ঢাকা | জুলাই ১৮, ২০২৪ - ৭:৫৪ অপরাহ্ন

তানোরে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন

  • আপডেট: Sunday, July 30, 2023 - 10:15 pm

তানোর প্রতিনিধি: রাজশাহীর তানোরে যৌতুকের দাবিতে এক গৃহবধূকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন ও বেধড়ক পিটিয়ে আহত করে মুখে বিষ ঢেলে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে।

মুমূর্ষু অবস্থায় ওই গৃহবধূকে প্রতিবেশীরা উদ্ধার করে তানোর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। তবে ওই গৃহবধূ এখনো শঙ্কামুক্ত নয়। গত শুক্রবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে তানোর পৌর এলাকার চাপড়া মহল্লায়। এ ঘটনায় গৃহবূু বাদি হয়ে স্বামীর বিরুদ্ধে তানোর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ ও প্রতিবেশী সুত্রে জানা গেছে, গত ২ বছর আগে তানোর উপজেলার তালন্দ ইউপির কালনা গ্রামের এমাজ উদ্দিনের কন্যা এরিনা পারভিনের (২০)’ সাথে তানোর পৌর এলাকার চাপড়া মহল্লার মৃত আব্দুল লতিফের পুত্র হাবিবুর রহমানের (২৫)’ বিয়ে হয়। তাদের একটি সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকে স্বামী হাবিবুর কারনে অকারণে স্ত্রী এরিনা মারপিট ও নির্যাতন করেন।

গত শুক্রবার সকালে স্বামী হাবিবুর তার স্ত্রী এরিনাকে বাবার বাড়ি থেকে কিছু টাকা আনতে বলেন। এসময় এরিনা বাবার বাড়ি থেকে টাকা আনতে অস্বিকৃতি করলে স্বামী হাবিবুর ও শ্বাশুড়ি পারুল বিবি কিল ঘুষি ও লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারপিট করেন। বেধড়ক মারপিটে গৃহবধূর বাম চোখ নষ্ট হওয়ার মত অবস্থাসহ শরীরের বিবিন্ন স্থানে সিরা ফোলা ও কালশিরা জখমের সৃষ্টি হলে তার স্বামী ও গৃহবধুর মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়।

এসময় গৃহবধুর চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে ওই গৃহবধুকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে তানোর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় শুক্রবার সন্ধ্যায ওই গৃহবধূ বাদি হয়ে স্বামী ও শ্বাশুড়িকে আসামি করে তানোর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

তবে, তানোর থানা পুলিশ এঘটনায গত শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি বলে অভিযোগ করেছেন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গৃহবধূ এরিনা পারভিন। এ বিষয়ে তানোর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুর রহিম বলেন, অভিযোগ হলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সোনালী/জেআর