ঢাকা | এপ্রিল ২০, ২০২৪ - ৬:৩৮ পূর্বাহ্ন

নির্বাচনকালে আইনে প্রদত্ত ক্ষমতা প্রয়োগের চেষ্টা করবো

  • আপডেট: Tuesday, May 16, 2023 - 8:36 pm

অনলাইন ডেস্ক: প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেছেন, নির্বাচনকালীন যে রাজনৈতিক সরকার বা যে আমলাতান্ত্রিক সরকার থাকবে (আমলাতান্ত্রিক সরকার বলতে মন্ত্রিপরিষদ সচিব থেকে সহকারী সচিব পর্যন্ত ও রাজনৈতিক সরকার বলতে উপ-মন্ত্রী থেকে উপর পর্যন্ত) দুটো মিলেই কিন্তু পরিপূর্ণ সরকার।

আমরা রাজনৈতিক সরকার ও আমলাতিন্ত্রক সরকারে ওপর আমাদের যে নিয়ন্ত্রণ (আইনে প্রদত্ত) সেটি প্রয়োগের চেষ্টা করবো।

মঙ্গলবার নির্বাচন ভবনে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি এ কথা বলেন।

মিডিয়ায় বক্তব্য দিলে ‘থার্টি পার্সেন্ট টুইস্টেড’ হয়ে যায় বলে মন্তব্য করে সিইসি বলেন, মিডিয়ায় যখন বক্তব্য দেয়া হয় তখন ওটা টুয়েন্টি পার্সেন্ট, থার্টি পার্সেন্ট টুইস্টেড হয়ে যায়। তখন বিব্রতকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। এ জন্য সতর্ক হয়ে কথা বলতে হয়।

এ সময় সাংবাদিকদের প্রতি বস্তুনিষ্ঠভাবে বক্তব্য উপস্থাপনের আহ্বান জানান কাজী হাবিবুল আউয়াল। তিনি বলেন, আপনারা কাইন্ডলি বক্তব্যটাকে বস্তুনিষ্ঠভাবে প্রকাশ করার চেষ্টা করবেন।

জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে অংশগ্রহণমূলক, উৎসবমুখর করে তুলতেও আহ্বান জানান সিইসি। তিনি বলেন, আমাদের যে দায়িত্ব থাকবে, আমাদের দায়িত্ব কোনো দলের দিকে তাকানো নয়। ভোটাররা যাতে নির্ভয়ে, উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেন সেই চেষ্টাটাই আমরা করবো।

বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর নেতৃত্বে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সঙ্গে বৈঠকের বিষয়বস্তু তুলে ধরে সিইসি আরও বলেন, আমরা আশ্বাস দিয়েছি, আমাদের দায়িত্ব সাধ্য অনুযায়ী যতটুকু সম্ভব পালন করার চেষ্টা করবো। আবার এটাও বলেছি যে হ্যাঁ, নির্বাচন কমিশনের ওপর নির্বাচন আয়োজনের একটা বড় দায়িত্ব আছে। একই সঙ্গে আপনারাও যারা দল আছেন, নেতৃবৃন্দ আছেন, কর্মীরা আছেন; তাদেরও দায়িত্ব আছে সার্বিকভাবে নির্বাচনের জন্য একটা অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করে দেয়া। খুব প্রতিকূল পরিবেশ যদি বিরাজ করে তাহলে আমাদের জন্য অনেকটা কষ্টসাধ্য হয়ে পড়তে পারে।

কাদের সিদ্দিকীকে দেখিয়ে সিইসি বলেন, উনি বলেছেন যে নির্বাচনের সময় সরকার হচ্ছে নির্বাচন কমিশন। আমরা এটা বুঝি; কিন্তু তার পরও গ্রাউন্ড রিয়েলিটিটাকে মাথায় রেখে আমরা বলেছি সেই ক্ষেত্রেও আমরা চেষ্টা করবো যতদূর সম্ভব দক্ষতার সঙ্গে, সততার সাথে এবং সাহসিকতা নিয়ে দায়িত্বটা পালন করবো।

তিনি বলেছেন, যদি আসন্ন বাসাইল পৌরসভা নির্বাচন সুষ্ঠু হয়, তাহলে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে উনারা অংশগ্রহণ করবেন। আমরা বারবার বলেছি যে একটা অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন চাই। উনি বলেছেন, অংশগ্রহণমূলক যদি না হয়, তাদের করার কিছু থাকবে না।

সোনালী/জেআর