ঢাকা | জুন ২১, ২০২৪ - ১২:২৪ পূর্বাহ্ন

বাঘায় গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু

  • আপডেট: Sunday, February 12, 2023 - 1:06 am

অনলাইন ডেস্ক: রাজশাহীর বাঘায় এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে শ্বশুরবাড়িতে ঝুলন্ত অবস্থায় ওই গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত গৃহবধূর নাম প্রিয়া খাতুন (২০)। তিনি বাঘা উপজেলার বাউসা ইউনিয়নের দিঘা দাবিয়াতলা গ্রামের ইসলাম আলীর স্ত্রী।

নিহতের শ্বশুরবাড়ির লোকজনের দাবি, স্বামীর ওপর অভিমান করে ওই গৃহবধূ সকালে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। তবে গৃহবধূর মৃত্যুর ঘটনাটি রহস্যজনক বলছে পুলিশ।

এ বিষয়ে বাঘা থানার ওসি সাজ্জাদ হোসেন বলেন, শনিবার সকালে শয়নকক্ষে ঝুলন্ত অবস্থায় তার মরদেহ দেখে থানায় খবর দেওয়া হয়। পরে বাঘা থানা পুলিশ দুপুরে ঘটনাস্থলে যায় এবং মরদেহ উদ্ধার করে। এই মৃত্যুটি রহস্যজনক মনে হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন না পাওয়া পর্যন্ত মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে না। আপাতত এই ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা হবে।

ময়নাতদন্তের রিপোর্টে অন্য কিছু পেলে পরে সেই অনুযায়ী আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

তিনি আরও বলেন, নিহতের শ্বশুরবাড়ির লোকজন বলছে, কয়েক দিন আগে প্রিয়া খাতুন বাবার বাড়ি পাবনায় বেড়াতে যেতে চান। বিষয়টি নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে দ্বন্দ্ব হয়। তার স্বামী কাজে চলে যাওয়ার পর ওই সময় বাড়িতে কেউ ছিল না। এ দ্বন্দ্বের জের ধরে আজ সকালে পরিবারের অজান্তে নিজ শয়নকক্ষে তীরের সঙ্গে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়েছেন।

তবে প্রকৃত ঘটনা জানার জন্য প্রিয়ার শ্বশুরবাড়ির লোকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে জানান ওসি সাজ্জাদ।

সোনালী/জেআর