ঢাকা | এপ্রিল ২১, ২০২৪ - ৮:৫৮ পূর্বাহ্ন

মোবাইল রেখে লাপাত্তা চাঁদ, ক্ষমা চাইলেন মিনু

  • আপডেট: Tuesday, May 23, 2023 - 7:00 pm

অনলাইন ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দেয়ার অভিযোগে রাজশাহী জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সাঈদ চাঁদের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবিরোধী আইনে হয়েছে একাধিক মামলা। মামলা হওয়ার পর থেকে তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

তিনি তার মোবাইল বাড়িতে রেখে পলাতক বলে জানিয়েছে রাজশাহী জেলা পুলিশ।

এদিকে, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু চাঁদের বক্তব্যকে ‘অনিচ্ছাকৃত ভুল’ আখ্যা দিয়ে ক্ষমা চেয়েছেন। রাজশাহীর স্থানীয় সাংবাদিকদের ফোন করে তিনি বলেন, ‘রাজনৈতিক সভাগুলোতে ভাষণ দেওয়ার সময় এ ধরনের ঘটনা ঘটে, ভুল হয়। চাঁদ আবেগের বশবর্তী হয়ে ভুল করেছে, তার জন্য আমি সবার কাছে ক্ষমা চাইছি।’

পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশের বেশ কয়েকটি দল গত সোমবার রাতে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালালেও অভিযুক্ত বিএনপি নেতা চাঁদকে এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

রাজশাহীর পুলিশ সুপার এ বি এম মাসুদ হোসেন মঙ্গলবার গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমরা তাকে খুঁজে পাইনি। বাড়িতে মোবাইল ফোন রেখে আত্মগোপনে চলে গেছেন তিনি। তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রেখেছি।’

রোববার (২১ মে) দিবাগত রাত সোয়া ১২টার দিকে বানেশ্বর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ বাদী হয়ে পুঠিয়া থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

মামলায় আজাদ অভিযোগ করেন, গত ২০ মে শিবপুরহাট স্কুল মাঠে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমানের উপস্থিতিতে জনসভায় বক্তব্য দেয়ার সময় সভার সভাপতি বিএনপি নেতা চাঁদ প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি দেন।

মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে পুঠিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফারুক হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কবরে পাঠানো ছাড়া বিএনপির আর কোনো দাবি নেই এমন বক্তব্য দিয়েছিলেন বিএনপি নেতা চাঁদ।

পরে নেত্রকোণা জেলার একটি আদালতে একই ধরনের আরেকটি মামলা দায়ের করা হয়।

একই সঙ্গে সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দেয়ায় চাঁদের বিরুদ্ধে কী পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে, তা জানাতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

আওয়ামী লীগ ও এর অনুগত সংগঠনগুলো সোমবার বিকেলে চাঁদের বক্তব্যের প্রতিবাদে ও তার গ্রেপ্তার দাবিতে দেশব্যাপী বিক্ষোভ করে।

সোনালী/জেআর