌশলী শামসুল হোদা। বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ শীষক আলোচনা সভা সঞ্চালনা করেন নির্বাহী প্রকৌশলী নাজমুল হুদা। এসময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অতি: প্রধান প্রকৌশলী ড.আবুল কাসেম, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী শরীফুল হক, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আব্দুল লতিফ,বিএমডিএ সচিব তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী শিবির আহমেদ, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী এ.টি.এম মাহফুজুর রহমান, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী শহিদুর রহমান, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী নাজিরুল ইসলাম, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী জীন নুরাইন খান, নির্বাহী প্রকৌশলী সানজিদা খানম মলি, নির্বাহী প্রকৌশলী নাজমুল হুদা,মুক্তাদিউর রহমান সভাপতি, বঙ্গবন্ধু কৃষিবিদ পারিষদ, রাহাত পারভেজ, সাধারণ সম্পাদক, বিএমডিএ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যাসোসিয়েশন, বিএমডিএ কর্মচারী লীগ, রাজ-৩০৪২ সিবিএ সভাপতি মেসবাউল হক, বিএমডিএ কর্মচারী ইউনিয়ন সভাপতি আব্দুল সাত্তার সহ বরেন্দ্র উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সদর দপ্তর ও অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী, তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী, প্রকল্প পরিচালক, নির্বাহী প্রকৌশলী, উপ-ব্যবস্থাপক (কৃষি), মনিটরিং অফিসার ও সহকারী প্রকৌশলীবৃন্দ সহ সকলে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।এছাড়া বিএমডিএ জামে মসজিদে স্বাস্থ্যবিধি মেনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবার পরিজনের রুহের মাগফেরাত কামনা করে বাদ যোহর বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

রাজশাহী চেম্বার

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির উদ্যোগে দিনব্যাপি কুরআন খতম, দোয়া এবং দরিদ্র ও অসহায়দের মাঝে খাবার বিতরণের করা হয়। গতকাল মঙ্গলবার আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন রাজশাহী মহানগর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শাহীন আকতার রেণী। দুপুর পৌনে ২ টায় দোয়া অনুষ্ঠিত হয় এবং দোয়া শেষে দরিদ্র ও অসহায়দের মাঝে দুপুরের খাবার বিতরণ করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সম্মানিত সভাপতি মাসুদুর রহমান রিংকু এবং আরও উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল আওয়াল খান চৌধুরী, সহ-সভাপতি সুলতান মাহমুদ সুমন, রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির পরিচালকবৃন্দ শাহাদৎ হোসেন,সাদরুল ইসলাম, রিয়াজ আহমেদ খান, হারুন উর রশীদ, আসাদুজ্জামান রবি, সাজ্জাদ আলী, মোস্তাফিজুর রহমান এবং সাবেক পরিচালক আতিকুর রহমান, এম শরীফ এবং রাজশাহী ওয়েব এর সভাপতি আঞ্জুমান আরা পারভীন লিপি, ২০ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রবিউল ইসলাম সরকার, চেম্বার সচিবালয়ের সচিব মুয়াক্ষেরুল হুদা ও সহকারী সচিব আব্দুল্লাহ আল ইয়াসিনসহ চেম্বারের অন্যান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

কাশিয়াডাঙা কলেজ

নগরীর পশ্চিম প্রান্তে অবস্থিত কাশিয়াডাঙা কলেজে আয়োজিত কর্মসূচির মধ্যে ছিল মাসব্যাপী শোক ব্যানার প্রদর্শন ও কালোব্যাজ ধারণ, শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে ‘বক্সগবন্ধু ও বাংলাদেশ’ শিরোনামে রচনা প্রতিযেগিতা, ১৫ আগস্ট সূর্যোদয়ের পর জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ ও কালো পতাকা উত্তোলন, সকাল ৯টায় বক্সগবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। শ্রদ্ধা নিবেদন করেন কলেজ গভর্নিং বডির সভাপতি আবু সালেহ ও কলেজের অধ্যক্ষ আবদুল করিমসহ শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মচারীরা। পরে আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন কলেজের অধ্যক্ষ আবদুল করিম শাহু। আলোচনায় অংশ নেন সহকারী অধ্যাপক বেগম নারগীস আরা, জ্যেষ্ঠ প্রভাষক মাহবুবুর রহমান, জ্যেষ্ঠ প্রভাষক খন্দকার আতাউল হক বিটু প্রমুখ। দোয়া মহফিল পরিচালনা করেন জ্যেষ্ঠ প্রভাষক মজিবুর রহমান। সঞ্চালনায় ছিলেন শরীরচর্চা শিক্ষক দিলারা জাহান।

