ঢাকা | জুন ১৪, ২০২৪ - ১০:১২ অপরাহ্ন

হামলার সঙ্গে বিশেষ গোষ্ঠী জড়িত, বললেন রাবি ভিসি

  • আপডেট: Monday, March 13, 2023 - 5:00 pm

রাবি ও অনলাইন ডেস্ক: স্থানীয় ব্যবসায়ীদের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের ঘটনার দিন অগ্নিসংযোগ ও হামলার সঙ্গে বহিরাগত বিশেষ গোষ্ঠী জড়িত বলে মন্তব্য করেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) উপাচার্য (ভিসি) অধ্যাপক ড. গোলাম সাব্বির সাত্তার।

তিনি বলেছেন, ঘটনার সুযোগ নিয়ে বহিরাগতরা ছাত্রদের মধ্যে ঢুকে পড়েন। মূলত তারাই হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটিয়েছেন। রাবি শিক্ষার্থীরা এমন কাজের সঙ্গে সম্পৃক্ত হতে পারে।

গত দুইদিন থেকে শিক্ষার্থীদের স্থানীয় ব্যবসায়ীদের সঙ্গে সংঘর্ষ, হামলা ও অগ্নিসংযোগকে ঘিরে উদ্ভুত পরিস্থিতি নিয়ে সোমবার (১৩ মার্চ) দুপুরে গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় রাবি শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলন প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন। এছাড়া মঙ্গলবার (১৪ মার্চ) থেকে যথারীতি ক্লাস ও পরীক্ষা চলবে বলেও জানান উপাচার্য।

রাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. গোলাম সাব্বির সাত্তার বলেন, ঘটনার দিন অগ্নিসংযোগ ও হামলার সঙ্গে বহিরাগত বিশেষ গোষ্ঠী জড়িত। পুরো বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্য তদন্ত কমিটি করে দেওয়া হয়েছে। এই তদন্ত কমিটি পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে ঘটনা বিশ্লেষণ করে তথ্য উপাত্তের ভিত্তিতে রিপোর্ট দেবেন। এজন্য তিন সদস্যের কমিটি পুনর্গঠন করে পাঁচ সদস্য বিশিষ্ট করা হয়েছে। সাতদিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। তারপর সেই অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়া শিক্ষার্থী প্রতিনিধির সঙ্গেও বসা হবে।

এ সময় গণমাধ্যমকর্মীরা ক্যাম্পাসে দায়িত্ব পালনের সময় সাংবাদিকদের ওপরে হামলা ও ক্যামেরাসহ বিভিন্ন যন্ত্রাংশ ভাঙচুরের ঘটনা তুলে ধরেন রাবি উপাচার্যের সামনে। তারা দোষীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা এবং রাবি প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিপূরণের দাবি জানান। তবে ভিসি জানান, বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনার জন্য বিভিন্ন খাতে বরাদ্দ করা অর্থ খরচের বাইরে তার খরচের কোনো এখতিয়ার নেই। কিন্তু সবাই মিলে উদ্যোগ নিলে ক্ষতিপূরণের বিষয়টি ভেবে দেখা যেতে পারে। আর এ ঘটনায় যেই জড়িত থাকুক, তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এর আগে রাবির শিক্ষার্থীদের সঙ্গে স্থানীয়দের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। শনিবার (১১ মার্চ) বিকেল ৫টা থেকে এ সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। রাত প্রায় সাড়ে ১১টা পর্যন্ত থেমে থেমে সংঘর্ষ চলে। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও সাংবাদিকসহ দুই শতাধিক ব্যক্তি আহত হয়। দফায় দফায় এ সংঘর্ষের ঘটনার পর থেকে সেখানে পুলিশ ও র‌্যাবের পাশাপাশি সাত প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে।

সোনালী/জেআর