ঢাকা | এপ্রিল ২৩, ২০২৪ - ১:২৫ অপরাহ্ন

আপিলে তিন মেয়র প্রার্থীসহ পাঁচজনের মনোনয়নপত্র বাতিল

  • আপডেট: Tuesday, May 23, 2023 - 5:39 pm

অনলাইন ডেস্ক: খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আপিল শুনানি শেষে প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন এক মেয়র প্রার্থীসহ তিনজন।

তবে তিন মেয়র প্রার্থীসহ ৫ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। মঙ্গলবার ৮ জন প্রার্থীর আপিল শুনানি করেন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার মো. জিল্লুর রহমান চৌধুরী।

প্রার্থিতা ফিরে পাওয়া তিনজন হলেন- জাকের পার্টির মেয়র প্রার্থী এস এম সাব্বির হোসেন, ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মো. ইউসুফ আলী খান ও ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মো. জাকির হোসেন।

যাদের প্রার্থিতা বাতিল হয়েছে, তারা হলেন- স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী আল আমিন মো. আব্দুল্লাহ চৌধুরী, এস এম শফিকুর রহমান ও সৈয়দ কামরুল ইসলাম এবং ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী সৈয়দ হুমায়ুন কবির ও ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর মো. শমশের আলী মিন্টু।

এদিকে ১০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী কাজী তালাত হোসেন কাউট হলফনামায় তথ্য গোপন করেছেন এমন অভিযোগে প্রার্থিতার বৈধতার বিরুদ্ধে আপিল করেন কাউন্সিল প্রার্থী শরিফুল ইসলাম। পরে তিনি তা প্রত্যাহার করেন।

খুলনা বিভাগীয় কমিশনার ও রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ১৮ মে মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের সময় ৪ মেয়র প্রার্থীসহ ১৮ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। তার মধ্যে ১৫ জন প্রার্থিতা ফিরে পেতে আপিল করেন।

গত দুই দিনে ১৫ জনের আপিলের শুনানি শেষে প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন এক মেয়র প্রার্থীসহ ৭ জন। আর ৩ স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীসহ ৮ জনের প্রার্থিতা বাতিল হয়েছে।

এর ফলে সিটি নির্বাচনে ৪ জন মেয়র প্রার্থী, ৩৯ জন সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী ও ১৪১ জন সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থীসহ মোট ১৮৪ জনের মনোনয়নপত্র বৈধ হয়েছে।

খুলনার অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) ও স্থানীয় সরকার বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, আপিলে যাদের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে তারা হাইকোর্টে আপিল করতে পারবেন।

জাকের পার্টির মেয়র প্রার্থী এস এম সাব্বির হোসেন বলেন, আশা ছিল, প্রার্থিতা ফিরে পাব। এখন প্রচারের প্রস্তুতি শুরু করব।

স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী এস এম শফিকুর রহমান জানান, তিনি হাইকোর্টে আপিল করবেন। স্বতন্ত্র অপর দুই মেয়র প্রার্থী হাইকোর্টে আপিল করবেন না বলে জানান।

সোনালী/জেআর