মহিলা কলেজ

রাজশাহী সরকারি মহিলা কলেজ এর উদ্যোগে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর ৪৮তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালন করেছে মহিলা কলেজ। এ উপলক্ষে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয়। সকাল ৮ টায় কলেজের সকল শিক্ষক এবং কর্মচারি কালোব্যাজ ধারণ করেন। সকাল ৯ টায় শোক র‌্যালি এবং সকাল সাড়ে ৯ টায় কলেজ চত্বরে স্থাপিত জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ শেষে ১ মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপর রাজশাহী সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. জুবাইদা আয়েশা সিদ্দীকা প্রধান অতিথি বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর রুহুল আমিন প্রামাণিককে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর উপরে চিত্র প্রদর্শনী ও শেখ রাসেল দেয়ালিকার মোড়ক উন্মোচন করেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর জীবনী নিয়ে নির্মিত প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শিত হয়। পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত ও গীতা পাঠের মাধ্যমে আলোচনা সভা শুরু হয়। এই আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন এ কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. জুবাইদা আয়েশা সিদ্দীকা। সার্বিক সমন্বয়ক হিসেবে ছিলেন কলেজের উপাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. নাজনীন সুলতানা। আরও উপস্থিত ছিলেন এডুকেশন ক্যাডার্স কাউন্সিলের সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন মোল্লা, সকল বিভাগীয় প্রধান এবং অন্যান্য শিক্ষক ও কর্মচারিবৃন্দ।

বাউবি

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এঁর ৪৮তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে গতকাল মঙ্গলবার বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় (বাউবি) রাজশাহী আঞ্চলিক কেন্দ্রের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ আঞ্চলিক কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি পালন করেন। কর্মসূচির শুরুতেই ভোর পোনে ৬ টায় জাতীয় পতাকা অর্থ-নমিত ও কালো পতাকা উত্তোলন, দিনব্যাপী ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ, শোকের গান ও কবিতা পিএ সিস্টেম/সাউন্ড সিস্টেমের মাধ্যমে প্রচার, ১০ টায় নওহাটা পৌরসভা চত্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এঁর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণের মাধ্যমে বিনম্র শ্রদ্ধা নিবেদন, ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবার এবং ঐ দিনে শাহাদত বরণকারী সকল শহীদদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া মাহফিল আঞ্চলিক পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) আবু বাককারের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

রেশম উন্নয়ন বোর্ড

স্বাধীনতার মহান রুপকার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানএঁর ৪৮তম শাহাদত বার্ষিকীতে জাতীয় শোক দিবস যথাযথ মর্যাদায় ও ভাবগম্ভীর পরিবেশে পালন করা হয়। জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখার মাধ্যমে জাতীয় শোক দিবসে গৃহীত কর্মসূচির সূচনা করা হয়। সকাল ১০ টায় ড. এম. এ মান্নান, মহাপরিচালক (ভারপ্রাপ্ত), বাংলাদেশ রেশম উন্নয়ন বোর্ডের নেতৃত্বে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এরপর বোর্ড প্রধান কার্যালয় চত্ত্বওে বৃক্ষরোপণ করা হয়। আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বঙ্গমাতাসহ পরিবারের সকল শহিদদেও আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া করা হয়।

রেশম গবেষণা ও প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট, রাজশাহীর জামে মসজিদে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। আলোচনা ও শোকসভায় ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট নির্মম হত্যাকান্ডের তীব্র নিন্দা জানিয়ে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠবাঙালি স্বাধীনতার প্রধান স্থপতি জাতির পিতার মহান আত্মত্যাগের উপর আলোকপাত করা হয়। শোকসভায় বাংলাদেশ রেশমউন্নয়ন বোর্ডেও পরিচালক (উৎপাদন ও বিপণন) নাছিমা খাতুন, পরিচালক (সম্প্রসারণ) ্ও পরিচালক(প্রশাসন) অ:দা: মোহাম্মদ এমদাদুল বারী, পরিচালক(গবেষণা ও প্রশিক্ষণ) মামুনুর রশিদ ,সিবিএস সভাপতি আবু সেলিম বক্তব্য দেন। এ সময় বোর্ড প্রধানকার্যালয়, রেশম গবেষণা ও প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট, আঞ্চলিক কার্যালয় রাজশাহী ও পি৩ কেন্দ্রে কর্মরত ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

