ঢাকা | এপ্রিল ২০, ২০২৪ - ৭:৩৮ অপরাহ্ন

যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্র, মানবাধিকার নিয়েও প্রশ্ন রয়েছে

  • আপডেট: Wednesday, July 26, 2023 - 9:00 am

অনলাইন ডেস্ক: শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গত ১৫ বছর বাংলাদেশে অভূতপূর্ব উন্নয়নের প্রশংসা করে মার্কিন কংগ্রেসে পররাষ্ট্রবিষয়ক কমিটির র‌্যাংকিং মেম্বার এবং কংগ্রেসনাল ব্ল্যাক ককাসের চেয়ারপারসন কংগ্রেসম্যান গ্রেগরি মিক্স বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্র নিয়েও নানান প্রশ্ন রয়েছে।

ডোনাল্ড ট্রাম্পের অগণতান্ত্রিক আচরণে এমন অবস্থা তৈরি হয়েছে। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে আমি সব সময় সোচ্চার। কারণ সব দেশের জন্যই মানবাধিকার সুরক্ষার ব্যাপারটি গুরুত্বপূর্ণ।

গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানকে সুসংহত করতে আমরা নিরন্তর কাজ করছি। একইভাবে বাংলাদেশকেও সুপরিকল্পিতভাবে কাজ করে গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান মজবুত করতে হবে। গণতন্ত্র যথাযথ কাজ করলেই মানুষের জীবনমানের উন্নয়ন ঘটানো সহজ হয়, উন্নয়নের অভিযাত্রা ত্বরান্বিত হয়।

কুইন্স থেকে টানা ১৩ বারের নির্বাচিত কংগ্রেসম্যান (ডেমোক্র্যাট) গ্রেগরি মিক্স ২৪ জুলাই সন্ধ্যায় প্রবাসী বাংলাদেশিদের সঙ্গে সমসাময়িক প্রসঙ্গে এক মতবিনিময় অনুষ্ঠানে আরও বলেন, সাফল্যের অনেক গল্প রয়েছে বাংলাদেশের।

গত ১৫ বছরে দেশটি নিতান্তই গরিব থেকে মাঝারি আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র হচ্ছে বাংলাদেশের বৃহত্তম বাণিজ্যিক পার্টনার। বাংলাদেশে আমরা ইউএসএআইডি অব্যাহত রেখেছি।

এবং আমরা দেখতে পাচ্ছি বাংলাদেশ গ্রোয়িং, গেটিং স্ট্রঙ্গার এবং অনেক গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে অধিষ্ঠিত হচ্ছে। করোনা মহামারির মধ্যেও বাংলাদেশ অর্থনৈতিকভাবে খুবই শক্তিশালী ছিল।

অনুষ্ঠানের চেয়ারম্যান ডেমোক্র্যাট মোর্শেদ আলম স্বাগত বক্তব্য দেন। এ ছাড়া বক্তব্য দেন অনুষ্ঠানের ভাইস চেয়ার যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক ও ডেমোক্র্যাটিক পার্টির ন্যাশনাল কমিটির (ডিএনসি) অন্যতম সদস্য নিজাম চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম-মুক্তিযুদ্ধ ’৭১-এর সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা লাবলু আনসার, বাংলাদেশি-আমেরিকান ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্টের প্রেসিডেন্ট খোরশেদ খন্দকার প্রমুখ।

সোনালী/জেআর