ঢাকা | জুলাই ১৭, ২০২৪ - ৭:০৬ অপরাহ্ন

যুক্তরাষ্ট্র আর নিষেধাজ্ঞা দেবে না, ধারণা মন্ত্রীর

  • আপডেট: Sunday, May 21, 2023 - 3:55 pm

অনলাইন ডেস্ক: বাংলাদেশের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র আর কোনো নিষেধাজ্ঞা দেবে না বলে মনে করেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক। তিনি বলেছেন, বাংলাদেশে মানুষ পূর্ণ বাকস্বাধীনতা ভোগ করছে।

আমি বুঝি না স‌্যাংশন কেন দেবে। আমার ধারণা তারা স‌্যাংশন দেবে না। তারা বাস্তবতাটা বুঝবে। তারা একটা সুষ্ঠু, সুন্দর ও গ্রহণযোগ‌্য নির্বাচনে আমাদের সহযোগিতা করবে।

রোববার (২১ মে) সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক বলেন, বাংলাদেশের এতগুলো সংবাদমাধ্যম। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আমার বিরুদ্ধে যার যা খুশি লিখে যাচ্ছে। আমরা তো কাউকে গ্রেপ্তার করি না, বাধাও দেই না। মানুষ পূর্ণ বাকস্বাধীনতা ভোগ করছে।

আমি বুঝি না নিষেধাজ্ঞা কেন দেবে? আমার ধারণা, তারা নিষেধাজ্ঞা দেবে না, বাস্তবতা বুঝবে। একটি সুষ্ঠু গণতান্ত্রিক নির্বাচনে সহায়তা করবে। আমি আশাবাদী, আমেরিকা নিষেধাজ্ঞা দেবে না।

‘আরও মার্কিন নিষেধাজ্ঞা আসছে, প্রস্তুত সরকার’ শিরোনামে খবর ছেপেছে একটি দৈনিক। এ বিষয়ে জানতে চাইলে আব্দুর রাজ্জাক বলেন, লিখতে পারে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঠিকই বলেছেন। স্বাধীন-সার্বভৌম দেশ হিসেবে বিদেশিদের হস্তক্ষেপ আমরা কোনো দিনই কামনা করি না বা সহজভাবে নিতে পারি না।

আমার দৃষ্টিতে বাংলাদেশ একটি মুসলিম অধ্যুষিত দেশ। এখানে আশি শতাংশের বেশি মুসলমান। যেভাবে জঙ্গি তৎপরতা বেড়েছিল, সেই পরিপ্রেক্ষিতে র‌্যাব ও অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী জঙ্গিদের দমন করেছে।

এমন প্রেক্ষাপটে কিছু কিছু ক্ষেত্রে আমাদের বাস্তববাদী হতে হয়েছে। দেশ ও জাতির স্বার্থে আমাদের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে হয়েছে। আর এ কারণে যদি নিষেধাজ্ঞা দেয়, তাহলে তা কতটা যুক্তিসঙ্গত বলে প্রশ্ন রাখেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, বিএনপিসহ বিরোধী দলগুলো আমাদের বিরুদ্ধে প্রতিদিন অভিযোগ আনছে। সেসব অভিযোগের ভিত্তিতে আমাদের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়। আমি বলি যে, মিশরে কী গণতন্ত্র আছে। নির্বাচিত হয়ে তো একজন প্রেসিডেন্ট হয়েছিল।

কিন্তু বর্তমান ক্ষমতাসীনরা তাকেও মেরে ফেলেছে। সেখানে নির্বাচিত প্রেসিডেন্টকে জেলে দেওয়ার ছয়মাসের মধ্যে ৮০০ মিলিয়ন ডলার সহায়তা দেওয়া হয়েছে। আমাদের কয় মিলিয়ন ডলার দিয়েছে তারা? আমরা তো গণতান্ত্রিক দেশ। মিশরের চেয়ে আমাদের সম্পদও কম।

তিনি বলেন, বর্তমানে নির্বাচিত সরকার ক্ষমতায় আছে, ছয়মাস পরে আরও একটি নির্বাচন হবে। পৃথিবীর কোনো দেশে তত্ত্বাবধায়ক সরকার নেই। কাজেই বাংলাদেশে এমন কোনো সরকারের অধীন নির্বাচন হবে না।

সংবিধানের বহির্ভূত কিছু হবে না। তবে সুষ্ঠু, সুন্দর ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হওয়া দরকার। আর এ দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনের। সরকার কমিশনকে সহায়তা করবে।

আব্দুর রাজ্জাক বলেন, আমি একজন আশাবাদী মানুষ। পত্রিকায় যে রিপোর্টই আসুক। আমেরিকা আরও স‌্যাংশন দেবে বলে আমি মনে করি না। স‌্যাংশন যদি দেয় একটা স্বাধীন দেশ হিসেবে আমাদের এর মধ‌্য দিয়েই চলতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, যারা স‌্যাংশন দেবে তাদের কাছ থেকে আমরা কিছু কিনব না। এর তিনদিনের মধ‌্যে আমরা যুক্তরাষ্ট্র থেকে ডাল ও চিনি কিনছি- এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘আরও যদি স‌্যাংশন দেয় সেটা বলছি।

চায়নার বিরুদ্ধে কত কিছু বলছে। চায়নার জিনিসে তো আমেরিকার বাজার সয়লাব হয়ে আছে। ওইভাবে বন্ধ হয় না। যদি একেবারে নিষিদ্ধ করে দেয় যে বাংলাদেশের গার্মেন্টস নেবে না বা অমুক পণ‌্য নেবে না। আমার মনে হয় না আমেরিকা এ ধরনের স‌্যাংশন বাংলাদেশে দেবে।

সোনালী/জেআর