ঢাকা | এপ্রিল ২৩, ২০২৪ - ২:১১ অপরাহ্ন

রাজশাহীতে র‍্যাব পরিচয়ে ছিনতাই, পুলিশসহ গ্রেপ্তার ২

  • আপডেট: Sunday, April 30, 2023 - 7:45 pm

অনলাইন ডেস্ক: রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে র‍্যাব পরিচয়ে ছিনতাইকালে পুলিশের এক কনস্টেবলসহ দু’জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

শনিবার রাতে উপজেলার চাপাল এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। এ ঘাটনায় গোদাগাড়ী থানায় মামলা হয়েছে।

আজ রোববার পুলিশ কনস্টেবল আবু হেনা মোস্তফা কামাল ও তার সহযোগী রাব্বানীকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

কনস্টেবল মোস্তফা কামাল রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) দামকুড়া থানায় কর্মরত। তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলার আলীনগর গ্রামের তাহেরুল ইসলামের ছেলে। অপর আসামি রাব্বানী মহানগরীর রাজপাড়া থানার ভাটাপাড়ার আমিনুল ইসলামের ছেলে।

গোদাগাড়ী থানার ওসি কামরুল ইসলাম জানান, শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে চাপাল এলাকায় বুলবুল আহম্মেদ নামে এক যুবককে র‍্যাব পরিচয়ে তল্লাশি করছিলেন মোস্তফা কামাল ও রাব্বানী। এ সময় তারা বুলবুলের মোবাইল ফোন ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নেন। ওই যুবক তাদের পরিচয় জানতে চাইলে মোস্তফা কামাল নিজেকে র‍্যাব সদস্য বলে দাবি করেন।

তার দাবি অনুযায়ী পরিচয়পত্র দেখতে চাইলে তাকে মারধর শুরু করেন মোস্তফা কামাল ও রাব্বানী। এতে বুলবুল চিৎকার দিলে আশপাশের লোকজন এসে ওই দু’জনকে আটক করে র‍্যাব ও পুলিশে খবর দেন।

ওসি কামরুল আরও জানান, পুলিশ ও র‍্যাব সদস্যরা ঘটনাস্থলে গেলে মোস্তফা কামাল নিজেকে আরএমপির কনস্টেবল হিসেবে পরিচয় দেন।

এ সময় তাদের আটক করে র‍্যাব-৫ সদর দপ্তরে নেওয়া হয়। সেখানে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাতেই তাদের থানায় হস্তান্তর করা হয়।

র‍্যাব-৫ রাজশাহীর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল রিয়াজ শাহরিয়ার জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ছিনতাইয়ের কথা স্বীকার করেছেন মোস্তফা কামাল ও রাব্বানী। র‍্যাবের মিথ্যা পরিচয় দেওয়া এবং ছিনতাইয়ের অভিযোগে তাদের নামে মামলা করা হয়েছে।

এ বিষয়ে আরএমপির মুখপাত্র ও অতিরিক্ত উপ-কমিশনার রফিকুল আলম বলেন, কনস্টেবল মোস্তফা কামালের নামে ছিনতাইয়ের মামলা হয়েছে। অভিযোগ সত্য হলে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সোনালী/জেআর