ঢাকা | জুলাই ১৭, ২০২৪ - ৭:০৯ অপরাহ্ন

পুঠিয়ায় ছাত্রলীগ নেতাকে কোপানোর অভিযোগ

  • আপডেট: Friday, August 11, 2023 - 6:55 pm

পুঠিয়া প্রতিনিধি: মোবাইল ফোন ছিনতাইকে কেন্দ্র করে পুঠিয়া পৌর ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক হোসেনকে (২২) রামদা দিয়ে কোপানোর অভিযোগ উঠেছে চিহ্নিত কিশোর গ্যাং নেতা সাব্বিরের বিরুদ্ধে। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় গুরুতর আহত ওই ছাত্রলীগ নেতাকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

শুক্রবার ২টার দিকে পৌরসভার পূর্ব কাঁঠালবাড়িয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ছাত্রলীগ নেতা মোস্তাক সদরের কাঁঠালবাড়িয়া (ঢাকাপাড়ার) গ্রামের হাকিম আলীর ছেলে। আর অভিযুক্ত কিশোর গ্যাং নেতা সাব্বির হোসেনের (২৩) পূর্ব-কাঠালবাড়িয়া গ্রামের সাবেক সেনা সদস্য বাবলু আলীর ছেলে।

আহত মোস্তাক বলেন, দুইদিন আগে তার বন্ধু মিজানুরের একটি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয় সাব্বির। শুক্রবার দুপুরে সেই ফোন উদ্ধারের জন্য তার বাড়িতে গেলে সাব্বির ও তার দুইজন সহযোগি প্রথমে মারধর করে। এরপর হাতের উপর রামদা দিয়ে কোপ দেয়। এরপর তাকে আহত অবস্থায় তার বন্ধুরা পুঠিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। অভিযুক্ত সাব্বির পলাতক ও ফোন বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

স্থানীয় ও থানার দেয়া তথ্যমতে, অভিযুক্ত সাব্বিরের ‘সেভেন স্টার গ্রুপ’ নামে একটি কিশোর গ্যাং রয়েছে। ওই গ্যাং এর সদস্যরা মাদক ব্যবসা, চুরি, ছিনতাই ও চলন্ত ট্রাক থেকে বিভিন্ন মালামাল লুট করে। তাদের বিরুদ্ধে পুঠিয়াসহ বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। সম্প্রতি সাব্বির চলন্ত ট্রাক থেকে বিভিন্ন মালামাল লুটের মামলায় জামিনে বের হয়ে এসেছে।

এ ব্যাপারে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফারুক হোসেন বলেন, রামদা দিয়ে সাব্বির মোস্তাক নামে একজনকে কোপ দিয়েছে এমন ঘটনা শুনেছি। আহত মোস্তাক বর্তমানে চিকিৎসাধিন আছে। আর তার পরিবার থেকে থানায় যোগাযোগ করেছে। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সোনালী/জেআর