ঢাকা | এপ্রিল ২৩, ২০২৪ - ১:৩৬ অপরাহ্ন

হলে নিষিদ্ধ যেসব ছবি ওটিটিতে রমরমা

  • আপডেট: Sunday, June 25, 2023 - 10:53 pm

অনলাইন ডেস্ক: এমন অনেক সিনেমা রয়েছে যার উপর সেন্সর বোর্ডের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও সেগুলো বহাল তবিয়তে ওটিটি প্ল্যাটফর্মে বিরাজ করছে।

২০১৫ সালের ২৯ মে উত্তর আমেরিকায় মুক্তি পায় ভারতীয় ছবি ‘আনফ্রিডম’। এই ছবির পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন রাজ অমিত কুমার। উত্তর আমেরিকায় মুক্তি পেলেও সেন্সর বোর্ড এই ছবিটি ভারতের কোনও প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে।

সেন্সর বোর্ডের দাবি, ‘আনফ্রিডম’ ছবিতে এমন কিছু সাহসী দৃশ্য রয়েছে যা সব দর্শকের কাছে গ্রহণযোগ্য নয়। সমকামিতার সম্পর্কের পাশাপাশি এই ছবিতে সন্ত্রাসবাদের ছবিও ফুটে উঠেছে।

‘আনফ্রিডম’ ছবিতে অভিনয় করেছেন আদিল হুসেন, ভিক্টর বন্দ্যোপাধ্যায়, প্রীতি গুপ্ত এবং ভবানী লি। প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির অনুমতি না পেলেও এই ছবিটি দেখতে পাওয়া যাবে নেটফ্লিক্সে। যদিও ভারতের নেটফ্লিক্স ব্যবহারকারীরা এই ছবিটি দেখতে পাবেন না।

আরও একটি বিতর্কিত ছবি রয়েছে নেটফ্লিক্সে। কৌশিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরিচালনায় (যিনি কিউ নামে অধিক পরিচিত) ‘গারবেজ’ ছবিটি।

২০১৮ সালে বার্লিন আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে প্রথম দেখানো হয় ‘গারবেজ’ ছবিটি। এই ছবিতে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছে ত্রিমালা অধিকারী, তন্ময় ধননিয়া, শতরূপা দাস-সহ অন্য তারকাদের।

আন্তর্জাতিক স্তরে প্রশংসা পেলেও ‘গারবেজ’ ছবিটি ভারতের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়নি। সেন্সর বোর্ডের দাবি, ধর্মের সঙ্গে যৌনতাকে এমন ভাবে দেখানো হয়েছে যা অশোভনীয়।

এমনকি, ‘গারবেজ’ ছবিতে যৌনতার নানা দিক তুলে ধরতে এমন কিছু দৃশ্যের ব্যবহার করা হয়েছে যা আপত্তিকর বলে মনে করেছে সেন্সর বোর্ড। সেই কারণে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির অনুমতি দেয়নি সেন্সর বোর্ড। বর্তমানে নেটফ্লিক্স থেকে দেখতে পাওয়া যায় ‘গারবেজ’ ছবিটি।

সুধাংশু সারিয়ার পরিচালনায় এবং প্রযোজনায় মুক্তি পায় রোম্যান্টিক ঘরানার ছবি ‘লভ’। ধ্রুব গণেশ এবং শিব পণ্ডিত নামের দুই অভিনেতা এই ছবিতে অভিনয় করেছেন।

২০১৫ সালে প্রথম ‘লভ’ ছবিটি এস্টোনিয়ার একটি চলচ্চিত্র উৎসবে দেখানো হয়। ২০১৬ সালে উত্তর আমেরিকার চলচ্চিত্র উৎসবের পাশাপাশি মুম্বই চলচ্চিত্র উৎসবেও ছবিটি দেখানো হয়।

‘লভ’ ছবিটিতে দুই সমকামী পুরুষের সম্পর্কের টানাপড়েন ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। সেন্সর বোর্ড এই ছবিটি ভারতের কোনও প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির অনুমতি দেয়নি। ২০১৭ সালের মে মাসে এই ছবিটি নেটফ্লিক্সে মুক্তি পায়। কিন্তু ভারতীয় দর্শক এই ছবিটি দেখতে পাবেন না।

বলি পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপের একটি ছবিও সেন্সর বোর্ডের তরফে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির অনুমতি পায়নি। ২০০৩ সালে জার্মানির হামবার্গের চলচ্চিত্র উৎসবে প্রথম দেখানো হয় ‘পাঁচ’ ছবিটি।

অনুরাগের পরিচালনায় ‘পাঁচ’ ছবিতে অভিনয় করেছেন কেকে মেনন, আদিত্য শ্রীবাস্তব, জয় ফার্নান্ডেজ়, বিজয় মৌর্য এবং তেজস্বিনী কোলাপুরের মতো তারকা। পুণের জোশী-অভয়ঙ্কর হত্যাকাণ্ডের উপর ভিত্তি করে এই ছবির চিত্রনাট্য নির্মাণ করা হয়েছিল।

তবে ১৯৭৬-’৭৭ সালের হত্যাকাণ্ডের ঘটনা পর্দায় ফুটিয়ে তুলতে বহু জায়গায় অত্যধিক হিংসাত্মক দৃশ্যের ব্যবহার করা হয়েছে বলে মনে করেছে সেন্সর বোর্ড। সেন্সর বোর্ডের মতে, এই দৃশ্যগুলি দর্শকের মনে খারাপ প্রভাব ফেলতে পারে, তাই প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির অনুমতি দেওয়া হয়নি। বিদেশে যাঁরা নেটফ্লিক্স ব্যবহার করেন, তাঁরাই এই ছবিটি ওটিটি প্ল্যাটফর্ম থেকে দেখতে পান। সূত্র: আনন্দবাজার

সোনালী/জেআর