কোর্ট একাডেমী

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর ৪৮তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালন করেছে রাজশাহী কোর্ট একাডেমী। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি রফিকুজ্জামান বেল্টু। সভায় শিক্ষকবৃন্দ, শিক্ষার্থীসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ বক্তব্য রাখেন। পরে সকল শহিদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া করা হয়।

রূপালী ব্যাংক

জাতীয় শোক দিবস ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৮তম শাহাদৎ বার্ষিকী উপলক্ষে রূপালী ব্যাংক লিমিটেড, রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের উদ্যোগে দিনব্যাপি কর্মসূচি পালন করা হয়। কর্মসূচির মধ্যে ছিল শোক র‌্যালি, সিএন্ডবি মোড়স্থ বঙ্গবন্ধু ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ, ডোনার ক্লাবের সহযোগিতায় ব্যাংক কর্মকর্তাদের স্বেচ্ছায় রক্তদান, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল এবং এতিমদের মাঝে উন্নতমানের খাবার বিতরণ। সকল কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের মহাব্যবস্থাপক ও বিভাগীয় প্রধান আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ সহ অন্যান্য কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ।

কারিতাস

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে কারিতাস আলোকিত শিশু প্রকল্পের উদ্যোগে আলোাচনা সভা ও পুরুস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। গতকাল মঙ্গলবার আলোকিত শিশু প্রকল্পের ডিআইসিতে (পদ্মা আবাসিক) কার্যালয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কারিতাসের রাজশাহী অঞ্চল পরিচালক ডেভিড হেম্ব্রম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী টিচার ট্রেনিং কলেজের প্রক্তন প্রেন্সিপাল আব্দুস সামাদ মন্ডল। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আলোকিত শিশু প্রকল্পের পদ্মা শিশু সুরক্ষা কমিটির সভাপতি জয়নাল আবেদীন (চাঁদ)।

আরো উপস্থিত ছিলেন আলোকিত শিশু প্রকল্পের কর্মসূচি কর্মকর্তা র‌্যান্সি রুথ হাঁসদা, ও প্রকল্পের মাঠ কর্মকর্তাগণ। সভা পরিচালনা করেন ফরিদুল ইসলাম জুনিয়র কর্মসূচি কর্মকর্তা (আলোকিত শিশু প্রকল্প)। আলোচনা শেষে বঙ্গবন্ধুর ছবি চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় পথশিশুদের মাঝে পুরস্কার ও ভালো খাবার প্রদান করে দোয়ার মাধ্যমে অনুষ্ঠান শেষ হয়।

অসকস

জাতীয় শোক দিবস ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৮তম শাহাদৎ বার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল মঙ্গলবার রাজশাহী জেলা অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারি কল্যাণ সমিতির উদ্যোগে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। নগরীর কফিবারে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলী। সভায় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ ও বঙ্গবন্ধুসহ সকল শহিদদের আত্মার শান্তি কামনা করে দোয়া করা হয়। সভা সঞ্চালনা করেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক।

শাপলা

বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা শাপলা গ্রাম উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৮তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯ রাজশাহীস্থ প্রধান কার্যালয়ের কনফারেন্স হলে গভীর শ্রদ্ধার সাথে উদযাপিত হয়। কর্মসূচির শুরুতে সংস্থার প্রধান কার্যালয়ের নেতৃত্বে র‌্যালিসহ রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় প্রাঙ্গণে অবস্থিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়। অতঃপর জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দোয়া ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শাপলা গ্রাম উন্নয়ন সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী পরিচালক মোহসিন আলী। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এইচআরডি সমন্বয়কারী জাহাঙ্গীর আলম, হিসাব সমন্বয়কারী রনজিৎ কুন্ডু, সমৃদ্ধি সমন্বয়কারী আলীনুর হোসেন এবং সংস্থার বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও কর্মীবৃন্দ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন কালচারাল ম্যানেজার ইমরুল আসাদ। সভার শুরুতে ১৫ আগষ্টে বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবার ও অন্যান্য শাহাদত বরণকারীদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে দাড়িঁয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। সবশেষে শাহাদতবরণকারী জাতির পিতাসহ তার পরিবারের সদস্যবৃন্দ ও অন্য শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে দোয়া পরিচালনা করে আলোচনা শেষ করা হয়।

সোনালী/জগদীশ রবিদাস