ঢাকা | এপ্রিল ১৫, ২০২৪ - ৯:৫০ অপরাহ্ন

‘কোনো দল নির্বাচনে অংশ নেবে কিনা তা নিয়ে মাথা ব্যথা নেই যুক্তরাষ্ট্রের’

  • আপডেট: Friday, May 26, 2023 - 6:35 pm

অনলাইন ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্র জানিয়েছে, আগামী জাতীয় নির্বাচনে কোনো রাজনৈতিক দল অংশগ্রহণ করবে কিনা তা বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (২৫ মে) দুপুরে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন।

বাংলাদেশের জাতীয় নির্বাচনে রাজনৈতিক দলগুলোর অংশগ্রহণের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পদক্ষেপের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার বলেন, আগামী নির্বাচনে কোনো রাজনৈতিক দল অংশ নেবে কিনা তা বাংলাদেশের একান্তই অভ্যন্তরীণ বিষয়। এ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের কোনো মাথাব্যথা নেই।

তবে বাংলাদেশে আগামী নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ দেখতে চায় যুক্তরাষ্ট্র। একইসঙ্গে মার্কিন সরকারের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা নতুন ভিসানীতি বাংলাদেশে স্বাগত জানানোয় যুক্তরাষ্ট্র খুশি হয়েছে বলেও জানিয়েছে দেশটি।

মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার আরও বলেন, বাংলাদেশের অভ্যন্তরে কোনো রাজনৈতিক দলের কী করা উচিত বা কী করা উচিত নয় সে বিষয়ে আমি কোনও কথা বলব না। আমি যেটা বলব, তা হলো- বাংলাদেশে অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনকে সমর্থন করে যুক্তরাষ্ট্র। আর এ কারণেই আমরা গতকাল বাংলাদেশের নির্বাচন ইস্যুতে নতুন ভিসানীতি ঘোষণা করেছি।

তিনি আরও বলেন, গতকাল মার্কিন সরকারের পক্ষ থেকে যে ঘোষণা আমরা দিয়েছি সেটাকে (বাংলাদেশ থেকে) স্বাগত জানানোয় আমরা আনন্দিত হয়েছি। আমরা বিশ্বাস করি, শান্তি, সমৃদ্ধি এবং নিরাপত্তার অগ্রগতির জন্য সবচেয়ে স্থায়ী উপায় হচ্ছে গণতন্ত্র।

ম্যাথিউ মিলার বলেন, এই কারণেই আমরা এই ঘোষণা দিয়েছি এবং উভয় দেশের সম্পর্ক এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য আমরা বাংলাদেশ সরকারের সাথে কাজ করার জন্য উন্মুখ হয়ে আছি।

এর আগে বাংলাদেশে অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ জাতীয় নির্বাচনের স্বার্থে এক নতুন ভিসা নীতির কথা ঘোষণা করে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন গত বুধবার এ কথা ঘোষণা করেন।

এই নীতির আওতায় যে কোন বাংলাদেশি ব্যক্তি যদি দেশে গণতান্ত্রিক নির্বাচনের প্রক্রিয়া ব্যাহত করার জন্য দায়ী হন বা এরকম চেষ্টা করেছেন বলে প্রতীয়মান হয় – তাহলে যুক্তরাষ্ট্র তাকে ভিসা দেয়ার ওপর বিধিনিষেধ আরোপ করতে পারবে।

বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় নির্বাচনে বাধা দিতে কিংবা ক্ষতিগ্রস্ত করতে চায় এমন কাউকে নতুন এই পলিসি অনুযায়ী ভিসা দেয়া হবে না বলেও জানান ম্যাথিউ মিলার।

সোনালী/জেআর