ঢাকা | এপ্রিল ২০, ২০২৪ - ৩:১৩ পূর্বাহ্ন

রাজশাহীতে ভুয়া আইডি খুলে আপত্তিকর স্ট্যাটাস, যুবকের ৫ বছরের দণ্ড

  • আপডেট: Wednesday, May 17, 2023 - 6:00 pm

অনলাইন ডেস্ক: চিকিৎসক ভাই ও তার সংবাদ পাঠিকা বোনকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভুয়া আইডি খুলে আপত্তিকর স্ট্যাটাস দেওয়ায় এক যুবককে পাঁচ বছরের সাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন রাজশাহীর সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালত।

পাশাপাশি তাকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অনাদায়ে আরও তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

বুধবার (১৭ মে) দুপুরে রাজশাহীর সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক মো. জিয়াউর রহমান এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত রাশেদুস সালেকিন ওরফে রুবেল (৩৩)। তিনি রাজশাহী নগরীর রাজপাড়া থানার নতুন বিলসিমলা এলাকার বাসিন্দা।

রায় ঘোষণার সময় আসামি রুবেল আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পরে তাকে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠায় কোর্ট পুলিশ।

রাজশাহীর সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটার (পিপি) অ্যাডভোকেট ইসমত আরা বেগম বাংলানিউজকে সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

মামলার বিবরণ উল্লেখ করে অ্যাডভোকেট ইসমত আরা বেগম বলেন, ভুক্তভোগী ব্যক্তি একজন চিকিৎসক ও তার বোন বাংলাদেশ বেতার ঢাকা কেন্দ্রের সংবাদ পাঠিকা। এ চিকিৎসকের সংবাদ পাঠিকা বোনের নাম ব্যবহার করে অভিযুক্ত রুবেল একটি ভুয়া ফেসবুক আইডি খোলেন।

ওই ফেসবুক আইডি থেকে এ সংবাদ পাঠিকা ও তার ভাই সম্পর্কে আপত্তিকর স্ট্যাটাস দেওয়া হয়। বিষয়টি পরে ওই নারীর নজরে আসে। এ ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে ২০২১ সালের ২৫ নভেম্বর সাইবার ট্রাইব্যুনাল আইনে মামলা করেন।

পরে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ সিআইডি ওই ফেসবুক আইডি হোল্ডারকে শনাক্ত করে। সিআইডির তদন্তে আসামির নাম-ঠিকানা বের হওয়ার পর তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে পুলিশ এ মামলায় আদালতে চার্জশিট দাখিল করে।

এরপর রাজশাহীর সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে এর বিচার কাজ শুরু হয়। আদালতে সাক্ষী গ্রহণের পর আসামির বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ প্রমাণিত হয়। এরপর আজ আসামির উপস্থিতিতে রায় ঘোষণা করা হয়।

তিনি বলেন, রায়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন- ২০১৮ এর ২৪ ধারায় দুই বছর, ২৫ ধারায় দুই বছর ও ২৯ ধারায় এক বছর কারাদণ্ড দেন আদালতের বিচারক।

এছাড়া আসামিকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অনাদায়ে আরও তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। সবগুলো সাজা এক সঙ্গেই চলবে। গ্রেপ্তারের পর হাজতবাস মূল সাজা থেকে বাদ যাবে বলেও রায়ে উল্লেখ করা হয়েছে।

সোনালী/জেআর