ঢাকা | এপ্রিল ২১, ২০২৪ - ৯:০৬ পূর্বাহ্ন

জ্বরের পরে মুখে অরুচি ভাব? কাটাতে কী খাবেন

  • আপডেট: Friday, July 21, 2023 - 12:00 pm

অনলাইন ডেস্ক: যেকোনো মৌসুমে জ্বর দেখা দিলেও বর্ষায় এর প্রকোপ বেড়ে যায়। ঘরে ঘরে এখন রোগী। জ্বর , সর্দি, কাশি থেকে শুরু করে দেখা দিচ্ছে নানা জটিলতা।

এই সময় সুস্থ থাকতে কী করবেন বুঝে উঠতে পারছেন না কেউই। সতর্ক থাকা সত্ত্বেও জ্বরে ভুগছেন অনেকে।

বেশিরভাগ জ্বরের একটি উপসর্গ হলো জিভে তিক্ত স্বাদ। এই উপসর্গে কোনও খাবারই খেতে রোগীর ভালো লাগে না। সব খাবারেই সে তেতো ভাব টের পায়।

ফলে কোনও খাবারের আলাদা করে স্বাদ তার জিভে লাগে না। এ কারণে সে খেতেও চায় না। এ পরিস্থিতিতে জ্বর হলে এবং জিভের স্বাদ তেতো হলে স্বাদ ফেরাতে কিছু খাবার খেতে পারেন।

টমেটো স্যুপ: টমেটোর স্যুপ যেমন সুস্বাদু তেমনি স্বাস্থ্যের জন্যও উপকারী। এটি ভিটামিন সমৃদ্ধ। এই স্যুপ পান করলে জিভের তিক্ততা কমতে শুরু করে। আপনি ২৪ ঘন্টার মধ্যে দুই কাপ স্যুপ পান করতে পারেন।

লবণ পানি দিয়ে কুলকুচি করা: মুখের স্বাদ খারাপভাবে প্রভাবিত হয়। এই সমস্যা দূর করতে হালকা গরম পানিতে লবণ মিশিয়ে দিনে ২ থেকে ৩ বার কুলিকুচি করতে পারেন।

অ্যালোভেরার রস: অ্যালোভেরার রসের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্য মুখের তিক্ততা দ্রুত দূর করতে পারে।

মধু : জ্বরে মধুর গুণে উপকার পেতে পারেন। এক চা চামচ মধু নিন। এতে অর্ধেক পরিমাণে লেবুর রস মেশান। এবার গরম পানি ঢেলে দিন। চায়ের মতো করে খেয়ে নিন। মিশ্রণটি দিনে মাত্র ২ বার খেলেই উপকার পাবেন। এটি শরীরকে ব্যাকটেরিয়ার সঙ্গে লড়াই করতে সাহায্য করে।

তুলসি পাতা: মুখের স্বাদ ফেরাতে তুলসি পাতা খেতে পারেন। তুলসি পাতা নিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিন। পানিতে গরম হতে দিন। এতে এই পাতা গিয়ে ফুটিয়ে নন। পানির রং বদলে গেলে তা ছেঁকে নিন। এই পানি চায়ের মতো পান করুন। এতে থাকা অ্যান্টি ব্যাকটেরিলায়ল ও অ্যান্টিবয়োটিক উপাদান সর্দি, কাশি,জ্বর, গলার সমস্যা, ব্রংকাইটিসের সমস্যা পর্যন্ত দূর করে। এছাড়াও এতে থাকা অ্যান্টি ব্যকটেরিয়াল উপাদান শরীরকে জীবাণুক সঙ্গে লড়াই করতে প্রস্তুত করে।

সোনালী/জেআর